বালাজী বাজী রাও

বালাজী বাজী রাও (৮ ডিসেম্বর ১৭২০ – ২৩ জুন ১৭৬১), যিনি নানা সাহেব নামেও পরিচিত, ছিলেন ভারতের মারাঠা সাম্রাজ্যের একজন পেশোয়া (প্রধানমন্ত্রী)[১]


পেশোয়া নানাসাহেব
Painting at Prince of Wales museum.jpg
পেশোয়া বালাজী বাজী রাও
Flag of the Maratha Empire.svg মারাঠা সাম্রাজ্যের পেশোয়া
কাজের মেয়াদ
৪ জুলাই ১৭৪০ – ২৩ জুন ১৭৬১
সার্বভৌম শাসকছত্রপতি শাহু
দ্বিতীয় রাজারাম
পূর্বসূরীপ্রথম বাজীরাও
উত্তরসূরীপ্রথম মাধবরাও
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম৮ ডিসেম্বর ১৭২০
বর্তমান পুনে, মহারাষ্ট্র, ভারত
মৃত্যু২৩ জুন ১৭৬১
পার্বতী পাহাড়, পুনে, মহারাষ্ট্র, ভারত
দাম্পত্য সঙ্গীগোপিকাবাঈ
সম্পর্করঘুনাথ রাও (ভাই)
সন্তানবিশ্বাসরাও
প্রথম মাধবরাও
নারায়ণ রাও
পিতামাতাপ্রথম বাজীরাও
কাশীবাঈ
ধর্মহিন্দু

তার সময়ে 'ছত্রপতি' (মারাঠা রাজা) কেবল একজন আনুষ্ঠানিক ব্যক্তিত্বে পরিণত হন। একই সময়ে মারাঠা সাম্রাজ্য একটি কনফেডারেশনে পরিণত হয়, যেখানে বিভিন্ন স্থানীয় নেতা (যেমন- হোলকার বংশ, সিন্ধিয়া বংশ কিংবা নাগপুরের ভোঁসলে বংশ) শক্তিশালী হয়ে ওঠেন। বালাজী রাওয়ের সময়ে মারাঠা সাম্রাজ্য এর ইতিহাসে সর্বোচ্চ বিস্তার লাভ করে। কিন্তু এই সম্প্রসারণের অধিকাংশই স্থানীয় মারাঠা নেতাদের কীর্তি, যাঁদের লুটতরাজ অধিকৃত অঞ্চলের জনগণকে বৈরীভাবাপন্ন করে তোলে[২]

বালাজী রাওয়ের আমলের শেষদিকে পেশোয়া একজন সেনাপতির চেয়ে একজন অর্থনীতিক হিসেবে বেশি প্রতীয়মান হন। বালাজী রাও তার পিতার মতো সুনিপুণ সেনাপতি ছিলেন না এবং উত্তর ভারতে আহমদ শাহ দুররানীর আক্রমণের গুরুত্ব অনুধাবন করতে তিনি ব্যর্থ হয়েছিলেন। এর ফলে পানিপথের তৃতীয় যুদ্ধে মারাঠারা শোচনীয়ভাবে পরাজিত হয়[২]। তার শাসনামলে বিচার ও রাজস্ব ব্যবস্থার কিছু সংস্কারসাধন হয়, কিন্তু এর কৃতিত্ব ছিল প্রকৃতপক্ষে তার চাচাতো ভাই সদাশিবরাও ভাউ এবং তার সহযোগী বলশাস্ত্রী গাদগিলের[২]

প্রাথমিক জীবন ও পরিবারসম্পাদনা

রঘুজী ভোঁসলের রাজ্যবিস্তারসম্পাদনা

তারাবাঈ এবং উমাবাঈয়ের বিদ্রোহসম্পাদনা

নিজামের বিরুদ্ধে অভিযানসম্পাদনা

রাজপুত রাজনীতিতে হস্তক্ষেপসম্পাদনা

জাঠদের সঙ্গে সম্পর্কসম্পাদনা

মুঘলদের সঙ্গে সম্পর্কসম্পাদনা

আফগান দুররানীদের সঙ্গে সংঘর্ষসম্পাদনা

মৃত্যুসম্পাদনা

আরো দেখুনসম্পাদনা

পূর্বসূরী
প্রথম বাজীরাও
পেশোয়া
১৭৪০–১৭৬১
উত্তরসূরী
প্রথম মাধবরাও

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Jaswant Lal Mehta (২০০৫)। Advanced Study in the History of Modern India 1707-1813। Sterling। পৃষ্ঠা 213–216। আইএসবিএন 9781932705546 
  2. G.S.Chhabra (১ জানুয়ারি ২০০৫)। Advance Study in the History of Modern India (Volume-1: 1707-1803)। Lotus Press। পৃষ্ঠা 29–47। আইএসবিএন 978-81-89093-06-8 

আরো পড়ুনসম্পাদনা

  • Balaji Bajirao (Nanasaheb) Peshwa by Prof. S. S. Puranik
  • Solstice at Panipat by Uday S. Kulkarni, Mula Mutha Publishers, 2nd edition, 2012.
  • Panipat by Vishwas Patil,Rajhamns publishers.