আমারকোর্দ ১৯৭৩ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত একটি ইতালীয় হাস্যরসাত্মক নাট্য চলচ্চিত্র। ফেদেরিকো ফেল্লিনি ছবিটি পরিচালনা করেছেন। এটি তিত্তা নামক একটি কাল্পনিক বালককে নিয়ে রচিত একটি অর্ধ আত্মজীবনীমূলক কাহিনী। তিত্তা রিমিনি শহরের প্রাচীন দেয়ালগুলোর নিকটে অবস্থিত গ্রাম বোর্গো সান গিউলিও-র বাসিন্দা। তার গ্রামের অন্যান্য বাসিন্দারা কিছুটা খামখেয়ালি প্রকৃতির। ১৯৩০ সালের ফ্যাসিবাদী ইতালির প্রেক্ষাপটে ছবিটির চিত্রনাট্য রচিত হয়েছে। [১] রোমানোলো শব্দগুচ্ছ আমারকোর্দ (আমার স্মরণ হচ্ছে) অবলম্বনে ছবিটির নামকরণ করা হয়েছে।

আমারকোর্দ
আমারকোর্দ পোস্টার.jpg
Original movie poster, by John Alcorn
পরিচালকফেদেরিকো ফেল্লিনি
প্রযোজকফ্রাঙ্কো ক্রিস্তালদি
রচয়িতাফেদেরিকো ফেল্লিনি
তোনিনো গুয়েররা
শ্রেষ্ঠাংশেব্রুনো জানিন
মাগালি নোয়েল
পুপ্পেলা ম্যাগগিও
আর্মান্দো ব্রানচিয়া
সুরকারনিনো রোতা
চিত্রগ্রাহকজুসেপ্পে রোতুন্নো
সম্পাদকরাগগেরো মাস্ত্রোইয়ান্নি
পরিবেশকপিআইসি ডিস্ত্রিবুজিওনে (IT)
ওয়ার্নার ব্রাদার্স (আন্তর্জাতিক)
মুক্তি
  • ১৮ ডিসেম্বর ১৯৭৩ (1973-12-18) (Italy)
দৈর্ঘ্য১২৪ মিনিট
দেশইতালি
ফ্রান্স
ভাষাইতালীয়

তিত্তার স্পর্শকাতর শিক্ষণ ইতালির নৈতিক অধঃপতনের প্রতীক। [২] ফেলিনি ছবিতে বেনিতো মুসোলিনি ও ক্যাথলিক চার্চের হাস্যকর প্রতিকৃতি পরিস্ফুট করে তুলেন ; তার মতে- ফ্যাসিবাদ ও ক্যাথলিক চার্চ ইতালিয়ানদের স্থায়ী কৈশোরের নিগড়ে আবদ্ধ করে রেখেছে। [৩] প্রকৃতপক্ষে তিনি তার নিজের ও গ্রামবাসীদের ব্যঙ্গাত্মক চিত্র দৃশ্যায়িত করার মধ্য দিয়ে এটা প্রমাণ করতে চেয়েছেন, তারা নৈতিক দায়দায়িত্ব গ্রহণে অক্ষম। তাই বোকার মত তাদের মন যৌন কল্পনায় নিমজ্জিত।

ছবিটি সেরা বিদেশি চলচ্চিত্র ক্যাটাগরিতে অস্কার লাভ করে। সেরা পরিচালক ও সেরা চিত্রনাট্য বিভাগেও এটি মনোনয়ন লাভ করে।

কাহিনীসংক্ষেপসম্পাদনা

একজন তরুণ নারী কাপড় মেলতে মেলতে আনন্দিত চিত্তপ পপলার বীজের দিকে অঙ্গুলিসংকেত করে। বাতাসে সেগুলো একটু পরপর দুলছিল। একজন বৃদ্ধ লোক তার পাশে বসে মাটির জিনিস বানাচ্ছিলেন। প্রৌঢ় বলেন, "তীব্র শীতের এবার সমাপ্তি হতে চলেছে।" বিদ্যালয়পড়ুয়ারা লাফিয়ে লাফিয়ে পাফবল (এক প্রকার মাশরুম) ধরার চেষ্টা করে। শহরের বিশিষ্ট উজবুক গুইদিজিও ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে থাকে এবং বসন্তকাল ও পপলার বীজ নিয়ে একটি কবিতা আবৃত্তি করে।

নাপিতের ঘর থেকে সবেমাত্র একজন ফ্যাসিবাদী তার মাথা কামিয়ে এসেছে। ঐ সময় ফিওরেল্লা তার বোন ও গ্রামের সবচেয়ে সুন্দরী রমণী গ্রাদিস্কাকে নিয়ে ঐতিহ্যবাহী বহ্ন্যুৎসবে যোগদান করে। রাত যতই ঘনিয়ে আসে, বর্গো গ্রামের বাসিন্দারা মূল সরণির দিকে রওনা হন। এদের মধ্যে রয়েছে অন্ধ অ্যাকর্ডিয়ন বাদক, যাকে স্কুলছাত্ররা সর্বদা উত্ত্যক্ত করে ; রয়েছে ব্লন্ড চুলওয়ালা কামতাড়িতা নারী ভোলপিনা ; রয়েছে শক্তিশালী তামাক ব্যবসায়ী; রয়েছে তিত্তা - যে এ ছবিরর নায়ক; রয়েছে অরেলিও, তিত্তার পিতা - যে নির্মাণশিল্পে একজন ফোরম্যান হিসেবে কর্মরত এবং তিত্তার দুষ্টুমিতে যে বরাবরই সংক্ষুব্ধ; রয়েছে মিরান্দা, তিত্তার মাতা - যে সবসময়ই তার ছেলেকে বাবার ক্রোধের আগুন থেকে রক্ষা করে ; রয়েছে লাল্লো- তিত্তার মামা, যে তিত্তাদের সঙ্গেই বসবাস করে এবং ভগ্নিপতির কৃপায় সুখেই আছে। সাথে আছেন তিত্তার পিতামহ এবং বিশিষ্ট মিথ্যুক বিসসেইন।

অভিনয়েসম্পাদনা

  • ব্রুনো জানিন - তিত্তা
  • মাগালি নোয়েল- গ্রাদিস্কা
  • পুপেল্লা ম্যাগগিও-মিরান্দা
  • আমান্দা ব্রানচিয়া-অরেলিও
  • জুসেপ্পে লানিগ্রো-তিত্তার পিতামহ
  • নান্দো অরফেই-লাল্লো
  • সিচ্চিও ইনগ্রাসিয়া-তেও

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. http://www.federicofellini.it/en/node/2611
  2. Peter Bondanella, Amarcord: The Fascism Within Us in Federico Fellini: Essays in Criticism, pp. 20-21.
  3. Bondanella, 20. For other discussions of Fellini and fascism, see Bondanella's The Cinema of Federico Fellini and I'm a Born Liar: A Fellini Lexicon

বহিঃসংযোগসম্পাদনা