আম্মাজান (সংগীত)

‘আম্মাজান’ ১৯৯৯ সালে প্রকাশিত বাংলা চলচ্চিত্র সঙ্গীত। মায়ের ভক্তিমূলক এই সঙ্গীত বা গানটি ১৯৯৯ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত[১] কাজী হায়াৎ পরিচালিত চলচ্চিত্র ‘আম্মাজান’-এ ব্যবহার করা হয়েছে।[২] আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুলের গীতি ও সুরে এই গানে কন্ঠ দেন আইয়ুব বাচ্চু[৩][৪]। চলচ্চিত্রে এই গানের চিত্রায়নে অভিনয় ও ঠোট মিলিয়েছেন মান্না[৪][৫]। এই গানের মাধ্যমে বাংলা চলচ্চিত্রে গানে আইয়ুব বাচ্চু ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করে।[৬][৭]

"আম্মাজান"
আম্মাজান চলচ্চিত্রের ডিভিডি প্রচ্ছদ.jpg
আম্মাজান অ্যালবাম থেকে
আইয়ুব বাচ্চু কর্তৃক সঙ্গীত
ভাষাবাংলা
মুক্তিপ্রাপ্তঅডিওঃ ১৯৯৯
ভিডিওঃ ২৫ জুন , ২০১৮
বিন্যাসঅডিও ক্যাসেট, ভিডিও স্ট্রিমিং
রেকর্ডকৃত১৯৯৯
ধারাচলচ্চিত্র সঙ্গীত
দৈর্ঘ্য০৫:৫৪
লেবেলঅনুপম রেকর্ডিং মিডিয়া (২০১৮-বর্তমান)
গান লেখকআহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল
সুরকারআহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল
প্রযোজকঅমি বনি কথাচিত্র
সঙ্গীত ভিডিও
ইউটিউবে "আম্মাজান"

পটভূমিসম্পাদনা

‘‘আম্মাজান’’ গানের শুরু যেভাবেসম্পাদনা

‘আম্মাজান’ সিনেমাটি নির্মাণ করেন বিশিষ্ট পরিচালক কাজী হায়াৎ। তিনি কখনো গান নিয়ে সুরকারের সঙ্গে বসতেন না। এ বিষয়ে তিনি সুরকারকে পূর্ণ স্বাধীনতা দিতেন। তার বিশ্বাস সুরকারকে স্বাধীনতা দিলে ভালো কিছুই হবে। স্বাধীনতা ঠিকই দিয়েছিলেন কিন্তু আমাকে বলেছিলেন, ‘বুলবুল তুমি এমন একটা গান লিখবে যে গানটির কথা ও সুর দেয়ার পর মাকে নিয়ে লেখা অন্য কোনো গান তোমার লেখা গানের সামনে দাঁড়াতে না পারে।’ সিনেমার গল্পটাও তিনি আমাকে শুনিয়েছিলেন। এই সিনেমায় মায়ের সুখের জন্য পৃথিবীতে সবকিছু করতে পারেন নায়ক মান্না। তারপর আমাকে অনেক চিন্তা-ভাবনা করে গানটি লিখতে ও সুর করতে হয়েছে।-আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল[৫]

‘আম্মাজান’ গানের গভীরতাসম্পাদনা

মাকে নিয়ে আরো অনেক গান রচিত হয়েছে। আমি ভাবলাম, এমন একটি গান লিখব যার কথার মধ্যে অনেক গভীরতা থাকবে। মক্কার ধুলো, মদিনার ধুলো, এই মাটি দিয়ে গড়া মায়ের দেহ। এসব কথাগুলো খুব চিন্তা-ভাবনা করে আনতে হয়েছে। ধর্মীয় অনুভূতিতে যেন আঘাত না লাগে এবং সুরটা এমনভাবে করেছি যা একটি শিশুও গাইতে পারবে। এই গানের সুর এমনভাবে তৈরি করেছি যা কেউ ভাঙতে পারবে না। অন্যভাবে গাওয়ারও উপায় নেই। গানের কথা ভালো হলে, সুরটা সাধারণ হলে সাধারণ মানুষও তা গাইতে পারেন-আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল[৫]

‘আম্মাজান’ গানটির সঙ্গে আইয়ুব বাচ্চু যেভাবে যুক্ত হলেনসম্পাদনা

বাচ্চুর কথা মাথায় রেখেই এই গানটি আমি তৈরি করেছিলাম। কারণ এই সিনেমায় মান্না একজন ‘অ্যাংরি হিরো’ ছিল। তখন আমার চোখে মুখে বাচ্চুর মুখটাই ভাসছিল। বাচ্চু তখন ফিল্মে গান করেনি। বাচ্চুকে অনেক কষ্ট করে গানটি করানো হয়েছিল। বাচ্চু অনেক মেধাবী মিউজিশিয়ান। ও ছোটবেলায় আমার কাছে আসত। যাই হোক, আমার কাছে কয়েকবার শোনার পর বাচ্চু খুব স্বাভাবিকভাবে গানটি গাইল। রেকর্ডিং করতে যখনই যেতাম তখনই অনেক মানুষ গানটি শোনার জন্য চলে আসত। তখনই আমি বুঝতে পারছিলাম গানটি হিট হবে। শ্রুতি স্টুডিওতে গানটির রেকর্ডিং হয়েছিল-আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল[৪][৫][৮]

সঙ্গীত প্রযোজনাসম্পাদনা

ইমতিয়াজ বুলবুল এই গানের গীতিরচনা ও সুরারোপ করেন[৫]। গানে কন্ঠ দেন আইয়ুব বাচ্চু [৩][৯], গীতিরচনার ক্ষেত্রে আইয়ুব বাচ্চু’র গায়কী ও গানের ধরনকে প্রাধান্য দেয়া হয়েছিল[১০]

মুক্তি ও জনসংস্কৃতিতে প্রভাবসম্পাদনা

চলচ্চিত্রটি মুক্তি পাওয়ার পর শ্রোতারা এই গান সাদরে গ্রহণ করে এবং তুমুল জনপ্রিয় হয় এবং গানটি মানুষের মুখে মুখে উঠে আসে[১১][১২]। বাংলাদেশ বেতারের চলচ্চিত্র সংগীতানুষ্ঠানে এই গান নিয়মিত প্রচার করা হয়।[৭] চলচ্চিত্র মুক্তির উনিশ বছর পর অনুপম রেকর্ডিং মিডিয়ার ব্যানারে গানটির ভিডিও ২৫ জুন , ২০১৮ তারিখে ইউটিউবে অবমুক্ত করা হয়[১৩]

পুরস্কারসম্পাদনা

বাচসাস পুরস্কার

তথ্যসুত্রসম্পাদনা

  1. "টাঙ্গাইলের আসলাম থেকে মান্না"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-২৩ 
  2. "যে কারণে মান্নার 'আম্মাজান' ছবিটি ফিরিয়ে দিয়েছিলেন শাবানা"jagonews24.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২০ 
  3. "অনন্ত-প্রেম থেকে আম্মাজান চলচ্চিত্রে আইয়ুব বাচ্চু"। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২০ 
  4. "নায়ক মান্নার অনুরোধে চলচ্চিত্রে প্লে-ব্যাক করেছিলেন তিনি"www.somoynews.tv। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২০ 
  5. "আমার চোখে বাচ্চুর মুখটাই ভাসছিল : বুলবুল"Risingbd.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২০ 
  6. "চলচ্চিত্রেও দারুণ জনপ্রিয়তা পেয়েছিল বাচ্চুর গান"কালের কণ্ঠ। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-০৩ 
  7. "'অনন্ত প্রেম' থেকে 'আম্মাজান আম্মাজান'"Purboposchim। ২৩ মে ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-২৩ 
  8. "জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার: কিছু কথা কিছু ব্যথা"Risingbd.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২০ 
  9. "বেলা শেষে ফিরে এসে পাই না তারে"। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২০ 
  10. "মান্নার সবচেয়ে জনপ্রিয় সিনেমা কোনটি?"m.poriborton.com। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২০ 
  11. "চলে গেলেন গানের পাখি আইয়ুব বাচ্চু"The Daily Sangram। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২০ 
  12. "২০ বছরে আম্মাজান, মনে পড়ে সেই মান্নাকে?"। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২০ 
  13. "Ammajan"। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মে ২০২০  অজানা প্যারামিটার |1= উপেক্ষা করা হয়েছে (সাহায্য); অজানা প্যারামিটার |2= উপেক্ষা করা হয়েছে (সাহায্য); অজানা প্যারামিটার |3= উপেক্ষা করা হয়েছে (সাহায্য); অজানা প্যারামিটার |4= উপেক্ষা করা হয়েছে (সাহায্য)

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

  • বিএমডিবি তে আম্মাজান গান [১]