কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন

কুমিল্লা শহরের স্থানীয় সরকার সংস্থা

কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন বাংলাদেশের একটি সিটি করপোরেশন প্রশাসন ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান। এই প্রশাসন কুমিল্লা জেলার কেন্দ্রে অবস্থিত কুমিল্লা মহানগরীর উন্নয়ন ও রক্ষনাবেক্ষণ কর্মকান্ড পরিচালনা করে থাকে।

কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন
ধরন
ধরন
এককক্ষ
ইতিহাস
শুরু১০ জুলাই ২০১১ (2011-07-10)
নেতৃত্ব
মেয়রমনিরুল হক সাক্কু, বিএনপি
নির্বাচন
ভোটদান ব্যবস্থাএফপিটিপি
সর্বশেষ নির্বাচন৩০ মার্চ ২০১৭
সভাস্থল
নগর ভবন (সাবেক পৌর ভবন)
কুমিল্লা নগর ভবন

এই সিটি কর্পোরেশনের কার্যক্রম প্রায় ৫৩ দশমিক ০৪ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের ২৭টি ওয়ার্ড বিশিষ্ট [১] কুমিল্লা মেগাসিটির মধ্যে বিস্তৃত, যার আওতায় পাঁচ লক্ষাধিক মানুষ বসবাস করে। এই প্রতিষ্ঠানটিতে আগে কুমিল্লা পৌরসভা ও কুমিল্লা সদর দক্ষিণ পৌরসভা নামে দুটি পৌরসভা ছিল। [১০ জুলাই, ২০১১ তারিখে বাংলাদেশের স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় এক অধ্যাদেশ জারি করে প্রশাসন পৌরসভা দুটিকে একটি সিটি কর্পোরেশনের মর্যাদা দেয়।[২]

কোর্ট রোড, কুমিল্লা শহরের একটি প্রধান সড়ক যা পূর্বে ঐতিহাসিক গ্র্যান্ড ট্রাংক রোডের একটি অংশ ছিল। অধুনা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক নির্মিত হওয়ার আগে এটি ছিল চট্টগ্রাম বন্দর সহ দক্ষিণ পূর্ব বাংলাদেশের সাথে দেশের বাকি অংশের একমাত্র সংযোগ সড়কের অংশ।

ইতিহাস ও আত্মপ্রকাশসম্পাদনা

১৭৯০ সালে তৎকালীন ত্রিপুরা জেলা প্রশাসন গঠনের মধ্য দিয়ে আজকের কুমিল্লা পৌর প্রশাসনের ইতিহাস শুরু হয়েছিল। ১৯৪৭ সালের দেশ বিভাগের সময়ে মূল ত্রিপুরা জেলা ভারতের নব গঠিত ত্রিপুরা রাজ্যে অন্তর্ভুক্ত হয় এবং তৎকালীন পাকিস্তানের অন্তর্ভুক্ত কুমিল্লা অংশে নতুন কুমিল্লা জেলা প্রশাসন প্রতিষ্ঠিত হয়। অধুনা ব্রাহ্মণবাড়িয়াচাঁদপুর জেলা তখন কুমিল্লা জেলার অন্তর্ভুক্ত দুটি উপ প্রশাসনের আওতাধীন ছিল।

১৮৯০ দশকে মাঝামাঝি সময়ে প্রতিষ্ঠিত কুমিল্লা পৌরসভা ছিল কুমিল্লা পৌর শহরের প্রথম প্রশাসনিক প্রতিষ্ঠান। এটির নির্বাহী প্রধান নাগরিকদের সরাসরি ভোটে নির্বাচিত হতেন।

সিটি কর্পোরেশন আত্মপ্রকাশের আগে কুমিল্লা পৌর শহর প্রায় ১২৫ বছরের অধিক সময় যাবত পৌরসভার দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়ে আসছিল। এই সময়ে কুমিল্লার রাজনৈতিক ও ব্যবসায়িক গুরুত্ব এবং জনসংখ্যা উভয়ই বৃদ্ধি পেয়েছে। এই অবস্থায় ২০ আগস্ট, ২০০৯ তারিখে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের কাছে কুমিল্লা পৌরসভা ও কুমিল্লা সদর দক্ষিণ পৌরসভাকে সিটি কর্পোরেশনে রূপান্তরের জন্য কুমিল্লা জেলা প্রশাসনের তরফ থেকে একটি আবেদন পাঠানো হয়।[২]

এই আবেদনের ভিত্তিতে ৪ মার্চ, ২০১১ তারিখে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের এক অভ্যন্তরীণ বৈঠকে বিদ্যমান পৌরসভা প্রশাসনগুলোর মাঝে গুরুত্বপূর্ণ চারটিকে সিটি কর্পোরেশনে উত্তীর্ণ করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।[৩]

২৩ জুন, ২০১১ তারিখে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের এক আনুষ্ঠানিক ঘোষণার মধ্য দিয়ে কুমিল্লা পৌরসভা ও কুমিল্লা সদর দক্ষিণ পৌরসভার অস্তিত্ব বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়। এই সিদ্ধান্তটি ছিল কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন গঠনের উদ্দেশ্যে চূড়ান্ত সরকারি পদক্ষেপ।[৪]

পরে [১০ জুলাই, ২০১১ তারিখে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে থেকে এক প্রজ্ঞাপন জারি করে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন গঠন ও এর কার্যক্রম আরম্ভের ঘোষণা দেয়া হয়।[২]

অবস্থান ও সীমানাসম্পাদনা

কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার মধ্যাংশে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের অবস্থান। এর পশ্চিমে দুর্গাপুর দক্ষিণ ইউনিয়নদুর্গাপুর উত্তর ইউনিয়ন, উত্তরে গোমতী নদীআমড়াতলী ইউনিয়ন, উত্তর-পূর্বে পাঁচথুবী ইউনিয়ন, পূর্বে জগন্নাথপুর ইউনিয়ন এবং দক্ষিণে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার চৌয়ারা ইউনিয়নবিজয়পুর ইউনিয়ন অবস্থিত।

ওয়ার্ডসমূহসম্পাদনা

ওয়ার্ড নং এলাকা[৫] সীমানা[৫] মহিলা কাউন্সিলর (সংরক্ষিত আসন)[৬] ওয়ার্ড কাউন্সিলর[৬]
১নং ওয়ার্ড ভাটপাড়া মৌজা, বিষ্ণুপুর মৌজা উত্তরে- গোমতী নদীর আইল,

পূর্বে- বিষ্ণুপুর ভাটপাড়া রোড (আবু জাহিদ সড়ক), দক্ষিণে- সিমিটারী রোড, পশ্চিমে- কালিয়াজুরী রোড ও কালিয়াজুরী মৌজার সীমানা।

কাউছারা বেগম কাজী গোলাম কিবরিয়া
২নং ওয়ার্ড ছোটরা মৌজা উত্তরে- সিমিটারী রোড,

পূর্বে- জর্জকোট রোড, দক্ষিণে- ঢাকা চট্টগ্রাম ট্যাংক রোড, পশ্চিমে- শহীদ সামছুল হক রোড এবং কালিয়াজুরী রাস্তা।

মাসুদুর রহমান মাসুদ
৩নং ওয়ার্ড কালিয়াজুরী মৌজা, রেইসকোর্স/ পুলিশ লাইন শাসনগাছা মৌজা (আংশিক) ও ছোটরা মৌজা (আংশিক) উত্তরে- ভাটপাড়া রাস্তা ও ভাটপাড়া মৌজার সীমানা,

পূর্বে- শহীদ সামছুল হক রোড ও কালিয়াজুরী রোড এবং বিষ্ণুপুর মৌজার সীমানা, দক্ষিণে- ঢাকা চট্টগ্রাম ট্যাংক রোড, পশ্চিমে- ধানমণ্ডি রোড হয়ে শাসনগাছা ডাক বাংলো রোড।

সরকার মাহমুদ জাবেদ
৪নং ওয়ার্ড কাপ্তান বাজার (বিষ্ণুপুর মৌজা), জাহান নগর ও ইসলামপুর (ছোটরা মৌজার অংশ) উত্তরে- গোমতী নদীর আইল,

পূর্বে- মরা গোমতী নদীর পূর্ব প্রান্ত ডুমুরিয়া চানপুর মৌজা, দক্ষিণে- দোলানী কম্পাউন্ড রোড ও গোমতী নদী বাঁধ (জলকাপ পর্যন্ত), পশ্চিমে- জজকোর্ট রোড ও আবু জাহিদ সড়ক।

নাদিয়া নাসরিন মোহাম্মদ আবদুল জলিল
৫নং ওয়ার্ড ছোটরা মৌজা (আংশিক), পুরাতন চৌধুরী পাড়া, মোগলটুলী (বজ্রপুর ও মনোহরপুর মৌজা), গাংচর (আংশিক), গোয়ালপট্টি (বজ্রপুর মৌজা) রাজগঞ্জ, রাজবাড়ী (মনোহরপুর মৌজা) উত্তরে- দোলানী কম্পাউন্ড রোড ও গোমতী নদী বাঁধ (জলকাপ পর্যন্ত),

পূর্বে- জামতলা রাস্তা, গাংচর রাস্তা হয়ে পুরাতন গোমতী নদী পর্যন্ত, দক্ষিণে- শহীদ কবির উদ্দিন সড়ক হতে উজির দীঘির দক্ষিণ পাড় হয়ে সোনালী ব্যাংকের পূর্ব দিকের রাস্তা এ কে ফজলুল হক রোড ও ঢাকা-চট্টগ্রাম ট্র্যাঙ্ক রোড (জামতলা রাস্তার সংযোগ স্থল), পশ্চিমে- জজকোর্ট রোড ও শহীদ কবির উদ্দিন সড়ক।

সৈয়দ আবির আহমেদ
৬নং ওয়ার্ড গাংচর-অংশ (বজ্রপুর মৌজা), চানপুর-অংশ (চানপুর মৌজা), শুভপুর অংশ (শুভপুর মৌজা), চকবাজার, গংগাগঞ্জ (বজ্রপুর মৌজা) উত্তরে- চানপুর ও শুভপুর মৌজার অংশ, মরা গোমতী নদীর বাঁধ,

পূর্বে- এন কে বাহাদুর রোড, সুজানগর খানেকা রোড জবাইখানা হয়ে মরা গোমতী নদীর পূর্ব পাড়, দক্ষিণে- ঢাকা-চট্টগ্রাম ট্র্যাঙ্ক রোড, পশ্চিমে- জামতলা রাস্তা, গাংচর রাস্তা হয়ে পুরাতন গোমতী নদী পর্যন্ত (জলকাপ)।

মোহাম্মদ মোশাররফ হোসেন
৭নং ওয়ার্ড গোবিন্দপুর (গোবিন্দপুর মৌজা), অশোকতলা (নোনাবাদ কলোনী পুকুরের পশ্চিম অংশ, কান্দিরপাড় মৌজার অংশ) উত্তরে- নজরুল এভিনিউ ও ধর্মপুর রাস্তা,

পূর্বে- রামমালা রোড ও নোনাবাদ পুকুরের পশ্চিম পাড়, দক্ষিণে- টমছম ব্রীজ ও ড. আক্তার হামিদ খান রোড (কোটবাড়ী রোড), পশ্চিমে-রেললাইন এবং দৌলতপুর মৌজা।

উম্মে কুলসুম মোহাম্মদ শাহ আলম খান
৮নং ওয়ার্ড দ্বিতীয় কান্দিরপাড় (নোনাবাদ কলোনীর পুকুরের পূর্ব অংশ গোবিন্দপুর মৌজার অংশ) উত্তরে- নজরুল এভিনিউ, মদিনা মসজিদ রোড হয়ে কান্দিরপাড় লেন,

পূর্বে- লাকসাম রোড, দক্ষিণে- টমছম ব্রীজ ড. আকতার হামিদ খান রেডা (কোটবাড়ী রোড), পশ্চিমে- রামমালা রোড ও লোনাবাদ পুকুরের পশ্চিমপাড়।

মোহাম্মদ একরাম হোসেন
৯নং ওয়ার্ড বাগিচাগাঁও (কান্দিরপাড় ও ধর্মপুর মৌজার অংশ) উত্তরে- ঢাকা-চট্টগ্রাম ট্র্যাঙ্ক রোড,

পূর্বে- (বাগিচাগাঁও রাস্তা) লেঃ কর্ণেল মোস্তাক আহম্মেদ সড়ক, দক্ষিণে- নজরুল এভিনিউ, পশ্চিমে- রেলওয়ে স্টেশন রাস্তা।

জমির উদ্দিন খান
১০নং ওয়ার্ড ঝাউতলা (ছোটরা ও কান্দিরপাড় মৌজার অংশ), বাগিচাগাঁও (কান্দিরপাড় মৌজার অংশ) উত্তরে- ঢাকা-চট্টগ্রাম ট্র্যাঙ্ক রোড,

পূর্বে- শহীদ কবির উদ্দিন সড়ক ও লাকসাম রোড, দক্ষিণে- নজরুল এভিনিউ, মদিনা মসজিদ রোড হয়ে কান্দিরপাড় লেন, পশ্চিমে- (বাগিচাগাঁও রাস্তা) লেঃ কর্ণেল মোস্তাক আহমদ সড়ক।

রুমা আক্তার মোহাম্মদ মনজুর কাদের
১১নং ওয়ার্ড মনোহরপুর (মৌজার অংশ), ভিক্টোরিয়া কলেজ (বজ্রপুর মৌজার অংশ) উত্তরে- শহীদ কবির উদ্দিন সড়ক হতে উজির দীঘির দক্ষিণ পাড় হয়ে সোনালী ব্যাংকের পূর্ব দিকের রাস্তা ও এ কে ফজলুল হক রোড,

পূর্বে- রেজাশাহ বোগদাদী সড়ক (উত্তর চর্থা রোড), হোচ্ছামিয়া হাইস্কুলের উত্তর দিকের রাস্তা হয়ে নানুয়ারী দীঘির পশ্চিম উত্তর কোণ হয়ে ইউসুফ স্কুল রোড রাজগঞ্জ চৌমুহনী হয়ে শহীদ কবির উদ্দিন সড়ক, দক্ষিণে- সার্কুলার রোড, পশ্চিমে- কুমিল্লা লাকসাম রোড।

হাবিবুর আল-আমিন সাদী
১২নং ওয়ার্ড উত্তর চর্থা মৌজা ও বজ্রপুর মৌজার অংশ উত্তরে- ঢাকা-চট্টগ্রাম ট্র্যাঙ্ক রোড,

পূর্বে- সার্কুলার রোড (আশরাফ উদ্দিন চৌধুরী সড়ক) উত্তর চর্থা রোড, দক্ষিণে- সার্কুলার রোড (কামাল উদ্দিন চৌধুরী ও হোচ্ছাম হায়দার চৌধুরী সড়ক), পশ্চিমে- রেজাশাহ বোগদাদী সড়ক হোচ্ছামিয়া হাই স্কুলের উত্তর দিকের রাস্তা হয়ে নানুয়া দীঘির পশ্চিম উত্তর কোণ হয়ে ইউসুফ স্কুল রোড রাজগঞ্জ চৌমুহনী।

মোহাম্মদ ইমরান
১৩নং ওয়ার্ড দক্ষিণ চর্থা উত্তরে- সার্কুলার রোড (কামাল উদ্দিন চৌধুরী ও হোচ্ছাম হায়দার চৌধুরী সড়ক,

পূর্বে- মুরাদপুর জিনার পুকুর পাড় হয়ে নওয়াব বাড়ী চৌমুহনী, দক্ষিণে- ড. আখতার হামিদ খান রোড/ ইপিজেড রোড, পশ্চিমে- কুমিল্লা লাকসাম রোড।

নুরজাহান আলম পুতুল মোহাম্মদ শাখাওয়াত উল্লাহ
১৪নং ওয়ার্ড মুরাদপুর (মৌজার অংশ) উত্তরে- সার্কুলার রোড কবুতর জলা ড্রেন হয়ে মুরাদপুর হাউজিং এস্টেট রোড,

পূর্বে- মুরাদপুর রাস্তা, মুরাদপুর হাউজিং রোড, দক্ষিণে- ড. আকতার হামিদ খান রোড/ অভয় আশ্রম রোড, পশ্চিমে- জিনার পুকুর পাড় রাস্তা হয়ে নওয়াববাড়ী চৌমুহনী।

মোহাম্মদ সেলিম খাঁন
১৫নং ওয়ার্ড কাশারীপট্টি ও মৌলভীপাড়া (বজ্রপুর মৌজা), ১ম মুরাদপুর (মহল্লা) উত্তরে- ঢাকা-চট্টগ্রাম ট্র্যাঙ্ক রোড,

পূর্বে- কাটাবিল মুরাদপুর হাউজিং এস্টেট রোড, দক্ষিণে- কবুতর জলা ড্রেন হয়ে হাউজিং এস্টেট রোড, পশ্চিমে- সার্কুলার রোড (আশরাফ উদ্দিন চৌধুরী সড়ক)।

সাইফুল বিন জলিল
১৬নং ওয়ার্ড সংরাইশ মৌজা, টিক্কারচর মৌজা উত্তরে- গোমতী নদীর আইল,

পূর্বে- জগন্নাথপুর সংরাইশ রোড, দক্ষিণে- বিবির বাজার রোড, সংরাইশ রোড (অংশ) এবং টিক্কারচর শ্মশান ও কবরস্থান যাওয়ার রাস্তা, পশ্চিমে- মরা গোমতী নদীর পূর্ব পাড়া ও নলুয়াপাড়া রোড।

নেহার বেগম মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন বাবুল
১৭নং ওয়ার্ড সুজাগঞ্জ মৌজা তেলিকোণা মহল্লা (২য় মুরাদপুর মৌজা), পাথুরিয়া পাড়া (দুর্গাপুর মৌজা) উত্তরে- বিবির বাজার রোড, সংরাইশ রোড (অংশ এবং টিক্কারচর শ্মশান ও কবরস্থান যাওয়ার রাস্তা,

পূর্বে- দুর্গাপুর মৌজার অংশ, দক্ষিণে- ঢাকা-চট্টগ্রাম ট্র্যাঙ্ক রোড (গোধির পুকুর পাড় রাস্তা), পশ্চিমে- এন কে বাহাদুর রোড, সুজানগর খানেকা রোড জবাইখানা হয়ে মরা গোমতী নদীর পূর্ব পাড়।

মোহাম্মদ সোহেল
১৮নং ওয়ার্ড হজরত পাড়া (মুরাদপুর মৌজার অংশ), হাউজিং এস্টেট ও নুরপুর (নুরপুর মৌজা), কাটাবিল (মুরাদপুর মৌজা) উত্তরে- ঢাকা-চট্টগ্রাম ট্র্যাঙ্ক রোড (গোধির পুকুর পাড় রাস্তা),

পূর্বে- বারাপাড়া মৌজা ও কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ রোড, দক্ষিণে- অভয় আশ্রম, মেডিকেল কলেজ রোড, পশ্চিমে- মুরাদপুর রাস্তা ও কাটাবিল হাউজিং রোড।

আফসান মিয়া
১৯নং ওয়ার্ড নেউরা, রাজাপাড়া,রসুলপুর, নোয়াপাড়া উম্মে সালমা মোহাম্মদ জাকির হোসেন
২০নং ওয়ার্ড দিশাবন্দ, কাজিপাড়া,উনাইসার, লক্ষীনগর মোহাম্মদ ছিদ্দিকুর রহমান
২১নং ওয়ার্ড শাকতলা, আশ্রাফপুর, হালুয়াপাড়া, রামনগর, দৈয়ারা উত্তর, জাংগালিয়া কাজী মাহবুবুর রহমান
২২নং ওয়ার্ড কচুয়া,দৈয়ারা, লক্ষীপুর,রামপুর, শ্রীবল্লভপুর, খোদেজা বেগম মোহাম্মদ শাহ আলম মজুমদার
২৩নং ওয়ার্ড জয়পুর,মঠপুস্কুরিনী, নন্দন পুর, বাতা বাড়িয়া,চাংগিনী। মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন
২৪নং ওয়ার্ড কোটবাড়ি, পিরোজপুর, সালমানপুর, বাগমারা মোহাম্মদ ফজল খান
২৫নং ওয়ার্ড দয়াপুর, তারপাইয়া,ডুমুরিয়া, কালকিংকরপুর, ধনপুর,চৌয়ারা রুবি আক্তার মোহাম্মদ এমদাদ উল্লাহ
২৬নং ওয়ার্ড গোয়ালমথন,মহেশপুর,বল্লভপুর,বাউবন্দ,কালিকাপুর মোহাম্মদ আবদুস সাত্তার
২৭নং ওয়ার্ড চৌয়ারা, মাটিয়ারা, উলুরচর, ধনাইতরী, কমলাপুর মোহাম্মদ আবুল হাসান

জনপ্রতিনিধিসম্পাদনা

সংসদীয় আসন জাতীয় নির্বাচনী এলাকা[৭] সংসদ সদস্য[৮][৯][১০][১১][১২] রাজনৈতিক দল
২৫৪ কুমিল্লা-৬ কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলা, কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন এবং কুমিল্লা সেনানিবাস আ ক ম বাহাউদ্দিন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "সীমানা জটিলতায় কুমিল্লা সিটি নির্বাচন অনিশ্চিত"। দৈনিক মানবজমিন। ২৪ অক্টোবর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৭-১১ 
  2. Comilla Now A City Corporation [কুমিল্লা এখন সিটি কর্পোরেশন], বাংলাদেশ ফার্স্ট ডট কম, ১১ জুলাই ২০১১, সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৭-১১ 
  3. Four new city corporation to be set up, দ্য ডেইলি স্টার, ৪ মার্চ ২০১১, সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৭-১১ 
  4. কুমিল্লা সিটি করপোরেশন ঘোষণা: শহরে আনন্দ-উল্লাস, শীর্ষ নিউজ, ১১ জুলাই ২০১১, সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৭-১১ 
  5. https://m.facebook.com/story.php?story_fbid=1608451532788395&id=1608382572795291
  6. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ১৪ আগস্ট ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ আগস্ট ২০১৯ 
  7. "Election Commission Bangladesh - Home page"www.ecs.org.bd 
  8. "বাংলাদেশ গেজেট, অতিরিক্ত, জানুয়ারি ১, ২০১৯" (PDF)ecs.gov.bdবাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন। ১ জানুয়ারি ২০১৯। ২ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ জানুয়ারি ২০১৯ 
  9. "সংসদ নির্বাচন ২০১৮ ফলাফল"বিবিসি বাংলা। ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  10. "একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ফলাফল"প্রথম আলো। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  11. "জয় পেলেন যারা"দৈনিক আমাদের সময়। সংগ্রহের তারিখ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  12. "আওয়ামী লীগের হ্যাটট্রিক জয়"সমকাল। সংগ্রহের তারিখ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা