পূর্ব সিংভূম জেলা

ঝাড়খণ্ডের একটি জেলা

পূর্ব সিংভূম জেলা হলো ভারত-এর ঝাড়খণ্ড রাজ্যে অবস্থিত ২৪ টি জেলার একটি ৷ ১৬ জানুয়ারী ১৯৯০ খ্রীষ্টাব্দে (২রা মাঘ ১৩৯৬ বঙ্গাব্দ)পূর্বতন সিংভূম জেলা ভেঙে জেলাটি গঠিত হয় ৷

পূর্ব সিংভূম জেলা
ঝাড়খণ্ডের জেলা
ঝাড়খণ্ডে পূর্ব সিংভূমের অবস্থান
ঝাড়খণ্ডে পূর্ব সিংভূমের অবস্থান
দেশভারত
রাজ্যঝাড়খণ্ড
প্রশাসনিক বিভাগকোলহান বিভাগ
সদরদপ্তরজামশেদপুর
সরকার
 • লোকসভা কেন্দ্রজামশেদপুর
 • বিধানসভা আসন
আয়তন
 • মোট৩,৫৬২ বর্গকিমি (১,৩৭৫ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)
 • মোট২২,৯৩,৯১৯
 • জনঘনত্ব৬৪০/বর্গকিমি (১,৭০০/বর্গমাইল)
জনতাত্ত্বিক
 • সাক্ষরতা৭৫.৪৯ শতাংশ
 • লিঙ্গানুপাত৯৪৯
প্রধান মহাসড়কজা.স.৩৩ ও জা.স.৬
ওয়েবসাইটদাপ্তরিক ওয়েবসাইট

ভুগোলসম্পাদনা

পুর্ব সিংভূম জেলার পুর্বে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের ঝাড়গ্রাম জেলা , উত্তরে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের পুরুলিয়া জেলা , দক্ষিণে ওড়িশা রাাজ্যের ময়ূরভঞ্জ জেলা এবং পশ্চিমে ঝাড়খণ্ড রাজ্যের পশ্চিম সিংভূমসরাইকেলা খরসওয়াঁ জেলা অবস্থিত ৷

অর্থনীতিসম্পাদনা

ঝাড়খণ্ড রাজ্যের পূর্ব সিংভূম জেলাটি খনিজ উত্তোলন ও অন্যান্য বিভিন্ন বড়শিল্পজাত উৎপাদনের ক্ষেত্রে অগ্রগণ্য ৷ টাটানগর-জাামশেদপুর হলো জেলাটির সদর ও ভারতের অন্যতম উন্নতিশীল শিল্পনগরী ৷ পাঁচ দশক পুরানো তামা আকরিক পরিশোধনাগার হিন্দুস্থান কপার লিমিটেডটি জেলাটির অপর গুরুত্বপুর্ণ শহর ঘাটশিলার মৌভান্ডারে অবস্থিত ৷ সুবর্ণরেখার দক্ষিণ-পশ্চিমে তামা ও ইউরেনিয়ামের খনিটি অবস্থিত ৷ উল্লেখযোগ্য তামা উত্তোলনকেন্দ্রগুলি হল বনলোপা , বদিয়া , পাথরগোড়া , ধোবনি , কেন্দাডি এবং রাখা ৷ মুসাবনির সুরদাতে আবিষ্কৃৃৃত খনিটি পরীক্ষাধীন যা একটি অস্ট্রেলীয় খনন প্রতিষ্ঠান দ্বারা পরিচালিত ৷ ইউরেনায়াম কর্পোরেসন অফ ইন্ডিয়ার উদ্যোগে প্রাপ্ত ইউরেনিয়াম খনিগুলি নারোয়াপাহাড় , ভাতিন , তুরামডি , বাগজান্তাতে অবস্থিত ৷ জেলাটির দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থিত চাকুলিয়া চালকল , তেলঘানি , সাবান কারখানা ও বাঁল চাষের জন্য বিখ্যাত ৷ ৬ নং জাতীয় সড়কের ওপর বাহারাগোড়া একটি অন্যতম সংযোগকেন্দ্র ৷

পরিবহনসম্পাদনা

প্রশাসনিক বিভাগসম্পাদনা

জেলাটি ১১ টি মন্ডল নিয়ে গঠিত যাা নিম্নরূপ -

১) গোলমুরি ও যুগশলাই ২) পোটকা ৩) পতমদা ৪) বোরাম ৫) ঘাটশিলা ৬) মুসাবনি ৭) দুমারিয়া ৮) গুড়িবান্দা ৯) ধলভূমগড় ১০) বাহারাগোরা ১১) চাকুলিয়া

সংস্কৃতিসম্পাদনা

পুর্ব সিংভূম জেলাটি একাধিক সংস্কৃতিসম্পন্ন জাতিগোষ্ঠীর বাসস্থল যথা সাঁওতালি, বাংলা, ওড়িয়া, হিন্দী ছাড়াও হো, মুন্ডা, উর্দুভাষী লোকের বসবাস লক্ষণীয় ৷ প্রধান উৎসবগুলি হলো - দুর্গাপূজা, কালীপূজা, সোহরাই , মকর সংক্রান্তি, টুসু উৎসব ইত্যাদি ৷

দর্শনীয় স্থানসম্পাদনা

অন্যতম দর্শনীয় স্থানটি হলো চিত্রেশ্বর মন্দির যা বাহারাগোরা থেকে ১২ কিমি দূরে অবস্থিত ৷ ঘাটশিলা শহরটি মনোরম দৃশ্য ও আবহাওয়ার জন্য বিখ্যাত ৷ ঘাটশিলাতে অবস্থিত বাঙালী ঔপন্যাসিক বিভূতিভূষণ বন্দোপাধ্যায় এর বাসস্থান ৷ উপজাতিগোষ্ঠী ও অন্যান্যদের দ্বারা বহুল পূজিতা দেবী রঙ্কিনী কালী মন্দিরটি ঘাটশিলার নিকট জাদুগোড়াতে অবস্থিত ৷

ধর্মসম্পাদনা

২০১১ অনুযায়ী ভিন্ন ধর্মাবলম্বী মানুষ

  হিন্দু (৬৭.৫৮%)
  ইসলাম (৮.৮৯%)
  সরনা (১৯.৯৭%)
  শিখ (১.৬৮%)
  খ্রীষ্টান (১.৩২%)
  অন্যান্য (০.৫৬%)

ভাষাসম্পাদনা

পূর্ব সিংভূম জেলাতে প্রচলিত ভাষাসমূহের পাইচিত্র নিম্নরূপ

২০১১ অনুযায়ী বিভিন্ন ভাষাসমূহ

  বাংলা (৩৪.৪২%)
  হিন্দী (২৪.৬২%)
  সাঁওতালি (১৫.৯২%)
  উর্দু (৭.২৮%)
  ওড়িয়া (৫.২৭%)
  হো ভাষা (২.৭৬%)
  পাঞ্জাবি (১.৮৬%)
  মৈথিলী (১.৩১%)
  অন্যান্য (৩.৭৬%)

তথ্যসূত্রসম্পাদনা