গাজা ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়

গাজা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (আরবি: الجامعة الإسلامية بغزة) বা IUG হল গাজা শহরের ১৯৭৮ সালে প্রতিষ্ঠিত একটি স্বাধীন ফিলিস্তিনি বিশ্ববিদ্যালয়[৩] এটি গাজা ফালিতে প্রতিষ্ঠিত প্রথম উচ্চ শিক্ষার প্রতিষ্ঠান।[৩] বিশ্ববিদ্যালয়টিতে বিএ, বিএসসি, এমএ, এমএসসি, এমডি, পিএইচডি, ডিপ্লোমা ও উচ্চতর উপাধি প্রদান করতে সক্ষম এগারোটি অনুষদ রয়েছে।[৩][৪] এছাড়া বিশটি ভিন্ন গবেষণা কেন্দ্র ও ইনস্টিটিউট এবং একটি অধিভুক্ত তুর্কি-ফিলিস্তিনি বন্ধুত্ব হাসপাতালও রয়েছে।[৩][৫] ২০০৮-২০০৯ গাজা যুদ্ধ২০১৪ ইসরাইল-গাজা সংঘর্ষের সময় ইসরায়েলী বিমান হামলায় বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি বড় অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়।[৬]

Islamic University of Gaza
الجامعة الإسلامية بغزة‎‎
অন্যান্য নাম
গাজা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়
ধরনসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়
স্থাপিত১৯৭৮
সভাপতিঅধ্যাপক নাসের ইসমাইল ফারহা[১]
শিক্ষায়তনিক ব্যক্তিবর্গ
৩০৭
শিক্ষার্থী১৭,৮৭৪[২]
স্নাতক১৬,২১২
স্নাতকোত্তর১,৬৬২
অবস্থান,
শিক্ষাঙ্গনশহর
পোশাকের রঙসাদাসবুজ
ওয়েবসাইটwww.iugaza.edu.ps
মানচিত্র

গাজা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বারোটি আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক সমিতি ও উচ্চতর শিক্ষাতন্ত্র সদস্য।[৭] সেগুলির মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য হল:

১.আন্তরজাতিক বিশ্ববিদ্যালয় সমিতি (IAU)।[৮]

২. মেটিডোটারিয়ান ইউনিভার্সিটিস ইউনিয়ন (UNIMED)।[৯]

৩. অ্যাসোসিয়েশন অফ আরব ইউনিভার্সিটিজ (AAU)।[১০]

৪. ফেডারেশন অফ দ্য ইউনিভার্সিটিজ অফ দ্য ইসলামিক ওয়ার্ল্ড (FUIW)।[১১]

৫. ব্ল্যাক সি অ্যান্ড ইস্টার্ন মেডিটারেনিয়ান একাডেমিক নেটওয়ার্ক (BSEMAN)।[১২]

৬. আন্তরজাতিক বিশ্ববিদ্যালয় প্রবর্তনচক্র-আবিপ্র।[১৩]

ইতিহাস সম্পাদনা

১৯৭২ সাল পর্যন্ত অধিকৃত পশ্চিম তীর ও গাজা উপত্যকায় কোনো বিশ্ববিদ্যালয় বা উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অস্তিত্ব ছিল না।[১৪][১৫] এর আগে ফিলিস্তিনী উচ্চ বিদ্যালয়ের স্নাতকরা বিদেশে উচ্চশিক্ষার জন্য ভ্রমণ করত। তাদের বেশিরভাগ মিশরীয় ও জর্ডানের বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে যেত। ১৯৬৭ সালে পশ্চিম তীর ও গাজা ফালি ইসরাইলী দখলের পর ছাত্র আন্দোলনের উপর বিধিনিষেধ, অর্থনৈতিক অবস্থার অবনতি এবং আরব বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে ফিলিস্তিনী ছাত্রদের ভর্তির উপর ক্রমবর্ধমান সীমাবদ্ধতা এই পরিস্থিতিকে পরিবর্তন করে।[১৬] যেমন, স্থানীয় প্রবীণদের নেতৃত্বে স্থানীয় উদ্যোগ এবং সামাজিক ও জাতীয়তাবাদী নেতারা অধিকৃত অঞ্চলে জাতীয় উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করেছিল, প্রায়শই ইতিমধ্যে বিদ্যমান স্কুল ও কলেজগুলির উপর নির্মিত।[১৬]

আজহারী প্রতিষ্ঠানের গাজা ভিবাগের তখনকার প্রধান শেখ মোহম্মদ আওয়াদ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা কমিটির নেতৃত্ব দেন। 12 এপ্রিল 1978-এ, কমিটি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার জন্য একটি আদেশ জারি করে, যা তিনটি অনুষদের সমন্বয়ে গঠিত ছিল: শরিয়ত, উসুলে দ্বীন এবং আরবী ভাষা (যা পরে কলা অনুষদে বিকশিত হয়)।[১৭] বিশ্ববিদ্যালয়টি পরে নভেম্বর 1978 সালে একটি স্বাধীন, অলাভজনক বিশ্ববিদ্যালয় হিসাবে উদ্বোধন করা হয়েছিল, যা গাজা উপত্যকার প্রথম উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও ছিল।[১৮] শিক্ষা অনুষদ 1980 সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল, যখন বাণিজ্য ও কলা অনুষদ পরের বছর প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। নার্সিং এবং ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদ 1993 সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। 2005 সালে, তথ্য প্রযুক্তি অনুষদ প্রতিষ্ঠিত হয়, তারপর 2006 সালে মেডিসিন অনুষদ[১৭]

IUG বোর্ড অফ ট্রাস্টির চেয়ারম্যানগণ
নাম সেবার বছর
মোহাম্মদ আওয়াদ ১৯৭৮-১৯৯৪
জামাল আল-খৌদারী ১৯৯৪-২০১৪
নাসরুদ্দীন আল-মুজাইনি ২০১৪-২০২২
মোহাম্মদ আল আকলোক ২০২২- বর্তমান

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ফিলিস্তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ইসরায়েলি নিষেধাজ্ঞার শিকার হয়েছিল, যেটিকে ফিলিস্তিনিরা রাজনৈতিক সংগ্রাম এবং জাতি গঠনের কেন্দ্র হিসেবে মনে করত।[১৬] নার্সিং অনুষদের প্রতিষ্ঠা, 1986 সালে উদ্দেশ্যে, 1993 সাল পর্যন্ত ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষ অস্বীকার করেছিল। বিল্ডিং পারমিট অচল এবং সীমিত ছিল। এছাড়াও, অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের মত, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় একাডেমিক স্বাধীনতা যেমন কর্মীদের চলাচলের সীমাবদ্ধতা এবং সামরিক আদেশ 854 এর উপর কঠোর বিধিনিষেধের শিকার হয়েছিল। এটি একটি অস্থায়ী লাইসেন্সের সাথে জারি করা হয়েছিল যার জন্য বার্ষিক পুনর্নবীকরণের প্রয়োজন ছিল এবং কর ছাড় অস্বীকার করা হয়েছিল।[১৬][১৯]

তথ্যসূত্র সম্পাদনা

  1. "Welcome from the president"The Islamic University Gaza। ৩১ মে ২০২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ জানুয়ারি ২০২০ 
  2. "About IUG"The Islamic University Gaza। ৩১ মে ২০২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২ 
  3. "Islamic University of Gaza"Times Higher Education (THE) (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২১-১১-১২। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১০-০২ 
  4. "About IUG – الجامعة الإسلامية بغزة" (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২২-১০-০২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১০-০২ 
  5. "Islamic University Takes Up the Turkish-Palestinian Friendship Hospital – الجامعة الإسلامية بغزة" (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২২-১০-০২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১০-০২ 
  6. "Israel strikes university in Gaza City"। Al Jazeera। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুন ২০১৫ 
  7. "Islamic University of Gaza is a permanent member of Global University Network for Innovation – الجامعة الإسلامية بغزة" (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২২-১০-০২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১০-০২ 
  8. "List of IAU Members - IAU"www.iau-aiu.net। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১০-০২ 
  9. "Adherents"Cmungo (ইতালীয় ভাষায়)। ২০২২-১০-০২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১০-০২ 
  10. "اتحاد الجامعات العربية"www.aaru.edu.jo। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১০-০২ 
  11. "Islamic University of Gaza"। ২০১১-০৭-২৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০১-২২ 
  12. Admin, Bseman। "Members"Bseman (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১০-০২ 
  13. "Institutional members"Guni Network (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২২-১০-০২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১০-০২ 
  14. Angrist, Joshua D. (১৯৯৫)। "The Economic Returns to Schooling in the West Bank and Gaza Strip": 1065–1087। আইএসএসএন 0002-8282 
  15. "Islamic University of Gaza"Times Higher Education (THE) (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২১-১১-১২। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১২-০১ 
  16. "PIJ.ORG: Palestinian University Education under Occupation By Gabi Baramki"PIJ.ORG (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১১-১৭ 
  17. "لمحة تاريخية – الجامعة الإسلامية بغزة" (আরবি ভাষায়)। ২০২৩-০৫-৩১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১১-১৭ 
  18. "Islamic University of Gaza"Top Universities (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১১-১৭ 
  19. ASSAF, Said (১৯৯৭)। "Educational disruption and recovery in Palestine" (পিডিএফ)UNESCO International Bureau of Education। পৃষ্ঠা 57–58। ১৮ জানুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল (পিডিএফ) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ ডিসেম্বর ২০২২