জেবাস্টিয়ান কুর্ৎস

অস্ট্রীয় রাজনীতিবিদ

জেবাস্টিয়ান কুর্ৎস ( জার্মান: [zeˈbasti̯a(ː)n ˈkʊrts] ; জন্ম ২৭ আগস্ট ১৯৮৬) একজন অস্ট্রীয় রাজনীতিবিদ। তিনি বর্তমানে অস্ট্রিয়ান পিপলস পার্টির চেয়ারম্যান এবং সংসদীয় নেতা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি দুবার অস্ট্রিয়ার চ্যান্সেলর ছিলেন, প্রথমে ২০১৭ সালের ডিসেম্বর থেকে ২০১৯ সালের মে পর্যন্ত এবং দ্বিতীয়বার ২০২০ সালের জানুয়ারি থেকে ২০২১ সালের অক্টোবর পর্যন্ত। প্রায় চার বছর ধরে, কুর্ৎস বিশ্বের সর্বকনিষ্ঠ সরকার প্রধান এবং অস্ট্রিয়ান ইতিহাসের সর্বকনিষ্ঠ চ্যান্সেলর ছিলেন। তিনি ৩১ বছর বয়সে প্রথম চ্যান্সেলর নির্বাচিত হন।

জেবাস্টিয়ান কুর্ৎস
Sebastian Kurz (2018-02-28) (cropped).jpg
২০১৮ সালে কুর্ৎস
অস্ট্রিয়ার চ্যান্সেলর
কাজের মেয়াদ
৭ জানুয়ারি ২০২০ – ১১ অক্টোবর ২০২১
রাষ্ট্রপতিআলেকজান্ডার ফান ডার বেলেন
ভাইস চ্যান্সেলরভের্নার কোগলার
পূর্বসূরীব্রিজিট বিয়ারলাইন
উত্তরসূরীআলেকজান্ডার শালেনবের্গ
কাজের মেয়াদ
১৮ ডিসেম্বর ২০১৭ – ২৮ মে ২০১৯
রাষ্ট্রপতিআলেকজান্ডার ফান ডার বেলেন
ভাইস চ্যান্সেলরহাইনৎস-ক্রিস্টিয়ান স্ট্রাকা
হার্টভিগ ল্যোগের
পূর্বসূরীক্রিস্টিয়ান কার্ন
উত্তরসূরীব্রিজিট বিয়ারলাইন
অস্ট্রীয় পিপলস পার্টির চেয়ারপারসন
দায়িত্বাধীন
অধিকৃত কার্যালয়
১৭ মে ২০১৭
সাধারণ সম্পাদককার্ল নেহামার
পূর্বসূরীরাইনহোল্ড মিটারলেনার
পররাষ্ট্রমন্ত্রী
কাজের মেয়াদ
১৬ ডিসেম্বর ২০১৩ – ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭
মুখ্যমন্ত্রী (চ্যান্সেলর)ভের্নার ফাইমান
ক্রিস্টিয়ান কার্ন
পূর্বসূরীমাইকেল স্পিন্ডেলেগার
উত্তরসূরীকারিন নেইসল
ইউরোপের নিরাপত্তা ও সমবায় সংস্থার প্রধান
কাজের মেয়াদ
১ জানুয়ারি ২০১৭ – ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭
সাধারণ সম্পাদকলামবের্টো জানিয়ার
টমাস গ্রেমিঞ্জার
পূর্বসূরীফ্রাঙ্ক-ভাল্টার স্টাইনমেইয়ার
উত্তরসূরীকারিন নেইসল
অধিষ্ঠিত অন্যান্য দপ্তর
President of the Political Academy of the People's Party
কাজের মেয়াদ
1 September 2015 – 12 March 2018
পূর্বসূরীWerner Fasslabend
উত্তরসূরীBettina Rausch
State Secretary of the Interior for Integration
কাজের মেয়াদ
21 April 2011 – 16 December 2013
মুখ্যমন্ত্রী (চ্যান্সেলর)Werner Faymann
মন্ত্রীJohanna Mikl-Leitner
Member of the State and Municipality
Diet of Vienna
কাজের মেয়াদ
2010–2011
মনোনয়নকারীChristine Marek
Affiliationঅস্ট্রীয় পিপলস পার্টি
ইয়াং পিপলস পার্টির প্রধান
কাজের মেয়াদ
২০০৯ – ২০১৭
পূর্বসূরীসিলভিয়া গ্র্যুনবের্গার
উত্তরসূরীস্টেফান শ্নোল
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1986-08-27) ২৭ আগস্ট ১৯৮৬ (বয়স ৩৫)
মাইডলিং, ভিয়েনা, অস্ট্রিয়া
রাজনৈতিক দলঅস্ট্রীয় পিপলস পার্টি (২০০৩–বর্তমান)
ঘরোয়া সঙ্গীসুজান টিয়ের
পিতামাতা
  • এলিজাবেথ ড্যোলার
  • জোসেফ কুর্ৎস
শিক্ষাজিআরজি ১২ এর্লগাস (মাটুরা)
স্বাক্ষর
ওয়েবসাইট
সামরিক পরিষেবা
আনুগত্য Austria
শাখা বুন্ডেশির
কাজের মেয়াদঅক্টোবর ২০০৪ – জুন ২০০৫
স্টেশনমারিয়া-টেরেসিয়েন-কাসার্ন

ভিয়েনার মিডলিংয়ে জন্মগ্রহণ করেন এবং বেড়ে ওঠেন। ২০০৪ সালে তিনি GRG 12 Erlgasse থেকে পাস করেন এবং এক বছর পরে বাধ্যতামূলক সামরিক দায়িত্ব পালন করেন। কুর্ৎস ভিয়েনা বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন অনুষদে ভর্তি হন কিন্তু পরে তার রাজনৈতিক কর্মজীবনে মনোনিবেশ করার জন্য বাদ পড়েছিলেন। ২০০৩ সালে ইয়ং পিপলস পার্টিতে (জেভিপি) যোগ দিয়ে তিনি রাজনীতিতে প্রবেশ করেন। পাঁচ বছর পর তিনি ভিয়েনায় জেভিপির চেয়ারম্যান হিসেবে তার প্রথম রাজনৈতিক পদ গ্রহণ করেন। ২০১০ সালে, তিনি সফলতার সাথে ভিয়েনিস স্টেট ডায়েটের জন্য প্রঅতিযোগিতা করেন। ২০১১ সালে মন্ত্রিসভায় রদবদলের ফলে, কুর্ৎসকে সামাজিক সংহতকরণের জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের রাজ্য সচিব মনোনীত এবং নিযুক্ত করা হয়। ২০১৩ সালের আইনি নির্বাচনের পর , কুর্ৎস অস্ট্রিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী হন এবং ২০১৭ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত দেশের শীর্ষ কূটনীতিক ছিলেন।

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

কুর্ৎস ১৯৮৬ সালের ২৭শে আগস্ট ভিয়েনায় এক রোমান ক্যাথলিক পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি এলিজাবেথ (জন্মনাম ড্যোলার) ও জোসেফ কুর্ৎসের একমাত্র সন্তান।[১] তার বাবা একজন প্রকৌশলী এবং তার মা একটি ব্যাকরণ স্কুলের শিক্ষক।[২] কুর্ৎসের মাতামহী মাগডালেনা ম্যুলার ১৯২৮ সালে সার্ব ক্রোটস ও স্লোভনেস রাজ্যের তেমেরিনে (বর্তমান ভোইভোদিনা, সার্বিয়া) জন্মগ্রহণ করেন, যিনি সেই শহর থেকে পালিয়ে আসা দানিউব সোয়াবিয়ান এবং দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর যুগোস্লাভ পার্টিসান এবং রেড আর্মি হাঙ্গেরি রাজ্যের দখলকৃত অঞ্চলটি মুক্ত করতে শুরু করলে জোগেলসডর্ফে (বর্তমান অস্ট্রিয়া) বসতি স্থাপন করেন।[৩][৪][৫] কুর্ৎস ভিয়েনার ১২তম জেলা মাইডলিংয়ে বেড়ে ওঠেন এবং তিনি এখনো সেখানে বসবাস করেন। তিনি ২০০৪ সালে মাতুরা সার্টিফিকেট অর্জন করেন,[৬][৭] ২০০৫ সালে বাধ্যতামূলক সামরিক সেবা সম্পন্ন করেন,[৮] এবং একই বছর ভিয়েনা বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন পড়া শুরু করেন।[৯][১০] পরবর্তীকালে তিনি বিশ্ববিদ্যালয় ছেড়ে দেন এবং তার রাজনৈতিক কর্মজীবনে মনোনিবেশ করেন।[১১][১২][১৩] কুর্ৎস বিদ্যালয়ে পড়ার সময় থেকেই অর্থনীতির শিক্ষক সুজান থিয়েরের সাথে সম্পর্ক রেখেছেন।[১৪][১৫]

অনার্সসম্পাদনা

পুরস্কার বা প্রসাধন দেশ তারিখ স্থান
</img> সার্বিয়া প্রজাতন্ত্রের আদেশ [১৬]   Serbia</img>  Serbia 4 সেপ্টেম্বর 2021 বেলগ্রেড

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Trauen Sie sich alles zu, Herr Kurz?" (জার্মান ভাষায়)। Krone। ১৭ ডিসেম্বর ২০১৩। ২০১৭-১০-১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-১০-১৭ 
  2. "So lange dauert es noch bis zu den Nationalratswahlen 2017"Kleine Zeitung (জার্মান ভাষায়)। ২৮ আগস্ট ২০১৭। ২০১৭-১০-১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-১০-১৭ 
  3. "Wie Flüchtlinge Sebastian Kurz' Kindheit prägten"Die Welt। ৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮। ২০১৮-০২-০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  4. "Sebastian Kurz hat Wurzeln am Balkan"। Heute। ২০১৮-০৩-১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৩-১৮ 
  5. Miler, Stevan (২৩ জানু ২০১৮)। "Sebastian Kurz' Großmutter stammt aus einem Städtchen in der Vojvodina [Sebastian Kurz's grandmother is from a town in Vojvodina]"Kosmo (জার্মান ভাষায়)। Twist Zeitschriften Verlag GmbH। ২০১৮-০২-২৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০১৮ 
  6. "Was die Österreicher jetzt über Kurz wissen wollen"kurier.at (জার্মান ভাষায়)। ১৫ মে ২০১৭। ২০১৮-১২-৩০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১২-০৭ 
  7. Schumacher, Elizabeth (১৭ জানুয়ারি ২০১৮)। "Make Austria Great Again — the rapid rise of Sebastian Kurz"। DW। ২০১৯-০১-১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ জানুয়ারি ২০১৯ 
  8. "SEBASTIAN KURZ"oeaab.com (জার্মান ভাষায়)। ২০১৮-১২-৩০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১২-০৭ 
  9. "Curriculum Vitae"The Federal Minister for Europe, Integration and Foreign Affairs। Federal Ministry for Europe, Integration and Foreign Affairs, Republic of Austria। সংগ্রহের তারিখ ৫ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  10. "Wer ist wer (who is who)"Sebastian Kurz (জার্মান ভাষায়)। Parliament, Republic of Austria। ২০১৭-১০-১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  11. "Der Außenminister, der sich mit der Türkei anlegt"Stern। ১৬ আগস্ট ২০১৬। ২০১৮-০৭-০৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ জুন ২০১৮ 
  12. Tobias Rapp (২০১৭-০৫-২৬)। "Ein Mann, ein Programm"Der Spiegel। ২০১৭-১২-১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-১২-২৪ 
  13. "Sebastian Kurz, Biografie"। ২০১৭-১০-১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-১২-০৫ 
  14. "Kurz: Das ist seine First Lady"www.oe24.at (জার্মান ভাষায়)। ২ জুলাই ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০২-০৪ 
  15. "Sie will keine Brigitte Macron sein"Süddeutsche Zeitung। ১৬ অক্টোবর ২০১৭। ২০১৭-১০-১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-১০-১৮ 
  16. Serbia, RTS, Radio televizija Srbije, Radio Television of। "Вучић уручио одликовање аустријском канцелару: Увек можемо да рачунамо на пријатеља какав је Аустрија"www.rts.rs। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৯-০৫ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

টেমপ্লেট:অস্ট্রিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী টেমপ্লেট:অস্ট্রীয় পিপলস পার্টির প্রধান টেমপ্লেট:দ্বিতীয় কুর্ৎস মন্ত্রিসভা