প্রধান মেনু খুলুন
পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগরে চ্যালেঞ্জার ডিপের অবস্থান

চ্যালেঞ্জার ডিপ হচ্ছে এখন পর্যন্ত জরিপকৃত সমুদ্রের সবচেয়ে গভীরতম স্থান। এর গভীরতা প্রায় ১১,০০০ মিটার (৩৬,০০০ ফুট)। প্রকৃত গভীরতা এর থেকে ১০০ মিটার কম-বেশি হতে পারে। প্রশান্ত মহাসাগরের মারিয়ানা দ্বীপপুঞ্জের কাছে অবস্থিত মারিয়ানা খাতের দক্ষিণ অংশে এর অবস্থান।

চ্যালেঞ্জার ডিপের সবচেয়ে কাছের স্থলভাগটির নাম ফাইস দ্বীপ। এটি চ্যালেঞ্জার ডিপ থেকে ২৮৯ কিলোমিটার (১৮০ মাইল) দক্ষিণপশ্চিমে অবস্থিত। এছাড়াও রয়েছে গুয়াম, যার অবস্থান ৩০৬ কিলোমিটার (১৯০ মাইল) উত্তরপূর্বে। এই গভীরতম স্থানটির নামকরণ করা হয়েছে ব্রিটিশ রয়াল নেভির জরিপ জাহাজ এইচএমএস চ্যালেঞ্জারের নামানুসারে। এই জাহাজের ১৮৭২-৭৬ সালের এক অভিযানেই সর্বপ্রথম এর গভীরতা পরিমাপ করা হয়।

চ্যালেঞ্জার ডিপের গভীরতা পরিমাপের ইতিহাসসম্পাদনা

  • এইচএমএস চ্যালেঞ্জার অভিযান (ডিসেম্বর ১৮৭২ – মে ১৮৭৬) সর্বপ্রথম আজকের চ্যালেঞ্জার ডিপ নামের অংশটির গভীরতা পরিমাপ করে। এই পরিমাপ সর্বপ্রথম হয় ১৮৭৫ সালের ২৩ মার্চ, এবং দুটি ভিন্ন পরিমাপে প্রাপ্ত গভীরতা দাঁড়ায় ৪,৪৭৫ ফ্যাদম (৮,১৮৪ মিটার বা ২৬,৮৫০ ফুট)।
  • ১৯১২ সালে প্রকাশিত স্যার জন মারের লিখিত ডেপথ্‌স অফ দ্য ওশান নামের এক বইতে তিনি চ্যালেঞ্জার ডিপের গভীরতা ৩১,৬১৪ ফুট (৯,৬৩৬ মিটার) হিসেবে প্রকাশ করেন। মারে চ্যালেঞ্জার অভিযানের সময় একজন বিজ্ঞানী হিসেবে ঐ জাহাজে ছিলেন।[১]
  • ১৯৫১ সালে, মূল অভিযানের প্রায় ৭৫ বছর পর, সম্পূর্ণ মারিয়ানা খাত এলাকা ব্রিটিশ রয়াল নেভির জাহাজ দ্বারা পরিমাপকৃত হয়। এই জাহাজের নামও ছিলো এইচএমএস চ্যালেঞ্জার, এবং এর ক্যাপ্টেন ছিলেন জর্জ স্টিফেন রিশি (পরবর্তীকালে রিয়ার অ্যাডমিরাল রিশি)। এই জরিপে শব্দের প্রতিধ্বনি কাজে লাগিয়ে চ্যালেঞ্জার ডিপের গভীরতা পরিমাপ করা হয়, এবং ফলাফল আসে ৫,৯৬০ ফ্যাদম (১০,৯০০ মিটার বা ৩৫,৭৬১ ফুট)। এই পরিমাপ যেখানে করা হয়, তার স্থানাঙ্ক হচ্ছে ১১°১৯′ উত্তর ১৪২°১৫′ পূর্ব / ১১.৩১৭° উত্তর ১৪২.২৫০° পূর্ব / 11.317; 142.250
  • ১৯৮৪ সালে এক জাপানি পরিমাপ জলযানের এক পরিমাপে চ্যালেঞ্জার ডিপের গভীরতা পাওয়া যায় ১০,৯২৪ মিটার (৩৫,৮৪০ ফুট)।[২]
  • চ্যালেঞ্জারের ডিপের গভীরতা সবচেয়ে বেশিবার পরিমাপকৃত ফলাফল ১১,০৩৪ মিটার (৩৬,২০০ ফুট)। ২০০৫ সালে ন্যাশনাল জিওগ্রাফিকের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশ পায়।[৩] অর্থাৎ সমুদ্রপৃষ্ঠের নিচ থেকে এর গভীরতা প্রায় ৬.৭৪ মাইল। চ্যালেঞ্জার ডিপের গভীরতায় পানির চাপ সমুদ্রপৃষ্ঠের তুলনায় প্রায় ১,০৯৯ গুণ বেশি; প্রায় ১১১ মেগা প্যাসকেল।[৪]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Page 131 of Murray's book refers to the Challenger Deep.
  2. Ritchie, Steve। "The deepest depths"। ২০০৭-১০-২৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০৭-০৪ 
  3. "Life Is Found Thriving at Ocean's Deepest Point", National Geographic News, February 3, 2005
  4. Akimoto; ও অন্যান্য (২০০১)। "The deepest living foraminifera, Challenger Deep, Mariana Trench"। Marine Micropaleontology42: 95। doi:10.1016/S0377-8398(01)00012-3 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা