"মৈতৈ মণিপুরী ভাষা" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

(বিষয়বস্তু যোগ)
কখনও "মণিপুরী" শব্দটি [[বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী ভাষা]] এবং বিষ্ণুপ্রিয়া জাতির ক্ষেত্রেও ব্যবহার করা হয়।
এছাড়াও "মণিপুরী" শব্দটি মণিপুর রাজ্য সম্বন্ধীয় যে কোন বিষয় ব্যবহার করা হয়।
 
== উপভাষা ==
মৈতৈ ভাষার বহু উপভাষা আছে, কিন্তু ইদানিংকালে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি এবং অসবর্ণ বিবাহের ফলে উপভাষাগুলির মধ্যে যে পার্থক্য আছে তা প্রায় নগণ্য হয়ে গেছে।
এর ব্যতিক্রম হচ্ছে ত্রিপুরা, বাংলাদেশ ও মায়ানমারে পাওয়া উপভাষার বাক্-পার্থক্য।<ref>
{{বই উদ্ধৃতি
|last1=Thoudam|first1=P. C.
|title=Demographic and Ethnographic Information: Problems in the analysis of Manipuri language
|date=2006
|publisher=Central Institute of Indian Language}}
</ref> মৈতৈয়ের উপভাষার সঠিক সংখ্যা অজানা।<ref>
{{সাময়িকী উদ্ধৃতি
|last1=Haokip |first1=P.
|date=April 2011
|title=The Languages of Manipur: A Case Study of the Kuki-Chin Languages
|journal=Linguistics of the Tibeto-Burman Area
|volume=34 |issue=1 |pages=86–118}}
</ref>
 
এই ভাষার প্রধান উপভাষাগুলি হল প্রমিত মৈতৈ, লোই এবং পাঙ্গাল।
মৈতৈয়ের উপভাষাগুলির মূল পার্থক্যগুলি হল নতুন ধ্বনির বিস্তার এবং সুরাঘাতীয় অপসরণ।
প্রমিত মৈতৈকে অন্য দুটি উপভাষার চেয়ে বেশি পরিবর্তনশীল বলে মনে করা হয়।
উপভাষাগুলির সামান্য পার্থক্যগুলি নিম্নলিখিত সারণিতে দেওয়া হল:<ref>
{{বই উদ্ধৃতি
|last1=Ningoma|first1=M. S.
|title=Manipur Dialects
|date=1996
|publisher=Sealang Projects}}
</ref>
{| class="wikitable"
|-
! প্রমিত মৈতৈ<ref>
{{বই উদ্ধৃতি
|last1=Primeros|first1=A. J.
|title=A Manipuri Grammar, Vocabulary and Phrase Book
|date=1888
|publisher=Assam Secretariat Press
|location=Shillong}}
</ref> !! লোই !! পাঙ্গাল !! বাংলা
|-
| চাঃবা || চাঃপা || চাঃবা || খাওয়া
|-
| কপ্পা || কপ্মা || কব্বা || কাঁদা
|-
| সাঃবিবা || সাঃপিপা || সাঃবিবা || বানানো
|-
| থাম্বা || থাম্পা || থাম্বা || রাখা
|-
| চুপ্পিবা|| চুপ্পিপা || চুবিবা || চুম্বন দেওয়া
|}
 
দেবী (২০০২) মৈতৈয়ের [[ইম্ফল]], [[আন্দ্রো]], [[কৌত্রুক]] এবং [[কাকচিং]] উপভাষাগুলির তুলনা করেছেন।
 
== তথ্যসূত্র ==