প্রধান মেনু খুলুন

কোকোস (কিলিং) দ্বীপপুঞ্জ

দ্বীপপুঞ্জ

কোকোস দ্বীপপুঞ্জ অস্ট্রেলীয় বাহ্যিক সীমানার মধ্যে ভারত মহাসাগর সমন্বয়ে গঠিত একটি ছোট দ্বীপমালা। অস্ট্রেলিয়া ও শ্রীলঙ্কা এবং কাছাকাছি ইন্দোনেশীয় দ্বীপ সুমাত্রার প্রায় মাঝপথে এই দ্বীপটি অবস্থিত। এই দ্বীপটি দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া এবং দক্ষিণ গোলার্ধের মধ্যবর্তী একটি অংশ। ১৯৫৫ সালে সরকারি সীমানার এই দ্বীপের দুইটি নামকরণ করা হয়েছিল; যা হলো কোকোস দ্বীপপুঞ্জ বা কিলিং দ্বীপ

কোকোস (কিলিং) দ্বীপপুঞ্জ
Pulu Kokos (Keeling)  (ভাষা?)
Wilayah Kepulauan Cocos (Keeling)  (মালয়)
পতাকা
নীতিবাক্যMaju Pulu Kita  (ভাষা?)
"আমাদের দ্বীপ এগিয়ে"
অবস্থা বাহ্যিক অঞ্চল
রাজধানীপশ্চিম আইল্যান্ড
বৃহত্তম গ্রাম বানটাম (হোম আইল্যান্ড)
সরকারি ভাষা নেই
ভাষা মালায়, ইংরেজি
 •  মোট ১৪ কিমি
৫.৩ বর্গ মাইল
 •  জল/পানি (%)
জনসংখ্যা
 •  ২০১৬ আদমশুমারি ৫৪৪ (২০১৬) [১]
 •  ঘনত্ব ৪৩/কিমি (এন/এ)
১১২/বর্গ মাইল
মুদ্রা অস্ট্রেলিয়ান ডলার (এইউডি)
সময় অঞ্চল সিসিটি (ইউটিসি+০৬:৩০)
কলিং কোড ৬১ ৮৯১
ইন্টারনেট টিএলডি .সিসি

পরিচ্ছেদসমূহ

নামকরণসম্পাদনা

কোকোস দ্বীপপুঞ্জ ১৬২২ সালে আবিস্কৃত হয় এবং কিলিং দ্বীপ ১৭০৩ সালে খোঁজ পাওয়া যায়, পরবর্তীতে ১৮০৫ সালে কোকোস দ্বীপপুঞ্জ এবং কিলিং দ্বীপ মিলিত হয়ে ১৯ শতকে একটি যৌথ দ্বীপ রাষ্ট্র গঠন করে, তার নামকরণ করা হয় কোকোস–কিলিং দ্বীপ[২] কোকোস দ্বীপে প্রচুর পরিমাণ নারকেল গাছ জন্মে থাকে এবং ১৯৫৫ সালে সরকারিভাবে কোকোস দ্বীপপুঞ্জ নামকরণ করা হয়।[৩][৪][৫][৬]

ইতিহাসসম্পাদনা

আবিষ্কার এবং প্রারম্ভিক ইতিহাসসম্পাদনা

 
ঐতিহাসিক কম্পাস, চার্ট কোকোস দ্বীপপুঞ্জ[৭]

১৬০৯ সালে এই দ্বীপমালা আবিষ্কৃত হয়েছিল। ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি তৎকালীন অধিনায়ক উইলিয়াম কিলিং সর্বপ্রথম এই দ্বীপের সন্ধান করেছিলেন।[৮]

অর্থনীতিসম্পাদনা

কোকোস দ্বীপপুঞ্জে জনসংখ্যা প্রায় ৬০০ জন। সেখানে একটি ছোট এবং ক্রমবর্ধমান পর্যটন শিল্পের জল-ভিত্তিক বা প্রকৃতি কার্যক্রমের উপর দৃষ্টি নিবদ্ধ করা হয়। ২০১৬ সালে একটি সৈকত দ্বীপের নামে নামকরণ করা হয় সেরা সৈকত।[৯][১০]

স্থানীয়রা ছোট ছোট বাগান এবং মাছ ধরার অবদানে তারা খাদ্য সরবরাহ করে থাকে কিন্তু অধিকাংশ খাদ্য এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য অস্ট্রেলিয়া বা অন্য অঞ্চল থেকে আমদানি করা হয়।

কোকোস দ্বীপপুঞ্জ সমবায় সমিতি লিমিটেড নির্মাণ শ্রমিক, মাল খালাসের ভাড়া ও কর্মী অপারেশন, পর্যটন বিভাগে অন্যদের নিয়োগ দিয়ে থাকে। ২০১১ সালের গননার অনুসারে, এই দ্বীপপুঞ্জে বেকারত্বের হার ৬.৭%। [১১]

কৌশলগত গুরুত্বসম্পাদনা

টেলিভিশনসম্পাদনা

কোকোস দ্বীপপুঞ্জে ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়া উপগ্রহের মাধ্যমে ডিজিটাল টিভি চ্যানেল সম্প্রচার করা হয় [১২]

শিক্ষা পদ্বতিসম্পাদনা

কোকোস দ্বীপপুঞ্জে একটি স্কুল দ্বীপমালা, কোকোস দ্বীপপুঞ্জ জেলা উচ্চ বিদ্যালয়, পশ্চিম দ্বীপ ক্যাম্পাস উপর অবস্থিত, এখানে কিন্ডারগার্টেন থেকে ১০ম শ্রেণী পর্যন্ত শিক্ষা প্রদান করা হয়ে থাকে এবং অন্যান্য হোম দ্বীপ কিন্ডারগার্টেনে প্রথম থেকে ৬ষ্ঠ শ্রেণী পর্যন্ত শিক্ষা প্রদান করা হয়ে থাকে। এই স্কুলগুলো পশ্চিম অস্ট্রেলিয়ার ডিপার্টমেন্ট অব এডুকেশন (সিআইডিএইচএস)-এর নিতিমালা অনুসরণ করে শিক্ষা প্রদান করে থাকে। স্কুলগুলোতে কোকাস, মালয় এবং ইংরেজি ভাষার সাহায্যে কনিষ্ঠ কিন্ডারগার্টেন শিশুদের প্রাক-প্রাথমিক ও প্রাথমিক শিক্ষা প্রদান করা হয়।

চিত্র সমাহারসম্পাদনা

আরও দেখুনসম্পাদনা

  • কাগজের মুদ্রা এর কোকোস দ্বীপপুঞ্জ
  • কোকোস মালয়দের
  • সূচক, কোকোস দ্বীপপুঞ্জ-সম্পর্কিত প্রবন্ধ
  • রাজা কোকোস দ্বীপপুঞ্জ
  • পার্ল দ্বীপ (Isla de কোকোস, পানামা; কোকোস দ্বীপকোস্টা রিকা).

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. https://www.aph.gov.au/About_Parliament/Parliamentary_Departments/Parliamentary_Library/FlagPost/2017/June/Census_2016_-_Summary_of_results
  2. Woodroffe, C.D.; Berry, P.F. (ফেব্রুয়ারি ১৯৯৪)। Scientific Studies in the Cocos (Keeling) Islands: An Introduction। Atoll Research Bulletin। National Museum of Natural History। পৃষ্ঠা 1–2। 
  3. "Dynasties: Clunies-Ross"www.abc.net.au। ৩১ আগস্ট ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০১-০৬ 
  4. Horsburgh, James (১৮৪১)। "Islands to the Southward and South-eastward of Java; The Keeling or Cocos Islands"The India directory, or, Directions for sailing to and from the East Indies, China, Australia, and the interjacent ports of Africa and South America: comp. chiefly from original journals of the honourable company's ships, and from observations and remarks, resulting from the experience of twenty-one years in the navigation of those seas (5th সংস্করণ)। W.H. Allen and Co.। পৃষ্ঠা 141–2। 
  5. Ross, J. C. (মে ১৮৩৫)। "The Cocos' Isles"The Metropolitan। Peck and Newton। পৃষ্ঠা 220। 
  6. Weber, Max Carl Wilhelm; Weber, Lieven Ferdinand de Beaufort, Max Wilhelm Carl (১৯১৬)। The Fishes of the Indo-australian Archipelago। Brill Archive। পৃষ্ঠা 286। সংগ্রহের তারিখ ২৬ আগস্ট ২০১৫ 
  7. Nationaal Archief, The Hague, archive 4.VEL inventorynumber 338
  8. Pulu Keeling National Park Management Plan। Australian Government। ২০০৪। আইএসবিএন 0-642-54964-8 
  9. Jackson, Belinda (৪ ডিসেম্বর ২০১৬)। "Cossies Beach, Cocos (Keeling) Islands: Beach expert Brad Farmer names Australia's best beach 2017"traveller.com.auFairfax Media। সংগ্রহের তারিখ ৪ ডিসেম্বর ২০১৬ 
  10. Bonnor, James (২২ আগস্ট ২০১৬)। "Australia appoints Brad Farmer to beach ambassador role"www.surfersvillage.com। XTreme Video। ২০ ডিসেম্বর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ ডিসেম্বর ২০১৬ 
  11. "Cocos (Keeling) Islands : Region Data Summary" 
  12. "List of licensed broadcasting transmitters"। ACMA। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ডিসেম্বর ২০১৩ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

সংস্করণসম্পাদনা