প্রধান মেনু খুলুন

ক্যানিং মহকুমা

পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ চব্বিশ পরগণা জেলার একটি মহকুমা

ক্যানিং মহকুমা পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা জেলার একটি মহকুমা। এই মহকুমা বাসন্তী, ক্যানিং-১, ক্যানিং-২ ও গোসাবা ব্লক চারটি নিয়ে গঠিত। ক্যানিং মহকুমায় মোট ৫১টি গ্রাম পঞ্চায়েত রয়েছে। মহকুমার সদর ক্যানিং সুন্দরবন সদর শহর।।

ক্যানিং মহকুমা
ক্যানিং মহকুমা
স্থানাঙ্ক: ২২°১৯′ উত্তর ৮৮°৪০′ পূর্ব / ২২.৩২° উত্তর ৮৮.৬৭° পূর্ব / 22.32; 88.67

ইতিহাসসম্পাদনা

ক্যানিং মহকুমার মূল স্থান ক্যানিং একটি সুপ্রাচীন জনপদ যা গড়ে উঠেছিল বড়লাট লর্ড ক্যানিং এর নামানুসারে। মাতলা নদীর তীরে এই জায়গাটি বর্তমানে সুন্দরবনের প্রবেশদ্বার নামে খ্যাত। ভারতবর্ষের তৃতীয় শহর হিসেবে ক্যানিং এ রেলপথ স্থাপন হয় তৎকালীন ক্যানিং বন্দরের সুবিধার্থে ১৮৬২-৬৩ সালে। উল্লেখ্য এ রাজ্যের ইতিহাসে ক্যানিংই ছিল প্রথম পুরশহর। পরে সেই তকমা মুছে যায়। স্বাধীনতার পরে মহকুমা শহর হিসাবে গড়ে উঠলেও পুরসভার তকমা এখনও ফিরে পায়নি এই শহর। লর্ড ক্যানিং এর একটি বাড়ি ক্যানিং শহরে এখোনো বর্তমান। এই বাড়িটি সে যুগের প্রশাসনিক ভবন হিসেবে ব্যবহৃত হতো।[১]

 
লর্ড ক্যানিং এর কুঠি, ক্যানিং শহর

এলাকাসম্পাদনা

ক্যানিং মহকুমায় চারটি ব্লক রয়েছে। এগুলি হল: বাসন্তী, ক্যানিং-১, ক্যানিং-২ ও গোসাবা। এই ব্লকগুলির অধীনে মোট ৫১টি গ্রাম পঞ্চায়েত রয়েছে।[২] এই চারটি ব্লকের মধ্যে একমাত্র শহরাঞ্চল ক্যানিং পশ্চিমের ক্যানিং টাউন শহর।।[৩]

ব্লকসম্পাদনা

বাসন্তী ব্লকসম্পাদনা

বাসন্তী ব্লক ১৩টি গ্রাম পঞ্চায়েত নিয়ে গঠিত। এগুলি হল: আমঝরা, চুনাখালি, কাঁঠালবেড়িয়া, উত্তর মোকামবেড়িয়া, বাসন্তী, ফুলমালঞ্চ, মসজিদবাটী, ভারতগড়, ঝড়খালি, নফরগঞ্জ, চারাবিদ্যা, জ্যোতিষপুর ও রামচন্দ্রখালি।[২] বাসন্তী ব্লকের একমাত্র থানা।[৪] ব্লকের সদর সোনাখালি[৫]

ক্যানিং-১ ব্লকসম্পাদনা

ক্যানিং-১ ব্লক দশটি গ্রাম পঞ্চায়েত নিয়ে গঠিত। এগুলি হল: বাঁশরা, গোপালপুর, মাতলা-১, তালদি, দরিয়া, হাতপুকুরিয়া, মাতলা-২, দিঘিরপাড়, ইটখোলা ও নিকারিঘাটা।[২] ব্লকটি ক্যানিং জেলা ও জীবনতলা থানার অন্তর্গত।[৪] ক্যানিং টাউন ব্লকের ও বাঁশরা (গৌড়দহ ও ঘুটিয়ারী শরীফ)সদর।।[৫]

ক্যানিং-২ ব্লকসম্পাদনা

ক্যানিং-২ ব্লক নয়টি গ্রাম পঞ্চায়েত নিয়ে গঠিত। এগুলি হল: আঠারোবাঁকি, কালিকাতলা, সারেঙ্গাবাদ, দেউলি-১, মাঠেরদিঘি, তাম্বুলদহ-১, দেউলি-২, নারায়ণপুর ও তাম্বুলদহ-২।[২] ব্লকটি ক্যানিং ও কলকাতার লেদার কমপ্লেক্স থানার অন্তর্গত।[৪] ক্যানিং টাউন ব্লকের সদর।[৫]

গোসাবা ব্লকসম্পাদনা

গোসাবা ব্লক ১৬টি গ্রাম পঞ্চায়েত নিয়ে গঠিত। এগুলি হল: আমতলি, ছোটো মোল্লাখালি,বড়ো মোল্লাখালি,পাখিরালা, লাহিড়ীপুর, রাঙাবেলিয়া, বালি-১, গোসাবা, পাঠানখালি, সাতজেলিয়া, বালি-২, কচুখালি, রাধানগর-তারানগর, শম্ভুনগর, বিপ্রদাসপুর ও কুমিরমারি।[২] ব্লকটি গোসাবা থানার অন্তর্গত।[৪] গোসাবা ব্লকের সদর।[৫] বর্তমানে গোসাবা ব্লকটি গোসাবা এবং সুন্দরবন কোষ্টাল এই দুটি থানার অন্তর্গত।

বিধানসভা কেন্দ্রসম্পাদনা

সীমানা নির্ধারণ কমিশনের সুপারিশ ক্রমে পশ্চিমবঙ্গের পরিবর্তিত বিধানসভা কেন্দ্র বিন্যাসে গোসাবা ব্লক ও বাসন্তী ব্লকের চুনাখালি ও মসজিদবাটী গ্রাম পঞ্চায়েতদুটি নিয়ে গোসাবা বিধানসভা কেন্দ্র গঠিত। বাসন্তী ব্লকের অবশিষ্ট গ্রাম পঞ্চায়েত এবং ক্যানিং-২ ব্লকের আঠারোবাঁকি গ্রাম পঞ্চায়েত নিয়ে বাসন্তী বিধানসভা কেন্দ্র গঠিত। ক্যানিং-১ ব্লক এবং ক্যানিং-২ ব্লকের নারায়ণপুর গ্রাম পঞ্চায়েত নিয়ে ক্যানিং পশ্চিম বিধানসভা কেন্দ্র গঠিত। ক্যানিং-২ ব্লকের অবশিষ্ট সাতটি গ্রাম পঞ্চায়েত নিয়ে ক্যানিং পূর্ব বিধানসভা কেন্দ্র গঠিত। গোসাবা, বাসন্তী ও ক্যানিং পশ্চিম বিধানসভা কেন্দ্রগুলি তফসিলি জাতি প্রার্থীদের জন্য সংরক্ষিত। মহকুমার চারটি বিধানসভা কেন্দ্রই জয়নগর লোকসভা কেন্দ্রের(পরিকল্পিত ক্যানিং-এর) অন্তর্গত। উল্লেখ্য, এই লোকসভা কেন্দ্রটিও তফসিলি জাতি প্রার্থীদের জন্য সংরক্ষিত।।[৬]

যোগাযোগসম্পাদনা

 
মাতলা সেতু, ক্যানিং

সুন্দরবনের প্রবেশদ্বার ক্যানিং কলকাতার সাথে ট্রেনপথে ও সড়কপথ দ্বারা সুসংযুক্ত। শিয়ালদহ দক্ষিণ শাখা হতে ক্যানিং লোকালে ক্যানিং আসা যায়। বর্তমানে মাতলা নদীর ওপর ক্যানিং - ঝড়খালি রাস্তায় সেতু তৈরীর ফলে সুন্দরবনে যাত্রী পরিষেবা ভাল হয়েছে।

চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানসম্পাদনা

১। ক্যানিং মহকুমা হাসপাতাল।

২। Canning Rotary Club (Netralaya)।

৩। ঘুটিয়ারী শরীফ সাস্থ্য কেন্দ্র।

৪। গোসাবা হাসপাতাল।।

পাদটীকাসম্পাদনা

  1. সামসুল হুদা, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা (১৯ মার্চ ২০১৫)। "কোনো শিল্প গড়ে উঠলোনা"। আনন্দবাজার পত্রিকা। সংগ্রহের তারিখ ৪.০১.২০১৭  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  2. "Directory of District, Sub division, Panchayat Samiti/ Block and Gram Panchayats in West Bengal, March 2008"West Bengal। National Informatics Centre, India। ২০০৮-০৩-১৯। ২০০৯-০২-২৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-১২-২৪ 
  3. "District Wise List of Statutory Towns( Municipal Corporation,Municipality,Notified Area and Cantonment Board) , Census Towns and Outgrowths, West Bengal, 2001"। Census of India, Directorate of Census Operations, West Bengal। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-১২-২৪ 
  4. "List of Districts/C.D.Blocks/ Police Stations with Code No., Number of G.Ps and Number of Mouzas"। Census of India, Directorate of Census Operations, West Bengal। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-১২-২৪ 
  5. "Contact details of Block Development Officers"South 24 Parganas district। Panchayats and Rural Development Department, Government of West Bengal। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-১২-২৭ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  6. "Press Note, Delimitation Commission" (PDF)Assembly Constituencies in West Bengal। Delimitation Commission। পৃষ্ঠা 12–13,24। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০১-১৪