২০১৯ সালের ২ জুলাই ভারতে প্রবল বৃষ্টিপাতের ফলে মহারাষ্ট্র রাজ্যের রত্নগিরি জেলার তিওয়ার বাঁধ ভেঙে যায়। ভাঙনের ফলে নদীর তীরবর্তী গ্রামগুলিতে বন্যার সৃষ্টি হয়। এতে কমপক্ষে ১৯ জন মারা যায় এবং চারজন নিখোঁজ হয়।

বাঁধ ভাঙন সম্পাদনা

বাঁধটি ২০০০ সালের দিকে নির্মিত হয়েছিল। [১] ২০১৯ সালের ২ জুলাই রাত ৯ টা ০ মিনিটের দিকে, তিওয়ার বাঁধ ভেঙে যায়। আগের দিন থেকে অবিরাম বৃষ্টিপাতের ফলে পানি বাঁধ উপচে ভেতরে পড়ছিল। নদীর অববাহিকায় অবস্থিত কমপক্ষে সাতটি গ্রাম ভেন্দেওয়াড়ি, দাদার, আকলে, রিক্টোলি, ওভালি, কালকাভনে এবং নন্দীবাসে বসবারকারী অন্তত প্রায় ৩০০০ লোক পানিবন্দী হয়ে পড়ে। বেশ কয়েকটি ঘর ভেসে যায়। কমপক্ষে ১৯ জন মারা গিয়েছিলো এবং আরও চারজন নিখোঁজ ছিলো। [২][৩][৪]

ত্রাণ এবং উদ্ধার কাজ সম্পাদনা

জাতীয় দুর্যোগ প্রতিক্রিয়া বাহিনী এবং পুনে এবং সিন্ধুদুর্গ এলাকার ফায়ার ব্রিগেড দলগুলোকে উদ্ধার অভিযানের জন্য মোতায়েন করা হয়ে। গ্রামবাসীদেরকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেয়া হয় এবং নিখোঁজদের অনুসন্ধানের কাজ শুরু করা হয়। [২][৩]

মহারাষ্ট্র মুখ্যমন্ত্রী রাষ্ট্র দেবেন্দ্র ফ্যাদনাভিস যে ঘোষণা এর মৃতের নিকটতম আত্মীয়কে  ৪ লাখ (US$ ৪,৯০০) অনুদান দেওয়া হবে এবং পরে বিশেষ তদন্ত দলে (সিট) দ্বারা একটি তদন্তের আদেশ দেন। [৪][৫] রাজ্যের পানিসম্পদ মন্ত্রী গিরিশ মহাজন জানিয়েছিলেন যে, গ্রামবাসীরা বাঁধে ফাটলের অভিযোগ করেছিলেন এবং ২০১৮ সালের নভেম্বর মাসে জেলা প্রশাসনকে জানানো হয়েছিলো। বাঁধটি ভেঙে পড়ার পেছনে তাই কারণ ছিলো।

তথ্যসূত্র সম্পাদনা

  1. "Ratnagiri dam breach: Congress wants culpable homicide case against Shiv Sena MLA's firm which constructed Tiware water reservoir"Firstpost। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-০৮ 
  2. Agencies (২০১৯-০৭-০৩)। "Dam breach in Maharashtra's Ratnagiri district; death toll rises to six"The Hindu (ইংরেজি ভাষায়)। আইএসএসএন 0971-751X। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-০৩ 
  3. "3 killed, 23 missing after dam breach in Maharashtra's Ratnagiri district"The Economic Times। ২০১৯-০৭-০৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-০৩ 
  4. "Tiware Dam breach: 4 still missing as search operation enters fifth day"India Today। ২০১৯-০৭-০৭। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-০৮ 
  5. "Maharashtra orders SIT probe into Tiware Dam breach in Ratnagiri"India Today। ২০১৯-০৭-০৪। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-০৮