নিকোলাই কোল্টজফ

নিকোলাই কনস্টান্টিনোভিচ কলটসভ[১] (রাশিয়ান: Николай Константинович Кольцов; ১৪ জুলাই ১৮৭২ - ২ ডিসেম্বর ১৯৪০) একজন রাশিয়ান জীববিজ্ঞানী এবং আধুনিক বংশাণুবিজ্ঞানের পথিকৃৎ ছিলেন। তাঁর ছাত্রদের মধ্যে ছিলেন নিকোলাই টিমোফিভ-রেসোভস্কি, ভ্লাদিমির পাভলোভিচ এফ্রোমসন, আলেকজান্ডার প্রম্পটভ, আলেকজান্ডার সার্জিভিচ সেরিব্রভস্কি এবং নিকোলাই ডাবিনিন। তাঁর ছাত্রদের সাথে তিনি জিনের সূক্ষ্ম গঠন প্রদর্শন করেন এবং কোষের গঠন পরীক্ষা করেন এবং কোষকঙ্কাল ধারণার সূচনা করেন। মার্ক্সবাদী মতাদর্শে জড়াইয়া পড়া এবং বংশাণুবিজ্ঞান এমন একটি বিজ্ঞান যা বর্ণবাদ, ফ্যাসিবাদ এবং সুপ্রজননবিদ্যা সমর্থন করার কারণে স্ট্যালিনবাদী রাশিয়ায় তাঁর কর্মজীবন সংক্ষিপ্ত হয়ে যায়। তিনি সরকারের নিপীড়নের কারণে অপ্রত্যাশিতভাবে মারা যান, সম্ভবত তার মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়েছিল।

নিকোলাই কনস্টান্টিনোভিচ কোল্টজফ
Кольцов, Николай Константинович.jpg
জন্ম(১৮৭২-০৭-১৪)১৪ জুলাই ১৮৭২
মস্কো
মৃত্যু২ ডিসেম্বর ১৯৪০(1940-12-02) (বয়স ৬৮)
লেনিনগ্রাদ
জাতীয়তারাশিয়ান / সোভিয়েত
কর্মক্ষেত্রবংশাণুবিজ্ঞান
আণবিক জীববিদ্যা
প্রাক্তন ছাত্রমস্কো বিশ্ববিদ্যালয়
উল্লেখযোগ্য ছাত্রবৃন্দনিকোলাই টিমোফিভ-রেসোভস্কি
ভ্লাদিমির পাভলোভিচ এফ্রোমসন
আলেকজান্ডার প্রম্পটভ
আলেকজান্ডার সার্জিভিচ সেরিব্রভস্কি

জীবনীসম্পাদনা

কোল্টজফ একটি সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন এবং ১৮৯৪ সালে মস্কো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন এবং সেখানে অধ্যাপক ছিলেন (১৮৯৫–১৯১১)। তিনি অক্টোবর বিপ্লবের ঠিক আগে ১৯১৭ সালের মাঝামাঝিতে ইনস্টিটিউট অব এক্সপেরিমেন্টাল বায়োলজি প্রতিষ্ঠা ও পরিচালনা করেন। তিনি কৃষি একাডেমির (ভাস্খনিল) সদস্য ছিলেন। তিনি জার শাসনের বিরুদ্ধে ছিলেন কিন্তু বিপ্লবের পরে তিনি নতুন নিয়মের বেশ কয়েকটি নীতির বিরোধিতা করেন। ১৯২০ সালে কোল্টজফ ভিচেকার উদ্ভাবিত অস্তিত্বহীন "সোভিয়েতবিরোধী কৌশল কেন্দ্র" এর সদস্য হিসাবে গ্রেপ্তার হন। প্রসিকিউটর নিকোলাই ক্রিলেঙ্কো কোল্টজফের মৃত্যুদণ্ডের দাবি করে (গ্রেপ্তার হওয়া প্রায় ১০০০ জনের মধ্যে ৬৭ জনকে মৃত্যুদন্ড দেওয়া হয়েছিল)।[২] তবে ম্যাক্সিম গোর্কি ভ্লাদিমির লেনিনের কাছে ব্যক্তিগতভাবে আপিল করলে কোল্টজফকে মুক্তি দেওয়া হয় এবং কোল্টজফ ইনস্টিটিউট অফ এক্সপেরিমেন্টাল বায়োলজির প্রধান হিসাবে তার পদে পুনরধিষ্ঠিত করা হয়।[৩]

 
শিক্ষার্থীদের সাথে কোল্টজফ (মাঝখানে বসা), আনু. ১৯১৩

সোভিয়েত ইউনিয়নের রাজনীতি জিন, কণা সম্পর্কে ধারণা তৈরি করেছিল যে জিনগুলি জীবনের পরিণতি ব্যক্তিস্বাধীনতার ধারণার বিরোধী হিসাবে মনে করতো। মার্কসবাদী মতাদর্শিকরাও বংশাণুবিজ্ঞানবিদদেরকে সুপ্রজননবিদ, বর্ণবাদী এবং ফ্যাসিস্টদের সাথে দলভুক্ত করেছিল এবং ট্রোফিম লিসেনকো প্রচারিত লামার্কিজম থেকে ধারণা গ্রহণ করে। ১৯৩৭ এবং ১৯৩৯ সালে লিসেনকো সমর্থকরা নিকোলাই কোল্টজফ এবং নিকোলাই ভাভিলভের বিরুদ্ধে একাধিক প্রচারমূলক নিবন্ধ প্রকাশ করে। তারা লিখেছে: "ইনস্টিটিউট অব জেনেটিক্স অব দ্য একাডেমি অব সায়েন্সের কেবলমাত্র অধ্যাপক কোল্টজফের ফ্যাসিস্টিক বাজে মন্তব্যকেই সমালোচনা করেনি, এমনকি ফ্যাসিবাদীদের বর্ণবাদী তত্ত্বকে সমর্থনকারী তাঁর "তত্ত্ব" থেকে নিজেকে বিচ্ছিন্নও করেননি"।[২] ১৯৪০ সালে স্ট্রোকের কারণে তাঁর মৃত্যু হয়েছিল বলে দাবি করা হয়। তবে "প্রাণরসায়নবিদ ইলিয়া জবারস্কি প্রকাশ করেন যে কোল্টজফের অপ্রত্যাশিত মৃত্যু এনকেভিডি কর্তৃক বিষপ্রয়োগের ফলে হয়েছিল", এনকেভিডি হলো সোভিয়েত ইউনিয়নের গোপন পুলিশ বাহিনী।[৪] একই দিন তার স্ত্রী বিজ্ঞানী মারিয়া সাদভ্নিকোভা কোল্টজফা আত্মহত্যা করেন।[২][৫]

গবেষণাসম্পাদনা

নিকোলাই কোল্টজফ কোষবিদ্যা এবং মেরুদণ্ডী প্রাণীর শারীরস্থান নিয়ে কাজ করেছেন। ১৯০৩ সালে কোল্টজফ প্রস্তাব করেন যে কোষের আকৃতি টিউবুলের একটি নেটওয়ার্ক দ্বারা একটি কঙ্কাল তৈরির মাধ্যমে নির্ধারিত হয়েছে[৬] যা পরবর্তীতে কোষকঙ্কাল হিসাবে আখ্যায়িত হয়। তিনি কোষ গঠনের মূল প্রক্রিয়া হিসাবে সাইটোপ্লাজমে জেল-সোল ট্রানজিশনের ভূমিকা দেখেছিলেন।[৭] ১৯২৭ সালে কোল্টজফ প্রস্তাব করেছিলেন যে উত্তরাধিকারসূত্রে প্রাপ্ত বৈশিষ্ট্যগুলি "দৈত্য বংশগত অণু" এর মাধ্যমে উত্তরাধিকার সূত্রে প্রাপ্ত হবে যা "দুটি আয়না স্ট্র্যান্ড গঠিত যা প্রতিটি স্ট্র্যান্ডকে টেম্পলেট হিসাবে ব্যবহার করে একটি আধা-রক্ষণশীল ধরনের প্রতিলিপি তৈরি করবে"।[৩] কোল্টজফ ভার্চোর ধারণা সকল কোষ অন্য কোষ থেকে এসেছে এর উপর ভিত্তি করে সকল অণু পূর্বের অণু (প্রতিটি অণু অন্য একটি অণু থেকে আসে) অভিব্যক্তিটি ব্যবহার করেন। ১৯৫৩ সালে জেমস ডি. ওয়াটসন এবং ফ্রান্সিস ক্রিক যখন ডিএনএর গঠনের বর্ণনা দেন তখন এই ধারণাগুলি নির্ভুল হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যায়। ওয়াটসন এবং ক্রিক স্পষ্টতই কোল্টজফের কথা শোনেনি। মার্কিন বংশাণুবিজ্ঞানবিদ রিচার্ড গোল্ডশ্মিড্ট তাঁর সম্পর্কে লিখেছেন: "সেখানে ছিলেন উজ্জ্বল নিকোলাই কোল্টজফ, সম্ভবত শেষ প্রজন্মের সেরা রাশিয়ান প্রাণিবিজ্ঞানবিদ, আকর্ষণীয়, অবিশ্বাস্যরকম মার্জিত, স্বচ্ছ-চিন্তাবিদ, যারা তাকে চিনতেন প্রত্যেকেই তার প্রশংসা করেছেন"।[৩] তিনি অন্তঃকোষীয় গতিবিধিতে বৈদ্যুতিক শক্তি জড়িত থাকার কথা বলেছেন। তিনি এটিকে ক্যাটাফোরেসিস হিসাবে অভিহিত করেছেন।[৮]

আরও তথ্যসম্পাদনা

নোভোসিবির্স্ক অঞ্চলের একটি ছোট্ট পৌরসভা যেটি ২০০৩ সালে রাশিয়ান ফেডারেশনের বিজ্ঞান নগরীর মর্যাদা লাভ করে, নিকোলাই কোল্টজফের নামানুসারে সেটির নামকরণ করা হয়েছে কোল্টজফো[৯][১০]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. He used the spelling Koltzoff in his publications.
  2. Vadim J. Birstein. The Perversion Of Knowledge: The True Story of Soviet Science. Westview Press (2004) আইএসবিএন ০-৮১৩৩-৪২৮০-৫
  3. Valery N. Soyfer. The consequences of political dictatorship for Russian science. Nature Reviews Genetics 2: 723–729 (2001)
  4. Soyfer, Valery N. (২০০১)। "The consequences of political dictatorship for Russian science"Nature Reviews Genetics (ইংরেজি ভাষায়)। 2 (9): 723–729। আইএসএসএন 1471-0056ডিওআই:10.1038/35088598 
  5. Boronix, D. N. (১৯৪১)। "Dr. Nikolai K. Koltzoff"Journal of Heredity (ইংরেজি ভাষায়)। 32 (10): 347–350। আইএসএসএন 1465-7333ডিওআই:10.1093/oxfordjournals.jhered.a104961 
  6. Koltzoff, Nic. (১৯২৪)। "Experimental biology and the work of the Moscow Institute"Science (ইংরেজি ভাষায়)। 59 (1536): 497–502। আইএসএসএন 0036-8075ডিওআই:10.1126/science.59.1536.497 
  7. Morange, Michel (২০১১)। "The attempt of Nikolai Koltzoff (Koltsov) to link genetics, embryology and physical chemistry"Journal of Biosciences (ইংরেজি ভাষায়)। 36 (2): 211–214। আইএসএসএন 0250-5991ডিওআই:10.1007/s12038-011-9075-4 
  8. Koltzoff, N. K.; Schröder, V. N. (১৯৩৩)। "Artificial Control of Sex in the Progeny of Mammals"Nature (ইংরেজি ভাষায়)। 131 (3305): 329–329। আইএসএসএন 0028-0836ডিওআই:10.1038/131329a0 
  9. Koltsovo, Novosibirsk Oblast
  10. http://kolcovo.ru/Naukograd/