প্রধান মেনু খুলুন

বঙ্গবীর ওসমানী শিশু উদ্যান

বঙ্গবীর ওসমানী শিশু উদ্যান (যা বঙ্গবীর ওসমানী শিশু পার্ক নামেও পরিচিত) সিলেট শহরের একটি অন্যতম বিনোদন কেন্দ্র। এটি সিলেট বিভাগের প্রাণ কেন্দ্র (ধোপা দিঘীর পার) সিলেট সিটি কর্পোরেশন এলাকায় অবস্থিত।[১][২][৩]

বঙ্গবীর ওসমানী শিশু উদ্যান
ধরনবিনোদন উদ্যান
অবস্থানধোপা দিঘীর পার, সিলেট
স্থানাঙ্ক২৪°৫৩′৩৪″ উত্তর ৯১°৫২′৩৩″ পূর্ব / ২৪.৮৯২৮১° উত্তর ৯১.৮৭৫৮৭° পূর্ব / 24.89281; 91.87587স্থানাঙ্ক: ২৪°৫৩′৩৪″ উত্তর ৯১°৫২′৩৩″ পূর্ব / ২৪.৮৯২৮১° উত্তর ৯১.৮৭৫৮৭° পূর্ব / 24.89281; 91.87587
আয়তন৮ একর (৩.২৪ হেক্টর)
নির্মিত২০০০ (2000)
পরিচালিতসিলেট সিটি কর্পোরেশন

নামকরণসম্পাদনা

বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক জেনারেল আতাউল গণি ওসমানীর অবদানকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করতে ওসমানীরই শেষ ইচ্ছা অনুয়ায়ী তার নামে ২০০০ সালে স্থাপিত হয় এটি।[১][৪]

অবস্থান এবং বিবরণসম্পাদনা

নগরীর প্রাণকেন্দ্র ধোপা দিঘীর পারে দেখার মত বিনোদনকেন্দ্র এই বঙ্গবীর ওসমানী শিশু পার্ক। এই পার্ক স্থাপনে ব্যয় হয়েছে প্রায় পাঁচ কোটি টাকা। প্রায় ৮ একর আয়তনের এই পার্কে এখন দর্শনার্থীদের ভিড় দেখার মত। নানা ধরনের গেমস ছাড়াও এখানে শিশুরা চড়তে পারে ঘোড়া, ট্রেন, নৌকা, চড়কি। আর দেখতে পারে বন থেকে আনা স্নো চিতা, বানর ও ছোট বড় সব অজগর সাপ[৫][৬][৭]

আরো দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. সিলেট জেলার ঐতিহ্য। "বঙ্গবীর ওসমানী শিশু পার্ক"বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন। ২৫ জুন ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুন ২০১৯ 
  2. "আমাদের শহরে শিশুদের বিনোদন"sylheterdak.com.bd। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৬-২৫ 
  3. "সিলেট কাজিরবাজার সেতুতে সেলফি, শিশুপার্কে উপচে পড়া ভিড়"archive.is। ২০১৯-০৬-২৫। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৬-২৫ 
  4. "সিলেট জেলার ঐতিহ্য"জাতীয় তথ্য বাতায়ন। ২০১৯-০৬-২৫। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৬-২৫ 
  5. "প্রত্যাশিত উন্নয়ন হয়নি সিলেটে"যুগান্তর। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৬-২৫ 
  6. "ঈদের ছুটিতে মুখরিত সিলেটের পর্যটন স্পটসমূহ"ঢাকা ট্রিবিউন বাংলা। ২০১৮-০৮-২৪। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৬-২৫ 
  7. "ভিড় বাড়ছে সিলেট নগরীর বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে"jagonews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৬-২৫ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা