প্রধান মেনু খুলুন

জন কেনেথ লিভার, এমবিই (ইংরেজি: John Lever; জন্ম: ২৪ ফেব্রুয়ারি, ১৯৪৯) লন্ডনের স্টেপনি এলাকায় জন্মগ্রহণকারী ইংল্যান্ডের সাবেক ক্রিকেটার[১] ১৯৭৬ থেকে ১৯৮৬ মেয়াদে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের পক্ষে টেস্টএকদিনের আন্তর্জাতিকে অংশগ্রহণ করেছেন। দলে তিনি মূলতঃ বামহাতি ফাস্ট-মিডিয়াম বোলিংয়ে পারদর্শী ছিলেন। এছাড়াও নীচের সারিতে অবস্থান নিয়ে ডানহাতে ব্যাটিং করতেন। কাউন্টি ক্রিকেটে এসেক্সের প্রতিনিধিত্ব করেন জন লিভার

জন লিভার
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামজন কেনেথ লিভার
জন্ম (1949-02-24) ২৪ ফেব্রুয়ারি ১৯৪৯ (বয়স ৭০)
স্টেপনি, লন্ডন, ইংল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনবামহাতি ফাস্ট-মিডিয়াম
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই
ম্যাচ সংখ্যা ২১ ২২
রানের সংখ্যা ৩০৬ ৫৬
ব্যাটিং গড় ১১.৭৬ ৮.০০
১০০/৫০ –/১ –/–
সর্বোচ্চ রান ৫৩ ২৭*
বল করেছে ৪৪৩৩ ১১৫২
উইকেট ৭৩ ২৪
বোলিং গড় ২৬.৭২ ২৯.৭০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট -
সেরা বোলিং ৭/৪৬ ৪/২৯
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১১/– ৬/–
উৎস: ক্রিকইনফো.কম, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৬

খেলোয়াড়ী জীবনসম্পাদনা

লিভার ২২ বছর এসেক্স দলে খেলেন। ঐ সময়ই ক্লাবের ইতিহাসে স্বর্ণালী সময় অতিবাহিত হয়। ভ্যাসলিনের ন্যায় তরল পদার্থ বলে লাগানোর ঘটনায় অনেকেই তাকে মনে রেখেছেন। এ ঘটনাটি ছিল প্রথমবারের মতো অখেলোয়াড়ীসূলভ যা বলে আঁচড় কাটা কিংবা অন্য কিছু করা। অধিকতর সুইং করাতে তিনি বলের একপ্রান্তে ভ্যাসলিন লাগিয়েছিলেন বলে জানা যায়।[২][৩][৪][৫][৬][৭] পরবর্তীকালে অবশ্য এ অভিযোগটি প্রত্যাহার করা হয় ও লিভারকে দায়মুক্তি দেয়া হয়। দিল্লিতে ভারতের বিপক্ষে অনুষ্ঠিত ঐ টেস্টে অভিষেকে যে-কোন ইংর‌েজ ক্রিকেটারের সেরা বোলিং পরিসংখ্যানের রেকর্ড গড়া হয় ৭/৪৬[৮] ১৯৯৫ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ডমিনিক কর্ক ৩ রানের ব্যবধানে এ রেকর্ডটি ভেঙ্গে ফেলেন ৭/৪৩। খেলায় তিনি ১০/৭০ লাভ করে অভিষেক টেস্টে অংশ নিয়ে আরও একটি নতুন ইংর‌েজ রেকর্ড গড়েন যা অদ্যাবধি টিকে রয়েছে।[১] ৩৭ বছর বয়সে টেস্ট ক্যাপ পরিধানের সুযোগ পান তিনি।[১]

মূল্যায়ণসম্পাদনা

তিনি বর্ণবাদের সাথে সম্পৃক্ত দক্ষিণ আফ্রিকায় বিদ্রোহী দল নিয়ে গমন করেন। সেখানে অবস্থান করে দেশের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করতেন তিনি। পরবর্তীতে অনেকগুলো শীত মৌসুমে নাটালের পক্ষে খেলেন। ক্রিকেট খেলায় অনন্য সাধারণ অংশগ্রহণের স্বীকৃতিস্বরূপ তাকে এমবিই পদবীতে ভূষিত করা হয়। ক্রিকেট সংবাদদাতা কলিন ব্যাটম্যানের মতে, ‘এসেক্সে তিনি ২৩ বছর সেবা দিয়ে প্রতীকি হয়ে আছেন। এছাড়াও তিনি দেশের সর্বাপেক্ষো কুশলী বামহাতি পেশার হিসেবে আবির্ভূত হয়েছিলেন। আত্মজীবনীমূলক গ্রন্থ এ ক্রিকেটার্স ক্রিকেটারে ড্রেসিং রুমে অবস্থানকালীন তাঁর আনন্দময় ভূমিকার কথা তুলে ধরেছেন।’[১]

অবসরসম্পাদনা

সাম্প্রতিককালে লিভার ব্যানক্রফট’স স্কুলে শারীরিক শিক্ষা বিষয়ে শিক্ষকতা করছেন।[৯] পাশাপাশি মিডলসেক্সের বোলিং কোচেরও দায়িত্ব পালন করছেন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Bateman, Colin (১৯৯৩)। If The Cap Fits। Tony Williams Publications। পৃষ্ঠা 109। আইএসবিএন 1-869833-21-X 
  2. "Controversies have proved beneficial to the game"। ১৩ অক্টোবর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুন ২০১৫ 
  3. "Sport,England v Pakistan 2006,Cricket,donotuse Observer"The Guardian। London। ২৭ আগস্ট ২০০৬। 
  4. "John's leverage with vaseline"The Times of India 
  5. Mid-Day – Sports news, indian sports news, international sports news & lot more[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  6. Selvey, Mike (২৪ আগস্ট ২০০৬)। "Sport"The Guardian। London। 
  7. Ezekiel, Gulu (৮ সেপ্টেম্বর ২০০৬)। "Historical echoes of ball-tampering row"BBC News 
  8. "1st Test: India v England at Delhi, Dec 17–22, 1976"espncricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ডিসেম্বর ২০১১ 
  9. Bancroft's School staff list

বহিঃসংযোগসম্পাদনা