বাবা আমটে

ভারতীয় মুক্তিযোদ্ধা, সমাজকর্মী

বাবা আমটে[২] (হিন্দি: बाबा आमटे) নামে সুপরিচিত মুরলীধর দেবীদাস আমটে (হিন্দি: मुरलीधर देवीदास आमटे; ২৬ ডিসেম্বর ১৯১৪ - ৯ ফেব্রুয়ারি ২০০৮) ছিলেন একজন ভারতীয় সমাজসেবী ও সমাজকর্মী। তিনি লেপ্রোসিতে আক্রান্ত জনগণের পুনর্বাসন ও ক্ষমতায়ন নিয়ে কাজ করে পরিচিতি অর্জন করেন।

বাবা আমটে
बाबा आमटे
Baba Amte 2014 stamp of India.jpg
বাবা আমতে ২০১৪ ভারতের স্ট্যাম্প
জন্ম
মুরলীধর দেবীদাস আমটে

(১৯১৪-১২-২৬)২৬ ডিসেম্বর ১৯১৪[১]
হিঙ্গনঘাট, ওয়ার্দা, ব্রিটিশ ভারত (বর্তমান মহারাষ্ট্র, ভারত)
মৃত্যু৯ ফেব্রুয়ারি ২০০৮(2008-02-09) (বয়স ৯৩)
আনন্দবন, মহারাষ্ট্র, ভারত
জাতীয়তাভারতীয়
শিক্ষাস্নাতক, এল.এল.বি.
দাম্পত্য সঙ্গীসাধনা আমটে
সন্তান

তিনি ও তার স্ত্রী সাধনা আমটে ১৯৫০ সালে আনন্দবনে লেপ্রোসি রোগীদের জন্য একটি দাতব্য প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন। আরোগ্য নামে এই কাজটি শুরু হয়েছিল।[৩][৪] আমটে পদ্মবিভূষণ, ড. আমবেদকার আন্তর্জাতিক পুরস্কার, গান্ধী শান্তি পুরস্কার, রামোন ম্যাগসেসে পুরস্কার, টেম্পলটন পুরস্কার ও জাম্নালাল বাজাজ পুরস্কারসহ অসংখ্য পুরস্কার অর্জন করেন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Amte, the great social reformer"দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া। ৯ ফেব্রুয়ারি ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ২৬ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  2. Baba Amte. anandwan.in
  3. "Arogya"Yogapedia। ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২৬ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  4. Indu Ramchandani (২০০০)। Students' Britannica India। পপুলার প্রকাশন। পৃষ্ঠা ৬২। আইএসবিএন 0-85229-760-2