ইয়ানবু আল বাহার (আরবি: ينبع البحر‎‎, Yanbuʿ al-Baḥr) বা সাধারণভাবে ইয়ানবু হল সৌদি আরবের মদিনা প্রদেশে অবস্থিত লোহিত সাগরের একটি প্রধান সমুদ্রবন্দর। এটি জেদ্দা থেকে ৩০০ কিমি উত্তরপশ্চিমে অবস্থিত এবং এর অবস্থান ২৪°০৫′ উত্তর ৩৮°০০′ পূর্ব / ২৪.০৮৩° উত্তর ৩৮.০০০° পূর্ব / 24.083; 38.000)। ২০০৪ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী এখানকার জনসংখ্যা ১,৮৮,৪৩০। বাসিন্দাদের একটি উল্লেখযোগ্য অংশ তেলশিল্পে কর্মরত বিদেশি নাগরিক যাদের অধিকাংশ এশীয় বংশোদ্ভূত। পাশাপাশি ইউরোপ, যুক্তরাষ্ট্র, কানাডার নাগরিকও রয়েছে।

ইয়ানবু আল বাহার
নাসার তোলা ইয়ানবু আল বাহারের ছবি
নাসার তোলা ইয়ানবু আল বাহারের ছবি
ইয়ানবু আল বাহার সৌদি আরব-এ অবস্থিত
ইয়ানবু আল বাহার
ইয়ানবু আল বাহার
স্থানাঙ্ক: ২৪°০৫′ উত্তর ৩৮°০′ পূর্ব / ২৪.০৮৩° উত্তর ৩৮.০০০° পূর্ব / 24.083; 38.000স্থানাঙ্ক: ২৪°০৫′ উত্তর ৩৮°০′ পূর্ব / ২৪.০৮৩° উত্তর ৩৮.০০০° পূর্ব / 24.083; 38.000
রাষ্ট্রFlag of Saudi Arabia.svg সৌদি আরব
প্রদেশমদিনা
প্রতিষ্ঠা৪৯১ খ্রিষ্টপূর্ব
সরকার
 • প্রাদেশিক গভর্নরফয়সাল বিন সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদ
জনসংখ্যা (২০০৪)
 • শহর১,৮৮,৪৩০
 • পৌর এলাকা২,৫০,০০০
 ইয়ানবু পৌরসভার হিসাব
পোস্টকোড(৫ সংখ্যা)
এলাকা কোড+৯৬৬-১৪
ইয়ানবু শহর।

ইতিহাসসম্পাদনা

আধুনিক যুগসম্পাদনা

প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় উসমানীয় সাম্রাজ্যের বিরুদ্ধে সংঘটিত আরব বিদ্রোহে ইয়ানবুর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল। ১৯১৬ সালের ২৭ জুলাই আরব বিপ্লবী বাহিনীর কাছে উসমানীয় ঘাটি আত্মসমর্পণ করে।[১] ১৯৭৫ সাল পর্যন্ত এটি একটি ক্ষুদ্র বন্দর হিসেবে ছিল। এরপর সৌদি সরকার একে নতুন বাণিজ্যিক কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলে। বন্দর ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় সরকারি ও বেসরকারি উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড গ্রহণ করা হয়।

ভূগোলসম্পাদনা

ইয়ানবু তিনটি ভাগে বিভক্ত। এটি লোহিত সাগর উপকূলে জেদ্দার পর দ্বিতীয় বৃহত্তর শহর।

ইয়ানবু আল-বালাদসম্পাদনা

ইয়ানবু আল-বালাদ হল ইয়ানবুর সর্ব উত্তরের অংশ। ইয়ানবু আল-বালাদে অধিকাংশ বাসিন্দা বসবাস করে। এখানে কিছু আন্তর্জাতিক চেইন রেস্তোরা এবং কফিশপ রয়েছে। এখানে হলিডে ইন হোটেল রয়েছে। ইয়ানবু বিমানবন্দরও এখানে অবস্থিত। অধিকাংশ বাসিন্দা নিম্ন এবং মধ্যবিত্ত সৌদি নাগরিক। পাশাপাশি অনেক দক্ষিণ এশীয় এবং আরব ও মধ্যপ্রাচ্যের বাসিন্দা এখানে রয়েছে।

ইয়ানবুতে অনেক ঐতিহাসিক স্থাপনা রয়েছে। বর্তমানে সরকার ইয়ানবুর পুরনো কেন্দ্রস্থল উন্নয়নের প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। অধিকাংশ এলাকা আধুনিকায়ন করার চেষ্টা হিসেবে ক্রয়কেন্দ্র, শপিং মল নির্মিত হয়েছে। ইয়ানবু আল-বালাদে জারির বুকস্টর রয়েছে।

ইয়ানবু আল-নাখালসম্পাদনা

এটি একটি পৃথক এলাকা। এখানে ২০টির বেশি গ্রাম রয়েছে যেমন আলগাবরাই, মাদসুস, আলনিজিল ও তালাত নাজাহ। শহর থেকে কিছু দূরে ক্ষেতখামার দেখা যায়। এখানকার বাসিন্দাদের অধিকাংশ স্থানীয় গোত্র। তাদের অধিকাংশ জুহাইনাহ, হুরুব এবং কিছু আশরাফ। এছাড়া এখানে সুদান, বাংলাদেশ, পাকিস্তান, ভারত, ইন্দোনেশিয়া ইত্যাদি দেশের নাগরিক রয়েছে।

ইয়ানবু আল-সিনাইয়াসম্পাদনা

ইয়ানবু আল-সিনাইয়া হল বাণিজ্যিক এলাকা। ১৯৭৫ সালে নতুন আধুনিক শহর নির্মাণ কর্মকাণ্ড তদারকের উদ্দেশ্যে রাজকীয় কমিশন গঠনের জন্য জারিকৃত রাজকীয় ফরমানের মাধ্যমে এটি স্থাপিত হয়। এটি শহরের সর্বদক্ষিণ এলাকা। ইয়ানবু আল-সিনাইয়া দুই অংশে বিভক্ত। দক্ষিণে বাণিজ্যিক ও তার সংলগ্ন উত্তরে আবাসিক এলাকা অবস্থিত। বাণিজ্যিক এলাকায় তেল শোধনাগার ও পেট্রোকেমিকেল প্রকল্প অবস্থিত। পূর্বে এই এলাকাটি ইয়ানবুর লোহিত সাগর উপকূলের একটি অনুন্নত অংশ ছিল এবং শিল্পনগরে উন্নীত হয়।

রাজকীয় কমিশনের সদরদপ্তরের নিকটে আবাসিক এলাকা অবস্থিত। এখানে অনেক আন্তর্জাতিক চেইন রেস্তোরা, দুইটি শপিং মল, বিভিন্ন আকারের সুপারমার্কেট, হাসপাতাল, ব্যাংক ও কফিশপ রয়েছে। মোভেনপিক হোটেল এখানে অবস্থিত। ব্যক্তিগত আবাসিক কম্পাউন্ড দ্য কোভও এখানে অবস্থিত। শিল্প ক্ষেত্রে প্রশিক্ষণ ও জ্ঞান বিতরণের জন্য এখানে ইয়ানবু ইন্ডাস্ট্রিয়াল কলেজ নির্মিত হয়েছে। এছাড়াও এখানে ইয়ানবু ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অবস্থিত।

জলবায়ুসম্পাদনা

ইয়ানবু-এর আবহাওয়া সংক্রান্ত তথ্য
মাস জানু ফেব্রু মার্চ এপ্রিল মে জুন জুলাই আগস্ট সেপ্টে অক্টো নভে ডিসে বছর
সর্বোচ্চ °সে (°ফা) রেকর্ড ৩৪٫৪
(৯৪)
৩৭٫৩
(৯৯)
৪০٫০
(১০৪)
৪৩٫৬
(১১০)
৪৯٫০
(১২০)
৪৯٫৫
(১২১)
৫১٫০
(১২৪)
৪৯٫৩
(১২১)
৪৯٫০
(১২০)
৪৭٫৪
(১১৭)
৪৪٫৭
(১১২)
৪২٫০
(১০৮)
৫১٫০
(১২৪)
সর্বোচ্চ °সে (°ফা) গড় ২৭٫৭
(৮২)
২৮٫৪
(৮৩)
৩১٫২
(৮৮)
৩৪٫৭
(৯৪)
৩৮٫২
(১০১)
৪০٫১
(১০৪)
৪০٫১
(১০৪)
৪০٫৪
(১০৫)
৩৯٫৯
(১০৪)
৩৭٫০
(৯৯)
৩৩٫৩
(৯২)
২৯٫৬
(৮৫)
৩৫٫১
(৯৫)
দৈনিক গড় °সে (°ফা) ২০٫৭
(৬৯)
২১٫৪
(৭১)
২৪٫০
(৭৫)
২৭٫৬
(৮২)
৩০٫৭
(৮৭)
৩২٫৩
(৯০)
৩২٫৯
(৯১)
৩৩٫৪
(৯২)
৩২٫৪
(৯০)
২৯٫৯
(৮৬)
২৬٫২
(৭৯)
২২٫৫
(৭৩)
২৭٫৮
(৮২)
সর্বনিম্ন °সে (°ফা) গড় ১৪٫২
(৫৮)
১৪٫৭
(৫৮)
১৭٫০
(৬৩)
২০٫৭
(৬৯)
২৩٫৮
(৭৫)
২৫٫১
(৭৭)
২৬٫৪
(৮০)
২৭٫৩
(৮১)
২৬٫১
(৭৯)
২৩٫৬
(৭৪)
১৯٫৯
(৬৮)
১৬٫১
(৬১)
২১٫২
(৭০)
সর্বনিম্ন °সে (°ফা) রেকর্ড ৪٫৭
(৪০)
৬٫৫
(৪৪)
৮٫৭
(৪৮)
১১٫৫
(৫৩)
১৫٫৬
(৬০)
১৮٫০
(৬৪)
২১٫৩
(৭০)
২০٫৪
(৬৯)
১৯٫০
(৬৬)
১৪٫৩
(৫৮)
১২٫০
(৫৪)
৭٫৮
(৪৬)
৪٫৭
(৪০)
গড় অধঃক্ষেপণ মিমি (ইঞ্চি) ৬٫৪
(০٫২৫)
১٫০
(০٫০৪)
১٫৪
(০٫০৬)
০٫৪
(০٫০২)
০٫৭
(০٫০৩)
০٫০
(০)
০٫০
(০)
০٫০
(০)
০٫১
(০)
৪٫১
(০٫১৬)
৭٫৪
(০٫২৯)
১১٫৫
(০٫৪৫)
৩৩٫০
(১٫৩)
অধঃক্ষেপণ দিনের গড় ১٫৪ ০٫৬ ০٫৯ ০٫৬ ০٫৩ ০٫০ ০٫০ ০٫২ ০٫১ ০٫৬ ১٫৯ ১٫১ ৭٫৭
গড় আর্দ্রতা (%) ৫৪ ৫৩ ৫১ ৪৯ ৪৭ ৫০ ৫৪ ৫৪ ৫৫ ৫৮ ৫৭ ৫৬ ৫৩
উৎস: Jeddah Regional Climate Center[২]

অর্থনীতিসম্পাদনা

ইয়ানবু একটি গুরুত্বপূর্ণ পেট্রোলিয়াম রপ্তানি টার্মিনাল এবং এখানে তিনটি তেল শোধনাগার, একটি প্লাস্টিক কারখানা এবং কয়েকটি অন্যান্য পেট্রোকেমিকেল প্রকল্প রয়েছে। জেদ্দার পর ইয়ানবুর দেশের দ্বিতীয় বন্দর। ইয়ানবু পবিত্র শহর মদিনার বন্দর হিসেবে ভূমিকা পালন করে এবং মদিনার ১৬০ কিমি (৯৯ মা) পূর্বে অবস্থিত। দুই পাশে প্রশস্ত প্রবাল প্রাচীরের কারণে পোতাশ্রয় সুরক্ষিত থাকে। এসব প্রবাল প্রাচীর ডাইভিঙের জন্য উপযোগী। পূর্ব দিকে অবস্থিত তেলক্ষেত্র থেকে তিনটি প্রধান তেলের পাইপলাইন মরুভূমির মধ্য দিয়ে ইয়ানবুতে এসে শেষ হয়েছে।

শিক্ষাসম্পাদনা

শহরে উচ্চশিক্ষার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ রয়েছে। এর মধ্য রয়েছে:

  • কলেজ অব কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (তাইবাহ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে)
  • ইয়ানবু ইন্ডাস্ট্রিয়াল কলেজ
  • ইয়ানবু ইউনিভার্সিটি কলেজ

ইয়ানবুতে একাধিক প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয় রয়েছে। যেমন:

  • আল-ইসরা ইন্টারন্যাশনাল স্কুল
  • আল তাওহিদ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল
  • আল মানার ইন্টারন্যাশনাল স্কুল
  • রাজাওয়া ইন্টারন্যাশনাল স্কুল
  • ইয়ানবু ইন্টারন্যাশনাল স্কুল
  • ইয়ানবু এলিট ইন্টারন্যাশনাল স্কুল

হাসপাতালের মধ্য রয়েছে

  • আল আনসারি হাসপাতাল
  • ইয়ানবু জাতীয় হাসপাতাল
  • রয়েল কমিশন হাসপাতাল

যোগাযোগসম্পাদনা

বিমানবন্দরসম্পাদনা

ইয়ানবুতে একটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর রয়েছে। এখান থেকে সৌদি আরবের অভ্যন্তরে এবং বিদেশে যাত্রী পরিবহন করা হয়।

মহাসড়কসম্পাদনা

ইয়ানবুর সাথে জেদ্দার সংযোগকারী মহাসড়ক রয়েছে। এছাড়া দেশের উত্তরাঞ্চলের সাথেও সড়ক যোগাযোগ রয়েছে।

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Burg, David F.; Purcell, L. Edward (২০১০)। Almanac of World War I (2010 সংস্করণ)। University Press of Kentuckyআইএসবিএন 9780813137711  - Total pages: 336
  2. "Climate Data for Saudi Arabia"। Jeddah Regional Climate Center। ১২ মে ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ২৪, ২০১৫ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা