ইজমা (إجماع) একটি আরবি শব্দ। এর আভিধানিক অর্থ কোন বিষয়ে সকল ‍জনগণ একমত হওয়া।[১] ইমাম যুবাইদী হানাফী বলেনঃ “والا جماع أي اجماع الأمة : الاتفاق” এবং ইজমা অর্থাৎ উম্মাতের ইজমাঃ ঐকমত্য[২]

হাদিসসম্পাদনা

ইবনু ’উমার (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ আল্লাহ তা’আলা আমার গোটা উম্মাতকে; অপর বর্ণনাতে তিনি বলেছেন, উম্মাতে মুহাম্মাদীকে কখনও পথভ্রষ্টতার উপর একত্রিত করবেন না। আল্লাহ তা’আলার হাত (রহমত ও সাহায্য) জামা’আতের উপর রয়েছে।

— তিরমিযীঃ ২১৬৭, মিশকাত ১৭৩, সনদঃ সহীহ

ইসলামিক পরিভাষাসম্পাদনা

ইমাম আবু হানীফা বলেন,"ইসলামী শরীয়াতের কোন হুকুমের ব্যাপারে একই যুগের সকল মুজতাহিদদের একমত হওয়াকে ইজমা বলে"।

ইজমা’র হুকুমসম্পাদনা

মুসলিমদের নিকট এটি একটি শারঈ দলীল এবং এটি ত্যাগ করা গুনাহ এর কাজ। শায় খুল ইসলাম হাফেয ইবনে তাইমিয়া বলেন, الْحَمْدُ لِلَّهِ، مَعْنَى الْإِجْمَاعِ: أَنْ تَجْتَمِعَ عُلَمَاءُ الْمُسْلِمِينَ عَلَى حُكْمٍ مِنْ الْأَحْكَامِ. وَإِذَا ثَبَتَ إجْمَاعُ الْأُمَّةِ عَلَى حُكْمٍ مِنْ الْأَحْكَامِ لَمْ يَكُنْ لِأَحَدِ أَنْ يَخْرُجَ عَنْ إجْمَاعِهِمْ؛ فَإِنَّ الْأُمَّةَ لَا تَجْتَمِعُ عَلَى ضَلَالَةٍ وَلَكِنْ كَثِيرٌ مِنْ الْمَسَائِلِ يَظُنُّ بَعْضُ النَّاسِ فِيهَا إجْمَاعًا وَلَا يَكُونُ الْأَمْرُ كَذَلِكَ بَلْ يَكُونُ الْقَوْلُ الْآخَرُ أَرْجَحَ فِي الْكِتَابِ وَالسُّنَّةِ. হামদ এবং ছানা আল্লাহ এর জন্য। ইজমা এর অর্থ এটা যে আহকামের ভেতর কোনো হুকুমের উপর মুসলমানদের ঐ ইমাম গুলো ঐকমত্য হয়ে যায় এবং যখন কোনো হুকুমের উপর উম্মতের ইজমা প্রমাণিত হয়ে যায় তবে কারো জন্য জায়েয নয় যে ঐ ইমামদের ইজমা থেকে বের হয়ে যায়। কারণ উম্মত কখনই গোমরাহীর উপর ঐকমত্য হতে পারে না , কিন্তু অনেক মাসায়েল এর উপর কিছু লোক ভাবে যে এর উপর ইজমা আছে কিন্তু আসলে ঐ মাসালায় ইজমা হয় নি এক্ষেত্রে কিতাব এবং সুন্নাতই বেশি অধিকার প্রাপ্ত। [৩]

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. আল কামুসুল মুহীত (পৃঃ ৯১৭), আল মুজামু্ল ওয়াসিয়ত ( ১/১৩৫) এবং কামুসুল ওয়াহিদ (পৃঃ ২৮০
  2. তাজুল আরূস খন্ড ১১ পৃঃ৭৫
  3. আল ফাতোয়া আল কাবির খন্ড ১ পৃঃ ৪৮৪, মাজমু’উ ফাতোয়া খন্ড ২০ পৃঃ১০

বহিঃসংযোগসম্পাদনা