বিদ্বৎসমাজ বা বিদ্বৎসমিতি বলতে জ্ঞানের কোনও শাখা, উচ্চশিক্ষাপীঠে অধীত কোনও বিষয়, কোনও পেশা কিংবা পরস্পর সম্পর্কিত একাধিক জ্ঞানের শাখার গুচ্ছ (যেমন বিজ্ঞান বা শিল্পকলা) নিয়ে গবেষণাকে অগ্রসর করার লক্ষ্যে সংগঠিত একটি (সাধারণত) বেসরকারী সংগঠনকে বোঝায়।[১] এগুলির সদস্যপদ সবার জন্য উন্মুক্ত হতে পারে, কিংবা নির্দিষ্টি কোনও যোগ্যতার অধিকারী হলেই সদস্যপদ দেওয়া হতে পারে, অথবা নির্বাচনের মাধ্যমে সদস্যপদ প্রদান করা হতে পারে।[২] সদস্যদেরকে বিদ্বৎসমাজের সভ্য বা ইংরেজি পরিভাষায় "ফেলো" বলা হয়।

বেশিরভাগ বিদ্বৎসমাজই অলাভজনক প্রতিষ্ঠান হয়ে থাকে। অনেকগুলিই পেশাদারী সংগঠন। বিদ্বৎসমাজের সদস্যরা নিয়মিতভাবে সম্মেলনের আয়োজন করেন যেখানে তারা গবেষণালব্ধ নতুন নতুন ফলাফল উপস্থাপন করেন ও এগুলি নিয়ে আলোচনা করেন। এছাড়া বিদ্বৎসমাজগুলি গবেষণা সাময়িকী (জার্নাল) প্রকাশনা ও আর্থিক পৃষ্ঠপোষকতার সাথে জড়িত থাকে। কিছু কিছু বিদ্বৎসমাজ পেশাদারী নিয়ন্ত্রক সংস্থা হিসেবে কাজ করে এবং জনস্বার্থে তাদের সদস্যদের কর্মকাণ্ড যেন নির্দিষ্ট বিধিমাফিক হয়, তা নিশ্চিত করে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "The Environmental Studies Association of Canada - What is a Learned Society?"। ২৯ মে ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ মে ২০১৩ 
  2. "Learned societies & academies"। ৩ জুন ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ মে ২০১৩