প্রধান মেনু খুলুন

ক্রিট (গ্রিক: Κρήτη, Kríti ['kriti]; Ancient Greek: Κρήτη, Krḗtē) গ্রিসের সর্ববৃহৎ ও সর্বাধিক পরিচিত দ্বীপ। এটি ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলের পঞ্চম বৃহত্তম দ্বীপ; কেবল সিসিলি, সার্ডিনিয়া, সাইপ্রাস এবং কর্সিকা-ই এর চেয়ে বৃহৎ।[১] এর আয়তন ৮৩৩৬ বর্গকিলোমিটার ও উপকূল রেখার দৈর্ঘ্য ১০৬৬ কিলোমিটার। ক্রিট ও তার চারপাশের ছোট ছোট দ্বীপ নিয়ে ক্রিট প্রশাসনিক অঞ্চল গঠিত। এটি গ্রিসের ১৩টি প্রধান প্রশাসনিক অঞ্চলের অন্যতম। ক্রিটের সবচেয়ে বড় শহর ও প্রশাসনিক কেন্দ্র হল হেরাক্লিওন। ২০১১ সালের হিসেব অনুযায়ী ক্রিটের জনসংখ্যা ৬,২৩,০৬৫ জন।

ক্রিট
স্থানীয় নাম:
Κρήτη
Island of Crete, Greece.JPG
নাসা কর্তৃক গৃহীত ক্রিটের আলোকচিত্র
ভূগোল
অবস্থানপূর্ব ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চল
স্থানাঙ্ক৩৫°১২.৬′ উত্তর ২৪°৫৪.৬′ পূর্ব / ৩৫.২১০০° উত্তর ২৪.৯১০০° পূর্ব / 35.2100; 24.9100স্থানাঙ্ক: ৩৫°১২.৬′ উত্তর ২৪°৫৪.৬′ পূর্ব / ৩৫.২১০০° উত্তর ২৪.৯১০০° পূর্ব / 35.2100; 24.9100
আয়তন৮,৩০৩ বর্গকিলোমিটার (৩,২০৬ বর্গমাইল)
আয়তনে ক্রম৮৯
সর্বোচ্চ উচ্চতা২,৪৫৬ মিটার (৮,০৫৮ ফুট)
সর্বোচ্চ বিন্দুমাউন্ট এডা
প্রশাসন
গ্রিস
প্রশাসনিক অঞ্চলক্রিট
রাজধানী শহরহেরাক্লিওন
বৃহত্তর বসতিহেরাক্লিওন (জনসংখ্যা ১,৭৩,৯৯৩)
জনপরিসংখ্যান
বিশেষণক্রেটান
জনসংখ্যাc. ৬,২০,০০০ (২০১১)
জনসংখ্যার ক্রম73

গ্রিসের অর্থনীতি ও সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যে ক্রিটের যথেষ্ট অবদান রয়েছে। মূল গ্রিক সংস্কৃতি থেকে বেশ কিছুটা স্বতন্ত্র এই দ্বীপের নিজস্ব কাব্য ও সঙ্গীত এই অঞ্চলের আঞ্চলিক সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের অন্যতম বৈশিষ্ট্য। সুপ্রাচীন মিনোয়ান সভ্যতার (মোটামুটি ২৭০০ - ১৪২০ খ্রিস্টপূর্বাব্দ) ধাত্রীভূমি এই ক্রিট দ্বীপই। বর্তমানে এই সভ্যতাকে ইউরোপ ভূখণ্ডের প্রাচীনতম ঐতিহাসিক সভ্যতা বলে গণ্য করা হয়ে থাকে।[২]

ইউরোপের মুল ভূখণ্ড থেকে ক্রিট দ্বীপের দূরত্ব ৯৫ কিলোমিটার; এশিয়া থেকে ১৭৯ কিলোমিটার ও আফ্রিকা থেকে এই দ্বীপের ন্যুনতম দূরত্ব ২৮৪ কিলোমিটার।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Charles Arnold ed.: Die Inseln des Mittelmeers. Ein einzigartiger und vollständiger Überblick. 2. Auflage. marebuchverlag, Hamburg 2008, আইএসবিএন ৯৭৮-৩-৮৬৬৪৮-০৯৬-৪.
  2. Ancient Crete. Oxford Bibliographies. সংগৃহীত ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৫।