পাঞ্জু শাহ ফকির (১৮৫১- ১৯১৪)[১] বাঙালি মরমি কবি যাকে শ্রেষ্ঠত্বের বিচারে মরমিকবি লালন ফকিরের পরেই বিবেচনা করা হয়।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] তবে লালন ফকির পাঞ্জুশাহের গুরু নন, তবে যুবক পাঞ্জুশাহ বৃদ্ধ লালন ফকিরের সাথে পাল্লায় গান গেয়েছেন। পাঞ্জু শাহ ১৮৫১ (বাংলা ১২৫৮) শালে শৈলকূপা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম খাদেম আলী খন্দকার। খাদেম আলী খন্দকার জমিদারি হারিয়ে পরে পুত্র পাঞ্জু ও ওছিমউদ্দীনকে নিয়ে বর্তমান হরিণাকুণ্ড থানার হরিশপুর গ্রামে বাস করতেন।হরিশপুরে জন্মগ্রহণকারী লালন ফকিরসহ অন্যান্য সাধকের রচিত ভাবগান পাঞ্জুশাহকে গভীরভাবে আকৃষ্ট করে। জীবনের শেষ দিকে পাঞ্জু শাহ খেরকা গ্রহণ করে ফকিরি জীবনযাপন শুরু করলেও, তিনি সংসারত্যাগী ফকির ছিলেন না। পাঞ্জু শাহ ৬৩ বছর বয়সে বাংলা ১৩২১ সনে ২৮শে শ্রাবণ মৃত্যুবরণ করেন।

শিক্ষাসম্পাদনা

পাঞ্জু শাহ বাল্যকাল থেকে আরবি, ফার্সি ও উর্দু ভাষা চর্চার পর নিজের চেষ্টায় বাংলা ভাষা আয়ত্ত্ব করেন। পাঞ্জুশাহ সাধক হিরাজতুল্লাহ খন্দকারের কাছে সুফি ধর্মে দীক্ষিত হন। তিনি সুফি তত্ত্বের অনুসারী বহু ভাব সংগীতের রচয়িতা। ২০০-এর বেশি গান তিনি রচনা করেছেন।[২]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Shah, Panju - Banglapedia"en.banglapedia.org। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৯-২৯ 
  2. সুবোধ সেনগুপ্ত ও অঞ্জলি বসু সম্পাদিত, সংসদ বাঙালি চরিতাভিধান, প্রথম খণ্ড, সাহিত্য সংসদ, কলকাতা, নভেম্বর ২০১৩, পৃষ্ঠা ৩৯০, আইএসবিএন ৯৭৮-৮১-৭৯৫৫-১৩৫-৬