নাতিশীতোষ্ণ জলবায়ু

নাতিশীতোষ্ণ জলবায়ু হলো ক্রান্তীয় বলয় হতে শুরু করে পৃথিবীর মেরু অঞ্চলসমূহের মধ্যবর্তী এলাকার সমভাবাপন্ন জলবায়ু। এটি মধ্য অক্ষাংশ এলাকায় (৪০ হতে ৬০ ডিগ্রি অক্ষাংশের মধ্যে) দৃষ্ট হয়।[১] এখানে শীত - গ্রীষ্মের উষ্ণতার পার্থক্য খুব কম থাকে। বিভিন্ন জলবায়ু বিভাগ অনুসারে এর শীতলতম মাসের জলবায়ুর আর্দ্রতা, বৃষ্টিপাত, উষ্ণতা - প্রভৃতির ওপর নির্ভর করে নাতিশীতোষ্ণ জলবায়ুকে অনেকগুলো ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ভাগে বিভক্ত করা গেলেও এর মূল বিভাগ মূলতঃ দুটি - উষ্ণ নাতিশীতোষ্ণ মণ্ডল ও শীতল নাতিশীতোষ্ণ মণ্ডল।

কোপেনের জলবায়ু বিভাগ অনুসারে বিশ্বব্যাপী নাতিশীতোষ্ণ জলবায়ু অঞ্চলের বিস্তরণ।

কোপেনের জলবায়ু শ্রেণিবিন্যাস কোনো জলবায়ুকে "নাতিশীতোষ্ণ" হিসাবে সংজ্ঞায়িত করার শর্ত হচ্ছে, শীতলতম মাসে এর গড় তাপমাত্রা −৩° সেন্টিগ্রেডের (২৬.৬° ফারেনহাইট)-এর উপরে কিন্তু ১৮° সেন্টিগ্রেডের (৬৪.৪° ফারেনহাইট)-এর নিচে থাকবে। তবে, অন্যান্য জলবায়ুর শ্রেণিবিন্যাস অনুসারে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ০° সেন্টিগ্রেডের (৩২.০° ফারেনহাইট) ধরা হয়।[২][৩]

শ্রেণিবিন্যাসসম্পাদনা

উত্তর নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চলটি কর্কটক্রান্তি (আনুমানিক ২৩.৫° উত্তর অক্ষাংশ) থেকে সুমেরু বৃত্ত (প্রায় ৬৬.৫° উত্তর অক্ষাংশ) পর্যন্ত বিস্তৃত। অপরদিকে, দক্ষিণ নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চলটি মকরক্রান্তি (আনুমানিক ২৩.৫° দক্ষিণ অক্ষাংশ) থেকে কুমেরু বৃত্ত (প্রায় ৬৬.৫° দক্ষিণ অক্ষাংশ) পর্যন্ত বিস্তৃত।[৪][৫] কিছু কিছু জলবায়ুর শ্রেণিবিন্যাসে, নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চলকে প্রায়শই মাসিক তাপমাত্রা, শীতলতম মাস এবং বৃষ্টিপাতের উপর ভিত্তি করে আরও বেশ কয়েকটি ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র জলবায়ু অঞ্চলে বিভক্ত করা হয়; এর মধ্যে রয়েছে আর্দ্র উপ-ক্রান্তীয় জলবায়ু, ভূমধ্যসাগরীয় জলবায়ু, মহাসাগরীয় এবং মহাদেশীয় জলবায়ু

মানবিক বিষয়াবলীসম্পাদনা

জনমিতিসম্পাদনা

নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চল পৃথিবীর বৃহৎ জনগোষ্ঠী বসবাস করে, বিশেষ করে উত্তর গোলার্ধে ভূমির বৃহৎ পরিমাণের কারণে।[৬]

কৃষিসম্পাদনা

মৃদু শীতলকাল ও গ্রীষ্মের উষ্ণতা এবং পর্যাপ্ত বৃষ্টিপাতের জন্য এখানে প্রচুর কৃষিকাজ হয়ে থাকে।

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Weather & Climate Change: Climates around the world"Education Scotland। ১৪ এপ্রিল ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  2. "Latitude & Climate Zones"The Environmental Literacy Council। ৩০ জুন ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ আগস্ট ২০২১ 
  3. "Patterns of Climate"Weather-climate.org.uk। সংগ্রহের তারিখ ৫ আগস্ট ২০২১ 
  4. McColltoll, R. W. (২০০৫)। Encyclopedia of World Geography, Volume 1। Facts on File Library of World Geography। New York: Facts on File। পৃষ্ঠা ৯১৯। আইএসবিএন 0-816-05786-9 
  5. "Solar Illumination: Seasonal and Diurnal Patterns"Encyclopedia.com। সংগ্রহের তারিখ ৫ আগস্ট ২০২১ 
  6. Cohen, Joel E.; Small, Christopher (২৪ নভেম্বর ১৯৯৮)। "Hypsographic demography: The distribution of human population by altitude"Proceedings of the National Academy of Sciences of the United States of America95 (24): 14009–14014। ডিওআই:10.1073/pnas.95.24.14009পিএমআইডি 9826643পিএমসি 24316 বিবকোড:1998PNAS...9514009C 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা