প্রধান মেনু খুলুন

কুকি (জাতিগোষ্ঠী)

ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী

কুকি, মায়ানমারে চিন নামে [১] এবং ভারতের মিজোরাম রাজ্যে মিজো নামে পরিচিতরা হচ্ছে তিব্বতী-বর্মী জাতিগোষ্ঠীর একটি ধারা যারা ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চল জুড়ে, মায়ানমারের উত্তর-পশ্চিমাংশে এবং বাংলাদেশের পার্বত্য চট্টগ্রাম এলাকায় বিস্তৃত। উত্তর-পূর্ব ভারতের কেবলমাত্র অরুণাচল প্রদেশ ব্যতীত সকল রাজ্যের তারা ছড়িয়ে রয়েছে। এই জনগোষ্ঠীর এভাবে আন্তর্জাতিক সীমানা ছাড়িয়ে ছড়িয়ে পড়ার মূল কারণ হচ্ছে ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক নীতি।[২] ভারতে কুকি জনগোষ্ঠীর প্রায় ৫০টি শাখা রয়েছে এবং এরা সেখান তফশিলি সম্প্রদায় হিসাবে চিহ্নিত।[৩] কুকিদের এই স্বীকৃতি তাদেরে উচ্চারিত উপভাষা এবং অঞ্চলের উপর ভিত্তি করে নির্ণয় করা হয়েছে।

কুকি / চিন
মোট জনসংখ্যা
৫ মিলিয়ন (আনু.)
উল্লেখযোগ্য জনসংখ্যার অঞ্চলসমূহ
ভাষা
বিভিন্ন কুকি ভাষা
ধর্ম
খ্রিষ্টান, সর্বপ্রাণবাদী, বৌদ্ধ, ইহুদি
সংশ্লিষ্ট জনগোষ্ঠী
নাগা, মণিপুরী
কুকি জনগোষ্ঠী অধ্যুষিত এলাকা।

মিজো শব্দটি 'মি' এবং 'জো' দুইটি শব্দ থেকে উৎপত্তি পায়। মিজো ভাষায় 'মি' অর্থ মানুষ এবং 'জো' অর্থ উচ্চভুমি এবং মিজো অর্থ হচ্ছে উচ্চভূমির মানুষ।

প্রখ্যাত কুকি/চিনসম্পাদনা

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. বর্মী: ချင်းလူမျိုး; এমএলসিটিএস: hkyang lu. myui:, উচ্চারিত: [tɕɪ́ɴ lù mjó]
  2. T. Haokip, 'The Kuki Tribes of Meghalaya: A Study of their Socio-Political Problems', in S.R. Padhi (Ed.). Current Tribal Situation: Strategies for Planning, Welfare and Sustainable Development. Delhi: Mangalam Publications, 2013, p. 85.
  3. "Alphabetical List of India's Scheduled Tribes" (PDF)। ১৭ এপ্রিল ২০১২ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ এপ্রিল ২০১২ 

বহি:সংযোগসম্পাদনা