বিপণীবীথি বা ইংরেজি পরিভাষায় ডিপার্টমেন্ট স্টোর (ইংরেজি: Department store) এক ধরনের খুচরাদ্রব্য বিক্রয় প্রতিষ্ঠান যেখানে বহু বিভিন্ন প্রকারের ভোগদ্রব্য বিক্রি করা হয় এবং এই পণ্যগুলিকে ভিন্ন ভিন্ন শ্রেণীতে বিভক্ত করে দোকানের আলাদা আলাদা বিভাগে উপস্থাপন করা হয় (ইংরেজিতে যাদেরকে "ডিপার্টমেন্ট" বলা হয়)। আধুনিক বড় নগরগুলিতে ১৯শ শতকের মাঝামাঝি সময়ে নাটকীয়ভাবে এই বিপণীবীথিগুলির আবির্ভাব ঘটে এবং এর ফলে মানুষের কেনাকাটার অভ্যাসসহ সেবা ও বিলাসের সংজ্ঞা স্থায়ীভাবে বদলে যায়। লন্ডন শহরে উইটলেস, প্যারিস শহরে ল্য বোঁ মার্শে এবং নিউ ইয়র্ক শহরে স্টিউয়ার্টস নামের বিপণীবীথিগুলি এই পরিবর্তনে মূল ভূমিকা পালন করে।[১]

ফ্রান্সের প্যারিস শহরে অবস্থিত ল্য বোঁ মার্শে বিপণীবীথির অভ্যন্তরভাগ।

বর্তমানে বিপণীবীথিগুলিতে নিম্নলিখিত শ্রেণীর পণ্যগুলি পাওয়া যায়: পোশাক-আশাক, আসবাবপত্র, ঘরে ব্যবহার্য বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি, খেলনা, প্রসাধনী, ঘরের নিত্যপ্রয়োজনীয় সরঞ্জাম, বাগানের দ্রব্যসামগ্রী, দৈহিক পরিচ্ছন্নতা সামগ্রী, ক্রীড়া সামগ্রী, নিজে হাতে করা, রঙ এবং ঘর মেরামত সামগ্রী। এছাড়া খাদ্য, বই, রত্নপাথর, গহনা, ইলেকট্রনিক দ্রব্য, পড়ালেখার উপকরণ, আলোকচিত্র গ্রহণের যন্ত্রাদি, শিশু সামগ্রী, পোষাপ্রাণীদের সামগ্রী, ইত্যাদিও বিক্রি হয়।

ক্রেতারা সাধারণত দোকানের সম্মুখভাবে ক্রয় করা পণ্যের জন্য অর্থ পরিশোধ করে বেরিয়ে আসেন। তবে কিছু কিছু বিপণীবীথিতে প্রতিটি বিভাগের পরিশোধকেন্দ্র বা কাউন্টার থাকে। কিছু কিছু বিপণীবীথি স্বাধীন একক ধরনের হয়ে থাকে। আবার কিছু কিছু কোনও বৃহত্তর খুচরা বিপণীশৃঙ্খলের অংশ হয়ে থাকে।

২১শ শতকে এসে বিপণীবীথিগুলি ইন্টারনেটে অবস্থিত ই-বাণিজ্য ওয়েবসাইটগুলির সাথে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অবতীর্ণ হয়েছে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Gunther Barth, "The Department Store," in City People: The Rise of Modern City Culture in Nineteenth-Century America. (Oxford University Press, 1980) pp 110–47,