আণবিক জীববিজ্ঞান

(আণবিক জীববিদ্যা থেকে পুনর্নির্দেশিত)

আণবিক জীববিদ্যা হলো জীববিজ্ঞানের একটি শাখা যা আণবিক সংশ্লেষণ, পরিবর্তন, প্রক্রিয়া ও মিথস্ক্রিয়া সহ কোষের মধ্যেকার জৈবিক কার্যকলাপের আণবিক ভিত্তি বোঝার চেষ্টা করে। বিজ্ঞানের এই শাখায় কোষের বিভিন্ন অঙ্গাণু জীবজ অণুর সাথে জৈবিক সম্পর্ককের বিষয়ে আলোচনা করা হয়, যার মধ্যে ডিএনএ, আরএনএপ্রোটিনের পারস্পরিক সম্পর্ক এবং তাদের জৈব বিশ্লেষণ এবং পারস্পরিক ক্রিয়া প্রতিক্রিয়াকেও বোঝানো হয়।[১]

জৈব রসায়ন, জেনেটিক্স এবং আণবিক জীববিজ্ঞান

অন্যান্য জীববিঞ্জানের সাথে সম্পর্কসম্পাদনা

 
জৈব রসায়ন, বংশগতি ও আণবিক জীববিদ্যার মধ্যে সম্পক

আণবিক জীববিজ্ঞানের গবেষণাতে নির্দিষ্ট কিছু পন্থা ব্যবহৃত হয় এবং একাজে জৈব রসায়ন ও বংশগতি থেকেও বিভিন্ন উপায় ও পন্থা অণুসরণ করা হয়। এই শৃঙ্খলার মাঝে কোনো বিশেষ পথ বর্তমান নেই। ডান পাশের চিত্রে একটি সম্ভাব্য পারস্পরিক সম্পক দেখানো হয়েছে।

  • জৈব রসায়ন হল জীবের মধ্যে জৈব যৌগ  ও প্রয়োজনীয় ক্রিয়া জনিত বিদ্যা। জৈব রসায়ন প্রচন্ড ভাবে নির্ভরশীল আণবিক জীববিজ্ঞানএর ভূমিকা, কাজ ও গঠনের উপর।জৈব প্রক্রিয়ার পিছনে রসায়নের বিদ্যা ও জীবজ অণুর বিশ্লেষণ জৈব রসায়নএর উদাহরণ।
  • বংশগতি হল জীবের মধ্যে জিনগত প্রভেদের গবেষণা। একটি স্বাভাবিক উপাদানের (উদাঃ একটি জিন) অনুপস্থিতি দ্বারা অনুমান করা যায়।" মিউট্যান্ট" অধ্যয়ন হল জীব যা তথাকথিত "বন্য টাইপ" বা স্বাভাবিক ফেনোটাইপ থেকে এক বা একাধিক কার্মিক উপাদানের অভাব। জেনেটিক কথাবার্তাও (epistasis) প্রায়ই এই ধরনের 'নক-আউট' গবেষণার সহজ ব্যাখ্যা ব্যাখ্যা করে।
  • আণবিক জীববিদ্যা হল রেপ্লিকেশন, ট্রান্সক্রিপশন, ট্রান্সলেশন, এবং কোষের কার্যক্রম প্রক্রিয়া আণবিক ভিত্তির গবেষণা।আণবিক জীববিজ্ঞানে central dogma যেখানে জিনগত উপাদান আরএনএ তে ও আরএনএ প্রোটিনে রূপান্তরিত হয়, সহজ চিত্রের মাধ্যমে আণবিক জীববিজ্ঞানের কেন্দ্রীয় মতবাদ বোঝা যায়।এই ছবিটি RNAএর ভূমিকা উঠতি আলোকে সংস্করণ চলছে। আণবিক জীববিজ্ঞান হল পরিমাণগত, এবং সম্প্রতি অনেক কাজ বায়োইনফরম্যাটিক্স কম্পিউটার বিজ্ঞান ও কম্পিউটেশনাল বায়োলজি সঙ্গে তার ইন্টারফেস এ কাজ করা হয়েছে। ২০০০ সালের প্রথম দিকে জিন কাঠামো এবং ফাংশন, আণবিক জেনেটিক্স, অধ্যয়নে আণবিক জীববিজ্ঞানের সবচেয়ে বিশিষ্ট উপ-ক্ষেত্রের মধ্যে হয়েছে। ক্রমবর্ধমানভাবে অনেক অন্যান্য যেমন সেল বায়োলজি এবং ডেভেলপমেন্টাল বায়োলজি, প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে, যেখানে আণবিক কৌশল জনগোষ্ঠী বা প্রজাতির ঐতিহাসিক বৈশিষ্ট্য অনুমান করা, যেমন ক্ষেত্রের মধ্যে বিবর্তনীয় জীববিজ্ঞানে ব্যবহৃত হিসাবে অণুর উপর জীববিদ্যা ফোকাস এলাকা, সরাসরি তাদের নিজস্ব ডানদিকে কথাবার্তাও অধ্যয়নরত জনসংখ্যা জেনেটিক্স এবং ফাইলোজেনেটিক্স হিসাবে।এছাড়া জৈব অণুর সঙ্গে বিপাকের "স্থল থেকে উপরে" প্রাণপদার্থবিদ্যা অধ্যয়নরত একটি দীর্ঘ ঐতিহ্য।

আণবিক জীববিদ্যার কেন্দ্রীয় নীতিসম্পাদনা

আণবিক জীববিজ্ঞানের কেন্দ্রীয় প্রামাণিকতা একটি জৈবিক সিস্টেমের মধ্যে জিনগত তথ্যের প্রবাহের ব্যাখ্যা। এটি প্রায়শই এভাবে বলা হয় যে "ডিএনএ আরএনএ তৈরি করে, এবং আরএনএ প্রোটিন তৈরি করে".

কেন্দ্রীয় তত্ব অনুসারে সম্ভাব্য তথ্য চলাচল এর টেবিল।
সাধারণ বিশেষ অজানা
DNA → DNA
(ডিএনএ প্রতিলিপি)
RNA → DNA
(বিপরীত প্রতিলিপি)
protein → DNA
DNA → RNA
(ট্রান্সক্রিপশন)
RNA → RNA
(আরএনএ প্রতিরূপ)
protein → RNA
RNA → protein
(অনুবাদন)
DNA → protein protein → protein
 
DNA অ্যানিমেশন

আণবিক জীববিজ্ঞানের প্রযুক্তিসম্পাদনা

আণবিক ক্লোনিংসম্পাদনা

 
ট্রান্সডাকশন ইমেজ
DNA microarray ছাপা হছে

আণবিক ক্লোনিং হল আণবিক জীববিজ্ঞানের প্রোটিন ফাংশন অধ্যয়নএর সবচেয়ে মৌলিক কৌশল।এই প্রক্রিয়ায় PCR ও restriction enzyme ব্যবহার করে plasmid ( expression vector)এ পছন্দময় proteinএ ডিএনএ কোডিং কে ক্লোন তৈরি করা হয়।একটি vectorএর ৩টি বৈশিষ্ট আছেঃ রেপ্লিকেশন এর স্থান, একটি মাল্টিপল ক্লোনিং সাইট (এমসিএস), এবং একটি নির্বাচনী মার্কার সাধারণত অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধী।[২][৩]

ইতিহাসসম্পাদনা

১৯৩০-এর দশকে আণবিক জীববিদ্যার আবির্ভাব ঘটে, যা জৈব রসায়ন, জিনতত্ত্ব এবং জৈবপদার্থবিদ্যা সম্পর্কিত ক্ষেত্রগুলির মধ্যে বিকশিত হয়; আজ এটি সেই ক্ষেত্রগুলির সাথে ঘনিষ্ঠভাবে জড়িত। যদিও আণবিক জীববিদ্যা ১৯৩০ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়, কিন্তু "মলিকিউলার বায়োলজি" বা "আণবিক জীববিদ্যা" শব্দটি ১৯৩৮ সাল পর্যন্ত অপরিচিত ছিল এবং এই শব্দটি বিজ্ঞানী ওয়ারেন ওয়েভার প্রথম ব্যবহার করেন, যিনি রকফেলার ফাউন্ডেশনে প্রাকৃতিক বিজ্ঞানের পরিচালক হিসাবে কাজ করছিলেন। তিনি বিশ্বাস করতেন যে, জীববিদ্যা সম্পর্কে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে সাম্প্রতিক অগ্রগতি দেওয়ায় ছিল এক্স-রে ক্রিস্টালোগ্রাফি।[৪][৫]

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Gannon, Frank (১৫ ফেব্রুয়ারি ২০০২)। "Molecular biology—what's in a name?"EMBO Reports (২): ১০১। আইএসএসএন 1469-221Xডিওআই:10.1093/embo-reports/kvf039পিএমআইডি 11839687পিএমসি 1083977  
  2. Alberts, Bruce; Johnson, Alexander; Lewis, Julian; Raff, Martin; Roberts, Keith; Walter, Peter। Isolating, Cloning, and Sequencing DNA (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৬ 
  3. Lessard, Juliane C. (১ জানুয়ারি ২০১৩)। "Molecular cloning"Methods in Enzymology529: 85–98। আইএসএসএন 1557-7988ডিওআই:10.1016/B978-0-12-418687-3.00007-0। সংগ্রহের তারিখ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৬ 
  4. Wolfenstein, S. (৬ নভেম্বর ১৯৭০)। "France: Reducing the Ratio"Science (ইংরেজি ভাষায়)। ১৭০ (৩৯৫৮): ৫৮১। আইএসএসএন 0036-8075ডিওআই:10.1126/science.170.3958.581-a 
  5. Bynum, William (১ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৯)। "A History of Molecular Biology"Nature Medicine (ইংরেজি ভাষায়)। (২): ১৪০। আইএসএসএন 1546-170Xডিওআই:10.1038/5498 

আরও পড়ুনসম্পাদনা

বহিসংযোগসম্পাদনা