জেন ম্যারি লিঞ্চ (ইংরেজি: Jane Marie Lynch; জন্ম: ১৪ জুলাই ১৯৬০)[১] হলেন একজন মার্কিন অভিনেত্রী, লেখিকা, গায়িকা ও কৌতুকাভিনেত্রী। তিনি সঙ্গীতনাট্যধর্মী টিভি ধারাবাহিক গ্লি-এ সু সিলভেস্টার ও ন্যাশনাল জিওগ্রাফিকের আর্থ লাইভের জন্য সর্বাধিক পরিচিত। এছাড়া তিনি ক্রিস্টোফার গেস্টের হাস্যরসাত্মক প্রামাণ্যচিত্র বেস্ট ইন শো-এ অভিনয় করে খ্যাতি অর্জন করেন।

জেন লিঞ্চ
Jane Lynch
Jane Lynch at the 2016 Willfilm Awards.jpg
২০১৬ সালে উইলফিল্ম পুরস্কার আয়োজনে লিঞ্চ
জন্ম
জেন ম্যারি লিঞ্চ

(1960-07-14) ১৪ জুলাই ১৯৬০ (বয়স ৬০)
জাতীয়তামার্কিন
মাতৃশিক্ষায়তনইলিনয় স্টেট বিশ্ববিদ্যালয় (স্নাতক)
কর্নেল বিশ্ববিদ্যালয় (স্নাতকোত্তর)
পেশাঅভিনেত্রী
কর্মজীবন১৯৮৮-বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীলারা এমব্রি (বি. ২০১০; বিচ্ছেদ. ২০১৪)
ওয়েবসাইটjanelynchofficial.com

গ্লি ধারাবাহিকে সু সিলভেস্টার চরিত্রে তার কাজের জন্য তিনি অসংখ্য পুরস্কার অর্জন করেন, তন্মধ্যে প্রাইমটাইম এমি পুরস্কার, গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার, স্ক্রিন অ্যাক্টরস গিল্ড পুরস্কার, স্যাটেলাইট পুরস্কার, পিপলস চয়েস পুরস্কার ও টিসিএ পুরস্কার উল্লেখযোগ্য।

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

লিঞ্চ ১৯৬০ সালের ১৪ই জুলাই ইলিনয় অঙ্গরাজ্যের এভারগ্রিন পার্ক শহরে জন্মগ্রহণ করেন[১] এবং ইলিনয়ের ডল্টন শহরে বেড়ে ওঠেন। তার পিতা ফ্রাঙ্ক লিঞ্চ একজন ব্যাংকার এবং মাতা এইলিন (জন্মনাম: কার্নি) একজন গৃহিণী।[২] লিঞ্চের পিতা আইরিশ বংশোদ্ভূত এবং তার পিতামাতাগণ সুইনফোর্ড কাউন্টি মায়ো থেকে যুক্তরাষ্ট্রে আসেন।[৩][৪] লিঞ্চের মাতার পূর্বপুরুষগণ আইরিশ ও সুয়েডীয় ছিলেন। লিঞ্চ ক্যাথলিক পরিবারে বেড়ে ওঠেন[৫] এবং থর্নরিজ হাই স্কুলে পড়াশুনা করেন।[২] তিনি ইলিনয় স্টেট বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নাট্যকলায় স্নাতক ডিগ্রি এবং কর্নেল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নাট্যকলায় স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Jane Lynch Biography (1960-)"ফিল্ম রেফারেন্স। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুলাই ২০১৮ 
  2. বেরিন, ড্যানিয়েল (৯ জানুয়ারি ২০১০)। "Jane Lynch: 'I'm just a goof'"দ্য গার্ডিয়ান (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুলাই ২০১৮ 
  3. ওডোহার্টি, কেহির (৩ অক্টোবর ২০১৩)। "Jane Lynch on adults behaving like kids in A.C.O.D. (VIDEO)"আইরিশ সেন্ট্রাল (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুলাই ২০১৮ 
  4. "Gleeful Jane Lynch leaves Ireland with 'full heart'"আরটিই (ইংরেজি ভাষায়)। ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুলাই ২০১৮ 
  5. "Happy Accidents"এনপিআর (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুলাই ২০১৮ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা