পৃথিবীর পৃষ্ঠ থেকে প্রায় ৭০০ থেকে ১০,০০০ কিলোমিটার (৪৪০ এবং ৬,২০০ মাইল) উপরে অবস্থিত, এক্সোস্ফিয়ার বা এক্সোমণ্ডল হল পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলের সর্বোচ্চ স্তর।[১] এক্সোস্ফেয়ার এর শীর্ষের অংশ সৌর বায়ু বা সৌর ঝড়ের সম্মুখীন হয়।  এখানে পাওয়া অণুগুলি অত্যন্ত কম ঘনত্বের, তাই এই স্তরটি গ্যাসের মতো আচরণ করে না এবং এখানকার কণাগুলি মুক্ত হয়ে মহাকাশে চলে যায়।[১] এক্সোমণ্ডল স্তরটি মূলত অত্যন্ত কম ঘনত্বের হাইড্রোজেন, হিলিয়ামে এবং এক্সোবেসের কাছাকাছি নাইট্রোজেন, অক্সিজেন এবং কার্বন ডাই অক্সাইড সহ বেশ কয়েকটি ভারী অণু দ্বারা গঠিত। পরমাণু, অণুগুলি এত দূরে দূরে অবস্থান করে যে তারা একে অপরের সাথে সংঘর্ষ ছাড়াই শত শত কিলোমিটার ভ্রমণ করতে পারে।[২] যদিও এক্সোমণ্ডলে কোনও আবহাওয়া নেই, কিন্তু কখনও কখনও এক্সোমণ্ডলের নিম্নঅংশে অরোরা বোরিয়ালিস এবং অরোরা অস্ট্রালিস দেখা যায়। পৃথিবীর অধিকাংশ কৃত্রিম উপগ্রহ এই এক্সোমণ্ডলে প্রদক্ষিণ কর।[১]

ছবিটির উপরের অংশে এক্সোমণ্ডল স্তর চিহ্নিত করা আছে, যা পৃথিবীর বায়ুমন্ডলের সবচেয়ে দূরবর্তী স্তর।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. https://www.nasa.gov/mission_pages/sunearth/science/atmosphere-layers2.html
  2. https://www.sciencedirect.com/topics/earth-and-planetary-sciences/exosphere#:~:text=The%20exosphere%20layer%20is%20mainly,without%20colliding%20with%20one%20another.