ধন্যি মেয়ে

বাংলা চলচ্চিত্র

ধন্যি মেয়ে একটি বাংলা হাস্যরসাত্মক রোমান্টিক চলচ্চিত্র। এই ছবিটি অরবিন্দ মুখোপাধ্যায়ের পরিচালনায় ১৯৭১ সালে মুক্তি পায়। এই ছবির সুরকার ছিলেন নচিকেতা ঘোষ[১] এই সিনেমার চিত্রগ্রহণ হয় হাওড়া জেলাজগৎবল্লভপুরে[২]

ধন্যি মেয়ে
পরিচালকঅরবিন্দ মুখোপাধ্যায়
চিত্রনাট্যকারঅরবিন্দ মুখোপাধ্যায়
কাহিনিকারদেবাংশু মুখোপাধ্যায়
শ্রেষ্ঠাংশে
সুরকারনচিকেতা ঘোষ
চিত্রগ্রাহকবিজয় ঘোষ
সম্পাদকঅময় মুখার্জী
মুক্তি১৯৭১
দৈর্ঘ্য১৩৭ মিনিট
দেশভারত
ভাষাবাংলা

কাহিনীসম্পাদনা

কলকাতার স্বচ্ছল ব্যবসায়ী কালিগতি দত্ত একজন ফুটবল পাগল মানুষ। তার নিজের ক্লাব সর্বমঙ্গলা স্পোর্টিং ক্লাবের প্রধান খেলোয়ার তার ভাই বগলা ও শ্যালক ঘণ্টেশ্বর। নিঃসন্তান কালীগতি ও তার স্ত্রী বগলাকে পুত্রস্নহে মানুষ করেন। তার দল হাড়ভাঙ্গা গ্রামে শিল্ড ফাইন্যাল খেলতে যায়। ম্যাচ জিতলেও গ্রামের জিমিদার ও হাড়ভাঙা ক্লাবের সভাপতি গোবর্ধন চৌধুরী তার ভাগ্নি মনসার সাথে জোর করে বগলার বিয়ে দিয়ে দেয়। মনসা অনাথ, অবিহেলায় মামার বাড়িয়ে মানুষ কিন্তু বগলার বাড়ির প্রিয়পাত্রী হয়ে ওঠে যদিও কালীগতি এই বিবাহ স্বীকার করেন না। যদিও বগলা ও মনসার মধ্যে মধুর সম্পর্ক গড়ে ওঠে। মনসাকে জোর করে ফেরত পাঠিয়ে দেন কালিগতি। শিল্ড ফাইন্যালের বদলা নিতে দলবল নিয়ে তিনি আবার যান হাড়ভাঙা গ্রামে ম্যাচ জিতে আসার জন্যে।

অভিনয়সম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Nachiketa Ghosh(Bengali)"। সংগ্রহের তারিখ ১৬ অক্টোবর ২০১৭ 
  2. "ধন্যি মেয়ে'র মাঠের অস্তিত্বই সঙ্কটে"। সংগ্রহের তারিখ ১৬ অক্টোবর ২০১৭ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা