নির্মলচন্দ্র চন্দ্র

নির্মলচন্দ্র চন্দ্র ( ১০ অক্টোবর, ১৮৮৮ - ১ মার্চ, ১৯৫৩) ছিলেন খ্যাতনামা বাঙালি, জাতীয়তাবাদী রাজনীতিবিদ, আইনজীবী ও সমাজসেবী। তিনি বিখ্যাত দেশসেবক গণেশচন্দ্র চন্দ্রের পৌত্র।

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

নির্মলচন্দ্র কলকাতায় জন্মগ্রহণ করেন, তার পিতার নাম ছিল রাজচন্দ্র চন্দ্র। চন্দ্র পরিবার অষ্টাদশ শতাব্দীর শেষ ভাগে নদীয়া থেকে কলকাতায় আসে। পিতামহ গণেশচন্দ্র ছিলেন আইনজীবী, কলিকাতা মিউনিসিপ্যালিটির কমিশনার ও রাজনীতিবিদ।[১] নির্মলচন্দ্র এম এ এবং ও বি এল পাশ করার পর কলকাতা হাইকোর্টে ওকালতি করতেন। এরপর পিতার আইনজীবী ফার্ম জিসি চন্দ্র এন্ড কোং এ যোগদান করেন।

কর্মকাণ্ডসম্পাদনা

দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জন দাশের সহকারী হিসেবে রাজনীতিতে আসেন নির্মলচন্দ্র। চিত্তরঞ্জন দাশের সৃষ্ট ‘পঞ্চপ্রধানের অন্যতম তিনি স্বরাজ্য দলের নেতৃত্বে ছিলেন। দেশহিতৈষী কাজে প্রভূত অর্থদান করেন। ডাককর্মী, ট্রাম শ্রমিক ও চা বাগান শ্রমিকদের সঙ্গঠনের সাথে যুক্ত ছিলেন তিনি। ফরোয়ার্ড ব্লক, বৈতালিক, রূপ ও রঙ্গ পত্রিকার সাথে তার যোগাযোগ ছিল। ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস নেতা হিসেবে নির্মল চন্দ্র সুনাম অর্জন করেছিলেন তিনি। কলকাতা পৌরসংস্থার মহানাগরিক ছিলেন। কলকাতা শহরে তার ও তার পিতামহের নামে রাস্তা রয়েছে।

অলংকৃত পদসম্পাদনা

  • কলকাতার পৌর প্রতিনিধি (১৯১৫)
  • বঙ্গীয় প্রাদেশিক কংগ্রেস কমিটির সভাপতি
  • কেন্দ্রীয় আইনসভার সদস্য (১৯২৬ - ৩০)
  • কলকাতার মহানাগরিক (১৯৫২)[২]
  • এটর্নি সোসাইটির সভাপতি (১৯২৩ -২৬)

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "দেশবন্ধু ও নেতাজির স্মৃতি বিজড়িত ওয়েলিংটন স্কোয়ারের চন্দ্র পরিবারের পুজো"। সংগ্রহের তারিখ ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  2. "কলকাতার মহানাগরিকগণ"। কলকাতা পৌরসংস্থা। সংগ্রহের তারিখ ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮