প্রধান মেনু খুলুন

কূটনৈতিক পদমর্যাদা (ইংরেজি: Diplomatic rank) হচ্ছে আন্তর্জাতিক সম্পর্ক ও কূটনীতিবিদ্যার একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। সাধারণ অর্থে, একটি দেশের কূটনৈতিক মিশনে অবস্থানকারী সরকারী ও বেসরকারী ব্যক্তিবর্গের পদমর্যাদাকেই কূটনৈতিক পদমর্যাদা নামে অভিহিত করা হয়ে থাকে। ১৯৬১ সালে অষ্ট্রিয়ার ভিয়েনাতে কূটনৈতিক সম্পর্ক সংক্রান্ত একটি সম্মেলনে কূটনৈতিক মিশনের পদমর্যাদা সর্ম্পকে বলা হয়েছে।

সাধারণ ইউরোপীয় কূটনৈতিক পদমর্যাদাসম্পাদনা

১৮১৫ সালের কংগ্রেস অব ভিয়েনার মাধ্যমে কূটনৈতিক পদমর্যাদার গুরুত্ব দেয়া হয়।

  • রাষ্ট্রদূত
  • বিশেষ ক্ষমতা সম্পন্ন মন্ত্রী ও বিশেষ কূটনৈতিক প্রতিনিধি
  • চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স

আধুনিক কূটনৈতিক পদমর্যাদাসম্পাদনা

১৯৬১ সালের ভিয়েনা সম্মেলনে আধুনিক কূটনৈতিক পদমর্যাদা নির্ধারন করা হয়।

  • রাষ্ট্রদূত
  • উপরাষ্ট্রদূত, কূটনৈতিক মন্ত্রী
  • চার্জ দ্য অ্যাফের্য়াস

এছাড়াও নিম্নোক্ত শব্দগুলো ব্যবহার করা হয় -

  • ফার্ষ্ট সেক্রেটারী
  • সেকেন্ড সেক্রেটারী
  • থার্ড সেক্রেটারী
  • অ্যাটাশে

ব্রিটিশ কমনওয়েলথভুক্ত দেশসমূহের রাষ্ট্রদূতদের হাই কমিশনার বলা হয়ে থাকে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. পরিবর্তনশীল বিশ্বে আন্তর্জাতিক আইন, ড: মিজানুর রহমান, পলল প্রকাশনী, ঢাকা। ২০১০