কিজমম এসবিএস মিডিয়া হোল্ডিংসের বিভাগ এসবিএস মিডিয়ানেটের মালিকানাধীন দক্ষিণ কোরিয়ার শিশু এবং পরিবারদের জন্য একটি টেলিভিশন চ্যানেল। ২০০৩ থেকে ২০২২ সাল পর্যন্ত নেটওয়ার্কটির জায়গা মার্কিন চ্যানেল নিকেলোডিয়নের স্থানীয় সংস্করণের জায়গা ছিল, প্যারামাউন্ট নেটওয়ার্কস ইএমইএএর সাথে একটি চুক্তির পর সিজে ই&এমের কাছে স্থানান্তরিত হওয়ার আগে।

কিজমম
উদ্বোধন২০০৩; ২১ বছর আগে (2003) (নিকেলোডিয়ন হিসেবে)
৩০ জুন ২০২২; ২২ মাস আগে (2022-06-30) (কিজমম হিসেবে)
বন্ধ৩০ জুন ২০২২; ২২ মাস আগে (2022-06-30) (নিকেলোডিয়ন হিসেবে)
মালিকানাএসবিএস মিডিয়ানেট
দেশদক্ষিণ কোরিয়া
ভাষাকোরীয়
প্রচারের স্থানদেশজুড়ে
প্রধান কার্যালয়সিউল
ভ্রাতৃপ্রতিম
চ্যানেল(সমূহ)
এসবিএস এম
ওয়েবসাইটkizmom.sbs.co.kr

ইতিহাস সম্পাদনা

নিকেলোডিয়নের পটভূমি সম্পাদনা

সাধারণ চ্যানেলে নিকেলোডিয়নের অনুষ্ঠান সম্পাদনা

দক্ষিণ কোরিয়ায় নিকেলোডিয়নের কিছু মূল ধারাবাহিক, যেমন রাগর‍্যাটস, রকেট পাওয়ার, দ্য ওয়াইল্ড থর্নবেরিজ, স্পঞ্জবব স্কয়ারপ্যান্টস্‌, এবং ডোরা দ্য এক্সপ্লোরার, দেখা গিয়েছিল যা বর্তমানে ইবিএস১ এ (সরকারি সম্প্রচারক ইবিএস দ্বারা পরিচালিত)। জিমি নিউট্রন এমবিসিতে প্রচারিত হয়েছিল। নিক জুনিয়রের ব্লু'স ক্লুজ এর স্থানীয়করণ সংস্করণ কেবিএস২তে প্রচারিত হয়েছিল। একটিরও নিকেলোডিয়ন ব্র্যান্ড করা ব্লক না থাকতেও ধারাবাহিকগুলোর কোরীয় সংস্করণ সেই সম্প্রচারক দ্বারা (অথবা জন্য) প্রযোজিত।

জেইআই টিভিতে নিকেলোডিয়ন ব্লক সম্পাদনা

ভায়াকমের সাথে একটি চুক্তি বানানোর পর জেইআই টিভি (জেইআই কর্পোরেশন দ্বারা মালিকানাধীন একটি বিশেষত্ব টেলিভিশন চ্যানেল) বছর ধরে একটি নিকেলোডিয়ন আনুষ্ঠানিক ব্লক প্রচারিত করেছে।[১] প্রথমে এটি যে ধারাবাহিকগুলি প্রচারিত করেছে যা সাধারণ টেরেস্ট্রিয়াল টেলিভিশন চ্যানেলগুলিতে দেখানো হয়নি। পরে ইবিএসে প্রচারিত সেই ধারাবাহিকগুলোর নিজস্ব কোরীয় ডাব প্রচারিত করেছিল। সেই ডাবগুলো আরিরাং টিভির বিভাগ আরিরাং টিভি মিডিয়া দ্বারা প্রযোজিত।

স্কাইলাইফ দ্বারা নিক এশিয়ার বহন সম্পাদনা

২০০৩ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত ডিটিএইচ স্যাটেলাইট টেলিভিশন প্রোভাইডার স্কাইলাইফ নিকেলোডিয়নের দক্ষিণ-পূর্ব এশীয় সংস্করণ বহন করেছে। বহন চুক্তিটি বাড়ানোর জন্য স্কাইলাইফ এবং অন-মিডিয়ার সাথে আলোচনা অসফল হওয়ার পর, স্কাইলাইফ এর প্ল্যাটফর্মে টুনিভার্স (তখন অন-মিডিয়া দ্বারা মালিকানাধীন) প্রতিস্থাপন করার জন্য নিকেলোডিয়ন এশিয়া নির্বাচিত করেছে। ২০০৩ সালের জানুয়ারিতে পরীক্ষামূলক সম্প্রচার শুরু হয়, মার্চ মাসে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের আগে।[২] ২০০৫ সালে যেহেতু স্কাইলাইফ অ্যানিম্যাক্সের দক্ষিণ কোরীয় সংস্করণ উদ্বোধন করার জন্য সনি পিকচার্স টেলিভিশন ইন্টারন্যাশনালের সাথে চুক্তিতে পৌঁছেছে, এটি ঘোষণা করা হয়েছে যে ২০০৬ সালে প্ল্যাটফর্ম থেকে নিকেলোডিয়ন এশিয়া অপসারণ করা হবে।[৩] ২০১৪ সালের আগে স্কাইলাইফ নিকেলোডিয়নের দক্ষিণ কোরীয় সংস্করণ বহন করেনি।

চ্যানেলের উদ্বোধন সম্পাদনা

নিকেলোডিয়নের নিবেদিত দক্ষিণ কোরীয় সংস্করণ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার শুরু করে ২০০৫ সালের ১ আগস্টে, ২০০৫ সালের শেষে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের আগে। এটি অন-মিডিয়া (তখন অরায়ন গ্রুপ দ্বারা মালিকানাধীন) এবং এমটিভি নেটওয়ার্কস এশিয়ার মধ্যে একটি চুক্তির ফলাফলে। প্রাথমিকভাবে চ্যানেলটি নিক নামে ব্র্যান্ড করা ছিল, এবং শুধু কেবল টেলিভিশন প্রোভাইডারে উপলব্ধ ছিল। সেই সময়ের মধ্যে অন-মিডিয়ার টুনিভার্সে একটি নিকেলোডিয়ন ব্লক চালু হয়।

২০০৮ সালের নভেম্বরে চ্যানেলটি, এমটিভির সাথে, সি&এম কমিউনিকেশনের একটি বিভাগ হয়ে গেল, যখন অন-মিডিয়া অন মিউজিক নেটওয়ার্ক (যা পরে এমটিভি নেটওয়ার্কস কোরিয়ায় রূপান্তর হয়) এর ভাগের একটি শতাংশ বিক্রি করে, কিন্তু টুনিভার্সে নিকেলোডিয়ন ব্লকটি প্রচারিত হতে থাকলো। ২০১০ সালে চ্যানেলটি নিকেলোডিয়ন নামে পরিবর্তন হয়, নতুন লোগো ব্যবহার করার সাথে, যা আগের থেকেই যুক্তরাষ্ট্রে ব্যবহৃত।

২০১১ সালের সেপ্টেম্বরে এসবিএস, একটি বেসরকারি সম্প্রচারক, ভায়াকমের আনুষ্ঠানিক দক্ষিণ কোরীয় অংশীদার হল, পূর্ববর্তী দক্ষিণ কোরিয়ার মালিকদের কাছ থেকে এমটিভি নেটওয়ার্কস কোরিয়ায় ভাগ অধিগ্রহণ করা এবং যৌথ উদ্যোগ এসবিএস ভায়াকমের নাম পরিবর্তন করা। এর সাথে নিকেলোডিয়ন এসবিএসের একটি অংশ হয়ে গেলো।[৪][৫]

কিজমমে পরিবর্তন সম্পাদনা

২০২২ সালের ৩০ জুনে চ্যানেলটি কিজমম হিসেবে পরিবর্তন হয়, সাথে নিকেলোডিয়নের অনুষ্ঠানসমূহ সিজে ই&এমের স্ট্রিমিং সার্ভিস, টিভিইং, এবং ভ্রাতৃপ্রতিম নেটওয়ার্ক টুনিভার্সে স্থানান্তর হয়।[৬] সেই দিনে এমটিভি নাম আর না বহন করার ফলে এসবিএস এমটিভি এসবিএস এম নামে পরিবর্তন হয়।[৭]

আরও দেখুন সম্পাদনা

তথ্যসূত্র সম্পাদনা

  1. ""美채널 '니켈로디언' 제휴"" (কোরীয় ভাষায়)। নেইভার। সংগ্রহের তারিখ ১৭ মে ২০২২ 
  2. "스카이라이프 채널 대폭 개편" 
  3. "스카이라이프-Spti, 애니메이션 채널 합작사 설립" 
  4. "MTV 코리아·니켈로디언, SBS 계열로 재출범" (কোরীয় ভাষায়)। এসবিএস নিউজ। ৩০ আগস্ট ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ১৭ মে ২০২২ 
  5. গ্যারি রুসাক। "Viacom and SBS create Nickelodeon Korea"। কিডস্ক্রিন। সংগ্রহের তারিখ ১৭ মে ২০২২ 
  6. লি, সি-জিন (১৮ জুলাই ২০২২)। "Tooniverse to air hit Nickelodeon animated series"দ্য কোরিয়া হেরাল্ড। সংগ্রহের তারিখ ৭ মে ২০২৩ 
  7. "시사/이슈/유머 - 니켈로디언 코리아, SBS MTV 6월 30일 폐국"। সংগ্রহের তারিখ ৭ মে ২০২৩ 

বহিঃসংযোগ সম্পাদনা