গৌরী ধর্মপাল (বিবাহপূর্ব চৌধুরী) (১৯৩১—২০১৪)[২] একজন সংস্কৃতের পণ্ডিত, লেখিকা এবং কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের লেডি লেডি ব্রেবোর্ন কলেজের সংস্কৃত বিভাগের প্রাক্তন প্রধান ছিলেন। ২০১০ সালে ভারতের রাষ্ট্রপতির কাছ থেকে উনি সম্মান শংসাপত্র পান।[১] তার লেখা কয়েকটি বই হল ঘোড়া যায়, চোদ্দো পিদিম, আশ্চর্য কৌটো, কালো মানিক ইত্যাদি।

গৌরী ধর্মপাল
জন্ম১৯৩১
মৃত্যু২০১৪
জাতীয়তাIndian
নাগরিকত্বভারতীয়
পরিচিতির কারণলেখিকা, সংস্কৃত পণ্ডিত, লেডি লেডি ব্রেবোর্ন কলেজের সংস্কৃত বিভাগের প্রাক্তন প্রধান
উল্লেখযোগ্য কর্ম
The Linguistic Atom and The Origin of Language
দাম্পত্য সঙ্গীগৌতম ধর্মপাল
পুরস্কারভারতের রাষ্ট্রপতির কাছ থেকে উনি সম্মান শংসাপত্র, ২০১০[১]

কর্মজীবনসম্পাদনা

তিনি ১৯৫১ সালে কলকাতার বিখ্যাত স্কটিশ চার্চ কলেজ থেকে স্নাতক সম্পন্ন করেন[৩] এবং পরবর্তীতে স্নাতকোত্তর অধ্যয়নের জন্য কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ঈশান বৃত্তি লাভ করেন। তিনি লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অফ ওরিয়েন্টাল অ্যান্ড আফ্রিকান স্টাডিজ এবং লন্ডনের ব্রিটিশ মিউজিয়ামে গবেষণায় অংশগ্রহণ করেন। তিনি একজন ঔপন্যাসিক, প্রাবন্ধিক, ভারতবিজ্ঞানী এবং পাশাপাশি শিশুদের বইয়ের গল্পকারও ছিলেন।[৪]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "President of India Confers Certificate of Honour to Sanskrit, Pali/Prakrit, Arabic and Persian Scholars for The Year 2010"। Government of India। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মে ২০১৪ 
  2. "কলকাতার কড়চা - বিদুষী" (২৪ নভেম্বর ২০১৪)। আনন্দবাজার পত্রিকা। সংগ্রহের তারিখ ২১ মার্চ ২০১৭ 
  3. Dharmapal, Gouri. Bande Mataram in 175th Year Commemoration Volume. Scottish Church College, April 2008. page 389-396.
  4. Note on Contributors in 175th Year Commemoration Volume. Scottish Church College, April 2008. page 597.