ক্ষরণ বলতে বুঝায় চুইয়ে পড়া, স্রবণ, তরল দ্রব্যের পতন, নাশ বা নিঃসরণ।[১] এর ফলে ভূমির বা মাটির স্তরগুলোর মধ্য দিয়ে বস্ত্তর নিম্নমুখী বা তির্যক স্থানান্তর ঘটে এবং কোন কোন স্তরের উপর ক্ষরিত দ্রব্যের আস্তরণের সৃষ্টি হয়।[২]

প্রকরণসম্পাদনা

ক্ষরণ প্রধাণতঃ দুই ধরনেরঃ[২]

  1. রাসায়নিক ক্ষরণ এবং
  2. ভৌত ক্ষরণ।

রাসায়নিক ক্ষরণসম্পাদনা

বিভিন্ন প্রক্রিয়ায় মাটিতে রাসায়নিক পদার্থের উপস্থিতি ঘটে যেগুলো বিভিন্ন যৌগ থেকে বিমুক্ত হয়ে ছড়িয়ে পড়ে এবং পরবর্তীতে ক্ষরণের মাধ্যমে স্থিত হওয়ার প্রক্রিয়াই এটি।[২]

ভৌত ক্ষরণসম্পাদনা

এতে বিভিন্ন ভাবে মাটির উপরিস্থিত ভারী কণা সংমিশ্রিত হালকা ও সূক্ষ্ম কণাগুলো ক্ষরণের মাধ্যমে স্থিত হয়।[২]

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "ক্ষরণ"। www.english-bangla.com.। সংগ্রহের তারিখ ১০ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  2. হক, সিরাজুল (জানুয়ারি ২০০৩)। "ক্ষরণ"। সিরাজুল ইসলাম[[বাংলাপিডিয়া]]ঢাকা: এশিয়াটিক সোসাইটি বাংলাদেশআইএসবিএন 984-32-0576-6। সংগ্রহের তারিখ ১০ ডিসেম্বর ২০১৭  ইউআরএল–উইকিসংযোগ দ্বন্দ্ব (সাহায্য)

বহিঃসংযোগসম্পাদনা