আহমাদুল্লাহ আশরাফ

বাংলাদেশী ইসলামি শিক্ষাবিদ ও রাজনীতিবিদ

শাহ আহমাদুল্লাহ আশরাফ ছিলেন বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের সাবেক আমির[১]জামিয়া নূরিয়া ইসলামিয়ার মহাপরিচালক। তিনি হাফেজ্জী হুজুরের জ্যেষ্ঠ পুত্র।

শাহ আহমাদুল্লাহ আশরাফ
আহমাদুল্লাহ আশরাফ.jpeg
২য় আমীর, বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন
কাজের মেয়াদ
৭ মে ১৯৮৭ – ২৯ নভেম্বর ২০১৪
পূর্বসূরীমুহাম্মদুল্লাহ হাফেজ্জী
উত্তরসূরীআতাউল্লাহ হাফেজ্জী
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম১৯৪২
লালবাগ, ঢাকা
মৃত্যু২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮
নাগরিকত্ববাংলাদেশী
রাজনৈতিক দলবাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন
সন্তান৯ ছেলে, ১০ মেয়ে
পিতামাতাহাফেজ্জী হুজুর
প্রাক্তন শিক্ষার্থীজামিয়া ইসলামিয়া বিন নূরী টাউন মাদ্রাসা

জন্ম ও শিক্ষাসম্পাদনা

শাহ আহমাদুল্লাহ আশরাফ ১৯৪২ সালে ঢাকার লালবাগের কিল্লারমোড়ে জন্মগ্রহণ করেন।[২] তিনি শামসুল হক ফরিদপুরীর তত্ত্বাবধানে বড়কাটারা, লালবাগ, মোস্তফাগঞ্জ মাদ্রাসায় শিক্ষা লাভ করেন। পরবর্তীতে করাচীর জামিয়া ইসলামিয়া বিন নূরী টাউন মাদ্রাসায় ভর্তি হন।

কর্ম ও রাজনৈতিক জীবনসম্পাদনা

পাকিস্তান থেকে ঢাকায় ফেরার পর ১৯৬৩ সালে জাতীয় মসজিদ বাইতুল মুকাররমে প্রধান মুয়াজ্জিনের দায়িত্ব নেন। তিনি ঢাকার জামিয়া নূরিয়া ইসলামিয়া, আমীনবাজারস্থ মদিনাতুল উলুম মাদ্রাসা ও লক্ষীপুরের লুধুয়া এশাআতুল উলুম মাদ্রাসার একই সাথে প্রিন্সিপালের দায়িত্ব পালন করেন। শাহ আহমাদুল্লাহ আশরাফ ১৯৮৭ সালের ৭ মে তার পিতার মৃত্যুর পর বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের ভারপ্রাপ্ত আমির নির্বাচিত হন।[১][২] একটানা ২৭ বছর আমিরের দায়িত্ব পালন করেন।[২][৩][৪][৫][৬] ২০১২ সালে নতুন নির্বাচন কমিশন গঠনে রাজনৈতিক দলের সাথে রাষ্ট্রপতির সংলাপে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের পক্ষে নেতৃত্ব দেন তিনি।

মৃত্যুসম্পাদনা

শাহ আহমাদুল্লাহ আশরাফ কয়েক বার ব্রেন স্ট্রোক ও ডায়াবেটিকস সহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে ২০১৪ সালের মার্চ মাস থেকে গুরুতর অসুস্থ ছিলেন।[১][৪][৭][৮] ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ শুক্রবার সকাল সাড়ে ৭ টায় রাজধানীর ইবনে সিনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন।[১][২][৩][৪][৫][৬][৯] জামিয়া নূরিয়া ইসলামিয়ায় পিতা হাফেজ্জী হুজুর ও ছোট ভাই হামিদুল্লাহর পাশে তাকে সমাধিস্থ করা হয়।[২][৫]

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "মাওলানা আহমাদুল্লাহ আশরাফ আর নেই"Dhakatimes News। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০২-২৩ 
  2. "মাওলানা আহমাদুল্লাহ আশরাফের ইন্তেকাল | daily nayadiganta" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০২-২৩ 
  3. রিপোর্টার, স্টাফ। "মাওলানা শাহ আহমাদুল্লাহ আশরাফের ইন্তেকাল" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০২-২৩ 
  4. webdesk@somoynews.tv। "না ফেরার দেশে চলে গেলেন মাওলানা শাহ আহমাদুল্লাহ আশরাফ" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০২-২৩ 
  5. "মাওলানা আহমাদুল্লাহ আশরাফের ইন্তেকাল"Jugantor। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০২-২৩ 
  6. Pratidin, Bangladesh। "মাওলানা শাহ আহমাদুল্লাহ আশরাফ আর নেই | বাংলাদেশ প্রতিদিন"Bangladesh Pratidin। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০২-২৩ 
  7. "মাওলানা আহমাদুল্লাহ আশরাফ গুরুতর অসুস্থ | Kaler Kantho"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০২-২৩ 
  8. "মাওলানা আহমাদুল্লাহ আশরাফের ইন্তেকাল । বাংলাদেশ"RTV Online। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০২-২৩ 
  9. "মাওলানা শাহ আহমাদুল্লাহ আশরাফের ইন্তেকাল"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০২-২৩ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]