কাবুলিওয়ালা (২০০৬-এর চলচ্চিত্র)

কাবুলিওয়ালা কাজী হায়াৎ পরিচালিত ২০০৬ সালের নাট্যধর্মী চলচ্চিত্র। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর রচিত কাবুলিওয়ালা ছোটগল্প অবলম্বনে এর চিত্রনাট্য ও সংলাপ রচনা করেছেন কাজী হায়াৎ।[২] ইমপ্রেস টেলিফিল্ম এর ব্যানারের ছবিটি প্রযোজনা করেন ফরিদুর রেজা সাগর ও ইবনে হাসান খান। এতে নাম ভূমিকায় অভিনয় করেন মান্না। এছাড়া মিনি চরিত্রে অভিনয় করেন প্রার্থনা ফারদিন দিঘী, তার পিতা লেখক চরিত্রে অভিনয় করেন সুব্রত ও তার মায়ের ভূমিকায় অভিনয় করেন দোয়েল। বাস্তব জীবনেও দিঘী সুব্রত ও দোয়েলের কন্যা। এই চলচ্চিত্রে তারা প্রথম একসাথে অভিনয় করেন।[৩]

কাবুলিওয়ালা
কাবুলিওয়ালা (২০০৬-এর চলচ্চিত্র).jpg
কাবুলিওয়ালা চলচ্চিত্রের পোস্টার
পরিচালককাজী হায়াৎ
প্রযোজক
রচয়িতাকাজী হায়াৎ (সংলাপ)
চিত্রনাট্যকারকাজী হায়াৎ
উৎসরবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কর্তৃক 
কাবুলিওয়ালা
শ্রেষ্ঠাংশে
বর্ণনাকারীকাজী হায়াৎ
সুরকারসগীর আহমেদ
চিত্রগ্রাহকআলমগীর খসরু
সম্পাদকচিশতী জামাল
প্রযোজনা
কোম্পানি
পরিবেশকইমপ্রেস টেলিফিল্ম
মুক্তি
  • ৪ আগস্ট ২০০৬ (2006-08-04)
দৈর্ঘ্য১২৩ মিনিট[১]
দেশবাংলাদেশ
ভাষাবাংলা

চলচ্চিত্রটি ২০০৬ সালের ৪ আগস্ট বাংলাদেশে মুক্তি পায়। মিনি চরিত্রে অভিনয়ের জন্য দিঘী জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে শ্রেষ্ঠ শিশুশিল্পী বিভাগে পুরস্কার লাভ করে।[৪]

কাহিনী সংক্ষেপসম্পাদনা

রহমত শেখ আফগানিস্তানের কাবুল থেকে আগত একজন ফল বিক্রেতা। সে তার জিনিসপত্র নিয়ে বাংলায় এসে এবং হাঁক ডেকে তা বিক্রি করে। বিক্রি করতে পথে একদিন তার মিনি নামে একটি ছোট মেয়ের সাথে তার পরিচয় হয়। মিনি একজন লেখকের মেয়ে। মিনিকে দেখে রহমতের কাবুলে ফেলে আসা মেয়ের কথা মনে পড়ে। রহমত একটি বোর্ডিংয়ে আরও কিছু কাবুলিওয়ালাদের সাথে থাকত এবং পণ্য বিক্রয় করত।

একদিন রহমত চিঠিতে তার মেয়ের অসুস্থতার খবর পায় এবং দ্রুতই তার দেশে ফিরে যেতে চায়। বিক্রির প্রসারের জন্য সে কয়েকজন ক্রেতা জয়ন্তের কাছে বাকিতে পণ্য বিক্রয় করেছিল। সে তার বাকি টাকা ফেরত নিতে গেলে সেই জয়ন্ত তাকে অপমান করে। এসময় তাদের মধ্যে হাতাহাতির এক পর্যায়ে রহমত তাকে চাকু মারে। আদালতে রহমত ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে। জজ তার সততায় মুগ্ধ করে মৃত্যুদন্ডের পরিবর্তে তাকে ১০ বছরের কারাদন্ড দেয়।

কুশীলবসম্পাদনা

সঙ্গীতসম্পাদনা

কাবুলিওয়ালা চলচ্চিত্রের গানের সুর করেছেন সগীর আহমেদ। আবহ সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন এম আর নীলু।

পুরস্কারসম্পাদনা

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার
  • বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ শিশুশিল্পী - দিঘী

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "KABULIWALA"বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভ। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৭ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. মারিয়া, শান্তা (৮ মে ২০১৪)। "অভিনয়ে রবিঠাকুর"বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৭ 
  3. "চিত্রনায়িকা দোয়েল আর নেই"দৈনিক প্রথম আলো। ২৯ ডিসেম্বর ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৭ 
  4. "দিঘীর অভিনয়বিরতি"দৈনিক কালের কণ্ঠ। ৩ মার্চ ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৭ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা