অষ্টক গীত ও নৃত্য: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

(নতুন নিবন্ধন)
 
 
==সাধারণ ধারণা==
 
 
 
==শিল্পী-দের কথা==
অষ্টক গীত ও নৃত্য এদেশের অস্তায়মান লোকজ উৎসবের একটি অন্যতম প্রধান উপাদান; অতীতে এর পরিবেশক কয়েকজন প্রখ্যাত শিল্পী থাকলেও বর্তমানে এদের প্রচার ও প্রসার বলতে গেলে প্রায় শূণ্যের কৌঠায়। বাংলাদেশে অষ্টক গীত ও নৃত্যের স্বনাম-ধন্য কিছু শিল্পীর মধ্যে ঝিনাইদহ জেলার শৈলকূপা থানার বালিয়াঘাট গ্রামের স্বরূপ চন্দ্র বিশ্বাস, নিরাপদ বিশ্বাস এবং বিষ্ণুপদ মণ্ডল; নড়াইলের বাহিরডাঙা গ্রামের স্বভাবকবি বিপিন সরকার, ভাদুলিডাঙা গ্রামের সুবোধ বিশ্বাস অন্যতম। বর্তমানে যেসব দলের নাম আলোচিত হয়ে থাকে তাদের মধ্যে রয়েছে ঝিনাইদহ জেলার শৈলকূপার রঞ্জিত কুমার বিশ্বাস-এর, নড়াইল জেলার ভাদুলিডাঙা গ্রামের সুবোধ বিশ্বাস-এর, কুষ্টিয়া জেলার মিরপুরের হোসেন আলী-এর, নড়াইল জেলার হাতিয়ারার নিখিল গোস্বামী-এর এবং বাহিরডাঙা গ্রামের বিপিন সরকার-এর অষ্টক গীত ও নৃত্যের দল।
যদিও সনাতন ধর্মানুসারী জনসাধারণ তাদের অন্যতম-প্রধান লোকজ উৎসব “চৈত্র-সংক্রান্তি”-তে অষ্টক গীত ও নৃত্য পরিবেশন করে থাকেন, কিন্তু ক্ষেত্র-বিশেষ তাদের পরিবেশনায় মুসলমান দু’একজন বাদ্যকর / কুশীলবকে অংশ নিতে দেখা যায়। এখানে উল্লেখ্য যে, ২০০০ সালের দিকে কুষ্টিয়া জেলার কিছু অঞ্চলে অষ্টক গীত ও নৃত্যের পরিবেশক কয়েকটি মুসলমান দলের উদ্ভব ঘটেছে যারা বিভিন্ন পালা-পার্বনে অষ্টক গীত ও নৃত্য পরিবেশন করে।
২৯,০৮৪টি

সম্পাদনা