কামারহাটি বিধানসভা কেন্দ্র

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা কেন্দ্র

কামারহাটি (বিধানসভা কেন্দ্র) ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার একটি বিধানসভা কেন্দ্র

কামারহাটি
বিধানসভা কেন্দ্র
কামারহাটি পশ্চিমবঙ্গ-এ অবস্থিত
কামারহাটি
কামারহাটি
কামারহাটি ভারত-এ অবস্থিত
কামারহাটি
কামারহাটি
পশ্চিমবঙ্গ
স্থানাঙ্ক: ২২°৪০′০″ উত্তর ৮৮°২২′০″ পূর্ব / ২২.৬৬৬৬৭° উত্তর ৮৮.৩৬৬৬৭° পূর্ব / 22.66667; 88.36667
দেশ ভারত
রাজ্যপশ্চিমবঙ্গ
জেলাউত্তর চব্বিশ পরগনা
কেন্দ্র নং.১১২
আসনখোলা
লোকসভা কেন্দ্র১৬.দমদম
নির্বাচনী বছর১৬০,৯৬৭ (২০১১)

এলাকাসম্পাদনা

ভারতের সীমানা পুনর্নির্ধারণ কমিশনের নির্দেশিকা অনুসারে, ১১১ নং পানিহাটি বিধানসভা কেন্দ্রটি ১ থেকে ১৬ এবং ২১ থেকে ৩৫ ওয়ার্ড গুলি কামারহাটি পুরসভা এর অন্তর্গত।[১]

কামারহাটি বিধানসভা কেন্দ্রটি ১৬ নং দমদম লোকসভা কেন্দ্র এর অন্তর্গত।[১]

বিধানসভার বিধায়কসম্পাদনা

নির্বাচনের
বছর
কেন্দ্র বিধায়ক রাজনৈতিক দল
১৯৬৭ কামারহাটি রাধিকা রঞ্জন ব্যানার্জী ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্ক্সবাদী) [২]
১৬৯ রাধিকা রঞ্জন ব্যানার্জী ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্ক্সবাদী) [৩]
১৯৭১ রাধিকা রঞ্জন ব্যানার্জী ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্ক্সবাদী) [৪]
১৯৭২ প্রদীপ কুমার পালিত ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস [৫]
১৯৭৭ রাধিকা রঞ্জন ব্যানার্জী ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্ক্সবাদী)[৬]
১৯৮২ রাধিকা রঞ্জন ব্যানার্জী ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্ক্সবাদী)[৭]
১৯৮৭ রাধিকা রঞ্জন ব্যানার্জী ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্ক্সবাদী)[৮]
১৯৯১ শান্তি ঘটক ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্ক্সবাদী)[৯]
১৯৯৬ শান্তি ঘটক ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্ক্সবাদী)[১০]
২০০১ মানস মুখার্জী ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্ক্সবাদী) [১১]
২০০৬ মানস মুখার্জী ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্ক্সবাদী)[১২]
২০১১ মদন মিত্র সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেস[১৩]
২০১৬ মানস মুখার্জী ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্ক্সবাদী)

নির্বাচনী ফলাফলসম্পাদনা

২০১১সম্পাদনা

২০১১ সালের নির্বাচনে, তৃণমূল কংগ্রেসের মদন মিত্র তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সিপিআই (এম) এর মানস মুখার্জিকে পরাজিত করেন।

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন, ২০১১:কামারহাটি কেন্দ্র[১৩][১৪]
দল প্রার্থী ভোট % ±%
তৃণমূল কংগ্রেস মদন মিত্র ৭৪,১১২ ৫৭.৯৬ +১৭.২৫#
সিপিআই(এম) মানস মুখার্জী ৪৯,৭৫৮ ৩৮.৯১ -১৭.৪৯
বিজেপি শিখা সরকার ১,৬৯৯
নির্দল সুশান্ত দে ১,০৭৯
সিপিআই (এম-এল)এল Nabendu Dasgupta ৭৩৯
পিডিএস (আই) তারক ভদ্র ৪৭৯
ভোটার উপস্থিতি ১,২৭,৮৬৬ ৭৯.৪৪
সিপিআই(এম) থেকে তৃণমূল কংগ্রেস অর্জন করেছে সুইং ৩৪.৭৪#

১৯৭৭-২০০৬সম্পাদনা

২০০৬ এবং ২০০১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে, সিপিআই (এম) এর মানস মুখার্জী কামারহাটি কেন্দ্র থেকে জয়ী হন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ২০০৬ সালে[১২] তৃণমূল কংগ্রেসের সুভ্রাংশু ভট্টাচার্যকে পরাজিত করেন এবং ২০০১ সালে[১১] তৃণমূল কংগ্রেসের চিত্তরঞ্জন বাগকে পরাজিত করেন। অধিকাংশ বছরে প্রতিযোগিতাগুলিতে প্রার্থীদের বিভিন্ন ধরনের কোণঠাসা করে ছিল কিন্তু শুধুমাত্র বিজয়ী ও রানার্সকে উল্লেখ করা হচ্ছে। সিপিআই (এম) এর শান্তি ঘটক ১৯৯৬[১০] এবং ১৯৯১ সালে[৯] জয়ী হন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ১৯৯৬ সালে কংগ্রেসের শম্ভুনাথ দত্তকে এবং ১৯৯১ সালে কংগ্রেস সলিল বিশ্বাসকে পরাজিত করেন। সিপিআই (এম) এর রাধিকা রঞ্জন ব্যানার্জি ১৯৮৭, ১৯৮২ এবং ১৯৭৭ সালে জয়ী হন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ১৯৮৭ সালে কংগ্রেসের অজয় ​​ঘোষালকে পরাজিত করেন,[৮] ১৯৮২ সালে কংগ্রেসের পূর্ণেন্দু বিমল দত্তকে[৭] এবং ১৯৭৭ সালে কংগ্রেসের জয়ন্ত চন্দ্র সেনকে পরাজিত করেন।[৬][১৫]

১৯৬৭-১৯৭২সম্পাদনা

১৯৭২ সালে কংগ্রেসের প্রদীপ কুমার পালিত জয়ী হন।[৫] ১৯৭১,[৪] ১৯৬৯[৩] এবং ১৯৬৭ সালে[২] সিপিআই (এম) এর রাধিকা রঞ্জন ব্যানার্জী জয়ী হন। এর আগে কামারহাটি কেন্দ্রটি বিদ্যমান ছিল না।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Delimitation Commission Order No. 18" (PDF)পশ্চিমবঙ্গ (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১০ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুন ২০১৪ 
  2. "General Elections, India, 1967, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। ৫ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১৪ 
  3. "General Elections, India, 1969, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। ৬ আগস্ট ২০১৬ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১৪ 
  4. "General Elections, India, 1971, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। ৫ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১৪ 
  5. "General Elections, India, 1972, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। ৫ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১৪ 
  6. "General Elections, India, 1977, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। ৫ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১৪ 
  7. "General Elections, India, 1982, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। ৪ আগস্ট ২০১৬ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১৪ 
  8. "General Elections, India, 1987, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। ৫ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১৪ 
  9. "General Elections, India, 1991, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। ৪ এপ্রিল ২০১৪ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১৪ 
  10. "General Elections, India, 1996, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। ৭ আগস্ট ২০১৬ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১৪ 
  11. "General Elections, India, 2001, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। ৫ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১৪ 
  12. "General Elections, India, 2006, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। ৬ অক্টোবর ২০১৪ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১৪ 
  13. "General Elections, India, 2011, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। ৪ এপ্রিল ২০১৪ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১৪ 
  14. "West Bengal Assembly Election 2011"Kamarhati (ইংরেজি ভাষায়)। Empowering India। সংগ্রহের তারিখ ২৪ এপ্রিল ২০১১ 
  15. "136 - Kamarhati Assembly Constituency"১৯৭৭ থেকে দল অনুযায়ী তুলনা (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ১৫ অক্টোবর ২০১০