জর্জ আর্লিস (ইংরেজি: George Arliss; জন্ম: অগাস্টাস জর্জ অ্যান্ড্রুজ, ১০ এপ্রিল ১৮৬৮ - ৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৪৬)[১] ছিলেন একজন ইংরেজ অভিনেতা, লেখক, নাট্যকার, ও চলচ্চিত্র নির্মাতা। তিনি ইংরেজ হলেও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের চলচ্চিত্রে বিভিন্ন ঐতিহাসিক ব্যক্তিদের চরিত্রে কাজ করে সফলতা অর্জন করেন। তিনি ডিসরেইলি (১৯২৯) চলচ্চিত্রে ভিক্টোরীয় যুগের ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন ডিসরেইলি চরিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ অভিনেতার জন্য একাডেমি পুরস্কার অর্জন করেন। তিনি অস্কার বিজয়ী প্রথম ব্রিটিশ অভিনেতা এবং অস্কার বিজয়ীদের মধ্যে সর্বাগ্রে জন্মগ্রহণকারী।

জর্জ আর্লিস
George Arliss
George Arliss cph.3b31151.jpg
১৯১৯ সালে আর্লিস
জন্ম
অগাস্টাস জর্জ অ্যান্ড্রুজ

(১৮৬৮-০৪-১০)১০ এপ্রিল ১৮৬৮
মৃত্যু৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৪৬(1946-02-05) (বয়স ৭৭)
লন্ডন, যুক্তরাজ্য
পেশাঅভিনেতা, লেখক, নাট্যকার, চলচ্চিত্র নির্মাতা
কর্মজীবন১৮৮৭-১৯৪৩
দাম্পত্য সঙ্গীফ্লোরেন্স কেট মন্টগামারি স্মিথ
(বি. ১৮৯৯; মৃ. ১৯৪৬)
পুরস্কারশ্রেষ্ঠ অভিনেতার জন্য একাডেমি পুরস্কার (১৯৩০)

আর্লিস কয়েকটি নাটক রচনা করেছেন এবং দুটি আত্মজীবনী লিখেছেন, সেগুলো হল আপ দ্য ইয়ার্স ফ্রম ব্লুমসবারি (১৯২৭) ও মাই টেন ইয়ার্স ইন দ্য স্টুডিওজ (১৯৪০)। চলচ্চিত্রে অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে হলিউড ওয়াক অব ফেমে তার নামাঙ্কিত তারকা খচিত করা হয়।[২]

জীবনীসম্পাদনা

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

আর্লিস ১৮৬৮ সালের ১০ই এপ্রিল লন্ডনে জন্মগ্রহণ করেন এবং তার বাপ্তিস্ম পরবর্তী নাম রাখা হয় অগাস্টাস জর্জ অ্যান্ড্রুজ, কিন্তু বিভিন্ন তালিকায় তার নাম জর্জ অগাস্টার অ্যান্ড্রুজ হিসেবে লিপিবদ্ধ করা হয়েছে। তার পিতা উইলিয়াম জোসেফ আর্লিস অ্যান্ড্রুজ প্রকাশনা ব্যবসায়ের সাথে জড়িত ছিলেন। আর্লিস হারোতে পড়াশোনা করেন এবং তার পিতার প্রকাশনা অফিসে কাজ শুরু করেন, কিন্তু ১৮ বছর বয়সে তিনি মঞ্চে অভিনয়ের উদ্দেশ্যে এই কাজ ত্যাগ করেন। তিনি ১৮৮৭ সালে ব্রিটিশ প্রদেশে মঞ্চে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে তার অভিনয় জীবন শুরু করেন। ১৯০০ সালের মধ্যে তিনি লন্ডনের ওয়েস্ট এন্ড মঞ্চে পার্শ্ব ভূমিকায় অভিনয় শুরু করেন। তিনি ১৯০১ সালে মিসেস প্যাট্রিক ক্যামবেলের দলের সাথে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সফরে যান। এই সফরের সময়টুকু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কাটানোর উদ্দেশ্য নিয়ে গেলেও তিনি ২০ বছর সেখানে রয়ে যান এবং ১৯০৮ সালে দ্য ডেভিল-এ শ্রেষ্ঠাংশে অভিনয় করেন। প্রযোজক জর্জ টাইলার ১৯১১ সালে লুই নাপোলিয়ন পার্কারকে শুধু তাকেই কেন্দ্র করে একটি নাটক লিখতে আহ্বান জানান, এবং আর্লিস ডিসরেইলি নামক এই নাটকটি নিয়ে পাঁচ বছর বিভিন্ন স্থানে সফরে যান এবং উনবিংশ শতাব্দীর ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন ডিসরেইলির সাথে তার মিল ছিল।

চলচ্চিত্রের তালিকাসম্পাদনা

বছর চলচ্চিত্রের শিরোনাম মূল শিরোনাম ভূমিকা টীকা
১৯২১ দ্য ডেভিল The Devil ডক্টর মুলার
ডিসরেইলি Disraeli বেঞ্জামিন ডিসরেইলি
১৯২২ দ্য ম্যান হু প্লেইড গড The Man Who Played God মন্টগামারি রয়্যাল
দ্য রুলিং প্যাসন The Ruling Passion জেমস আলডেন
দ্য স্টারল্যান্ড রিভিউ The Starland Review স্বয়ং আর্কাইভ
১৯২৩ দ্য গ্রিন গডেস The Green Goddess রুখের রাজা
১৯২৪ টুয়েন্টি ডলারস আ উয়িক Twenty Dollars a Week জন রিভস
১৯২৯ ডিসরেইলি Disraeli বেঞ্জামিন ডিসরেইলি বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ অভিনেতার জন্য একাডেমি পুরস্কার
১৯৩০ দ্য গ্রিন গডেস The Green Goddess রুখের রাজা মনোনীত: শ্রেষ্ঠ অভিনেতার জন্য একাডেমি পুরস্কার
ওল্ড ইংলিশ Old English সিলভানাস হেথর্প
১৯৩১ আলেকজান্ডার হ্যামিলটন Alexander Hamilton আলেকজান্ডার হ্যামিলটন
দ্য মিলিয়নিয়ার The Millionaire জেমস অলডেন
১৯৩২ আ সাকসেসফুল ক্যালামিটি A Successful Calamity হেনরি উইলটন
দ্য ম্যান হু প্লেইড গড The Man Who Played God মন্টগামারি রয়্যাল যুক্তরাজ্যে দ্য সাইলেন্ট ভয়েস নামে মুক্তি পায়

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "George Arliss | British actor"এনসাইক্লোপিডিয়া ব্রিটানিকা (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  2. "George Arliss"লস অ্যাঞ্জেলেস টাইমস (ইংরেজি ভাষায়)। ৬ ফেব্রুয়ারি ১৯৪৬। সংগ্রহের তারিখ ৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা