জয়াসুধা

ভারতীয় অভিনেত্রী

জয়সুধা ভারতের একজন তেলুগু চলচ্চিত্রের একজন সাবেক অভিনেত্রী, যদিও তিনি বেশ কিছু তামিল চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেছেন। অভিনয় ছাড়াও তিনি রাজনীতিতে সক্রিয় হয়ে উঠেছিলেন। চলচ্চিত্র কর্মজীবনে জয়াসুধা সাতটি নন্দী পুরস্কার (অন্ধ্র প্রদেশের) এবং সাতটি ফিল্মফেয়ার পুরস্কার দক্ষিণ জেতেন।[১]

জয়াসুধা
সদস্য, আইনসভা, অন্ধ্র প্রদেশ, ভারত
কাজের মেয়াদ
২০০৯ – ২০১৪
সংসদীয় এলাকাসিকান্দারাবাদ, অন্ধ্র প্রদেশ, ভারত
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্মসুজাতা নিড়ুদাভোলু
(1958-12-17) ১৭ ডিসেম্বর ১৯৫৮ (বয়স ৬১)
মাদ্রাজ, মাদ্রাজ স্টেট, ভারত
(এখন চেন্নাই, তামিলনাড়ু)
দাম্পত্য সঙ্গীনিতিন কাপুর (১৯৮৫-২০১৭ (ব্যক্তিটির মৃত্যু)
সন্তাননিহার কাপুর এবং শ্রিয়ান কাপুর
পেশাঅভিনেত্রী, রাজনীতিবিদ

কর্মজীবনসম্পাদনা

১৯৫৮ সালের ১৭ই ডিসেম্বর তৎকালীন মাদ্রাজ শহরে জয়াসুধার জন্ম, তার জন্মনাম ছিলো সুজাতা নিড়ুদাভোলু, একটি তেলুগুভাষী পরিবারে তার জন্ম হয়েছিলো।[২] তার মসী বিজয়া নির্মলা তেলুগু চলচ্চিত্রে অভিনয় করতেন। ১৯৭২ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত তেলুগু চলচ্চিত্র 'পান্ডাত্তি কাপুরাম' ছিলো জয়াসুধা অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র, তিনি ১৯৭০ সালে ১২বছর বয়সে চলচ্চিত্রটিতে অভিনয় করা শুরু করেছিলেন। ১৯৭৩ সালের তামিল চলচ্চিত্র 'আরাংগেট্রাম' ছিলো জয়াসুধার প্রথম তামিল ভাষার চলচ্চিত্র, এই চলচ্চিত্রের পরিচালক ছিলেন তামিল চলচ্চিত্রের খ্যাতনামা পরিচালক কৈলাস বলচন্দ, চলচ্চিত্রটিতে তখনকার তরুণ কমল হাসন ছিলেন। কৈলাস বলচন্দ পরিচালিত তিনটি গুরুত্বপূর্ণ তামিল চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন জয়াসুধাঃ 'সোল্লাদান নিনাইক্কিরেন' (১৯৭৩), 'নান আভানিল্লাই' (১৯৭৪) এবং 'অপূর্ব রাগাঙ্গাল' (১৯৭৫)। এছাড়াও তেলুগু মহানায়ক চিরঞ্জীবীর সঙ্গে 'ইদি কথা কাদু' (১৯৭৯, তেলুগু) তে অভিনয় করেন জয়াসুধা, এটিও কে. বলচন্দ পরিচালনা করেছিলেন।

তেলুগু, তামিল, কন্নড় এবং মালয়ালম মিলিয়ে ৩২৫ টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন জয়াসুধা।[৩]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "51st Annual Manikchand Filmfare Award winners"। The Times of India। ৪ জুন ২০০৪। সংগ্রহের তারিখ ৩ আগস্ট ২০১২ 
  2. http://www.rediff.com/movies/2000/may/13jaya.htm
  3. rediff.com, Movies: The Jayasudha interview

বহিঃসংযোগসম্পাদনা