খাদ্য প্রকৌশল হলো খাদ্য ও এই বিষয়ক শিল্পসমূহের একটি বিশেষ শাখা যার সাথে মাইক্রোবায়োলজি, ফলিত ভৌতবিজ্ঞান, রসায়ন সম্পর্কযুক্ত। কৃষি প্রকৌশল, যন্ত্র প্রকৌশল, এবং রসায়ন প্রকৌশল এই শাখার সাথে সম্পর্কযুক্ত হলেও তা সীমিত। খাদ্য প্রকৌশলীরা কার্যকরী খরচে খাদ্য উৎপাদন ও বাণিজ্যিকরণের লক্ষে প্রায়োগিক জ্ঞান দেন। পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, গণিত এর বিষয়ক জ্ঞান খাদ্য শিল্প বোঝার জন্য ও পণ্য উৎপাদন করার জন্য জরুরী। [১]

জার্মানির একটি রুটি তৈরীর কারখানা

খাদ্য প্রকৌশল অনেক বিষয় নিয়ে কাজ করে। খাদ্য প্রকৌশলীদের খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ, প্যাকেজিং, উপকরণ প্রক্রিয়াকরণ, যন্ত্রসমূহের রক্ষণাবেক্ষণ ও নিয়ন্ত্রণ এর জন্য নিযুক্ত করা হয়। যেসব সংস্থাসমূহ খাদ্য উৎপাদনকারী উদ্ভিদ উৎপাদন করে, সরকারী সংস্থাসমূহ, ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানী এবং স্বাস্থ্য বিষয়ক সংস্থাসমূহও খাদ্য প্রকৌশলী নিয়োগ করে। খাদ্য প্রকৌশল বিষয়ক কাজসমূহ হলো:

  • ঔষধ/খাদ্য পণ্য
  • খাদ্য/বায়োলজিক্যাল/ফার্মাসিটিউক্যাল উৎপাদন প্রক্রিয়ার নকশা তৈরি ও স্থাপন
  • উদ্ভিদ উৎপাদন এর জন্য ব্যবস্থাপনা ও কারিগরি সহায়তা
  • প্রাকৃতিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা পদ্ধতির নকশা তৈরি ও স্থাপন

প্রসঙ্গ কথাসম্পাদনা

খাদ্য প্রকৌশল এর উন্নতি সাধনের জন্য অনেক বাধার সম্মুক্ষীণ হতে হয়। এর মধ্যে একটি হলো আধুনিক যন্ত্র, প্রযুক্তি এবং জ্ঞান নিযুক্ত করা। একসময়ে খাদ্যের গুণাবলী বৃদ্ধি, সুরক্ষা প্রদান করা খাদ্য প্রকৌশলে কঠিন বিষয় ছিল। নতুন প্যাকেজিং দ্রব্যগুলো খাদ্যের অধিকতর সুরক্ষা প্রদান করে ও সঠিক উপায়ে খাদ্য সংরক্ষণের নিশ্চয়তা দেয়। আধুনিক রক্ষণাবেক্ষণ ও নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতিগুলো খাদ্য উৎপাদনকে অধিকতর সহজ করে। এছাড়াও শক্তি সংরক্ষণ ও প্রাকৃতিক সমস্যাগুলো কমানোও খাদ্য প্রকৌশল এর লক্ষ্য এবং এই লক্ষে কাজ করা হচ্ছে

[২]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Singh , R Paul; Dennis R. Heldman (২০১৩)। Introduction to Food Engineering (5th ed.)। Academic Press। পৃষ্ঠা 1। আইএসবিএন 978-0123985309 
  2. Howard Q. Zhang Gustavo V. Barbosa‐Cánovas V.M. Balasubramaniam C. Patrick Dunne Daniel F. Farkas James T.C. Yuan (২০১১)। Nonthermal Processing Technologies for Food। Newyork: Wiley। আইএসবিএন 9780470958360