আমরা একটা সিনেমা বানাবো

বাংলাদেশী চলচ্চিত্র

আমরা একটা সিনেমা বানাবো আশরাফ শিশির রচিত ও পরিচালিত মুক্ত দৈর্ঘ্যের আসন্ন বাংলাদেশী সাদা-কালো নাট্য চলচ্চিত্র। ছবিটি প্রযোজনা করেছে ইমপ্রেস টেলিফিল্ম। এতে অভিনয় করেন রাইসুল ইসলাম আসাদ, সুমনা সোমা, স্বাধীন খসরু, মাসুম আজিজ, প্রাণ রায়।[২]

আমরা একটা সিনেমা বানাবো
আমরা একটা সিনেমা বানাবো.jpg
পরিচালকআশরাফ শিশির
রচয়িতাআশরাফ শিশির
শ্রেষ্ঠাংশে
সুরকাররাফায়েত নেওয়াজ
সম্পাদকসাব্বীর মাহমুদ
প্রযোজনা
কোম্পানি
পরিবেশকইমপ্রেস টেলিফিল্ম
মুক্তি২০২০[১]
দৈর্ঘ্য২১:০৫:৩৬
দেশবাংলাদেশ
ভাষাবাংলা

এটি নির্মাণ করতে ৯ বছর ধরে ১৭৬ দিন চিত্রগ্রহণ করা হয়।[৩] ২১ ঘণ্টা দৈর্ঘ্যের[১] আমরা একটা সিনেমা বানাবো চলচ্চিত্র ইতিহাসের দীর্ঘতম চলচ্চিত্র।[৪][৫] ছবিটি ১৬ই মে ২০১৯ সালে সেন্সর বোর্ডের সামনে প্রদর্শিত হয় এবং ১৯ মে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের সেন্সর শংসাপত্র পায়।[৬] এছাড়া এটি বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভে সংরক্ষণাগারভুক্ত করা হয়।

কাহিনী সংক্ষেপসম্পাদনা

চলচ্চিত্রটিতে ভালোবাসা, স্থানীয়দের মধ্যকার জীবনযাবন ও বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ পরবর্তী ঘটনাকে কল্পকাহিনী আকারে উপস্থাপন করা হয়েছে।

কুশীলবসম্পাদনা

আমরা একটা সিনেমা বানাবো চলচ্চিত্রে ৪০০০-এর অধিক শিল্পী কাজ করেছেন।[৩] উল্লেখযোগ্য অভিনয়শিল্পী হলেন-

  • রাইসুল ইসলাম আসাদ
  • সুমনা সোমা
  • স্বাধীন খসরু
  • ইমরান ইমু
  • মাসুম আজিজ
  • প্রাণ রায়
  • তেরেসা চৈতি
  • আয়শা মুক্তি
  • এলিনা শাম্মী
  • অরণ্য রানা
  • সৈকত সিদ্দিকী
  • কাবেরী রায়চৌধুরী
  • ইয়াসিন
  • টিটো
  • সানসি ফারুক
  • অর্ণব খান
  • আসমা আক্তার লিজা
  • দুখু সুমন
  • জান্নাত সোমা
  • আব্দুর রহমান রাজীব
  • তূর্য
  • মাঈশা
  • মিমো
  • সুপ্ত
  • মিন্টু
  • মানিক
  • লিটন
  • শুভ
  • অলক
  • ভাস্কর
  • আজাদ
  • সজীব

নির্মাণসম্পাদনা

চলচ্চিত্রটির নির্মাণ শুরু হয় ২০০৯ সালে। শুটিংয়ে সময় লাগে ৯ বছর ধরে ১৭৬ দিন। ছবিটির চিত্রায়ন হয় ঈশ্বরদীতে পদ্মা নদী ও হার্ডিঞ্জ ব্রিজের আশপাশের গ্রামে।[৩][১]

মুক্তিসম্পাদনা

২১ ঘণ্টা দৈর্ঘ্যের চলচ্চিত্রটি মুক্তি প্রসঙ্গে পরিচালক শিশির জানান চলচ্চিত্রটি আটটি অধ্যায়ে ভাগ করা হবে এবং প্রতিটি অধ্যায় আলাদা ভাবে মুক্তি দেওয়ার কথা রয়েছে। প্রতিটি অধ্যায়ের সম্পর্কিত পরিণতি থাকবে।[১] ২০১৯ সালের ১৯ মে চলচ্চিত্রটি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের অনুমোদন লাভ করে।[৭]

চলচ্চিত্রটি ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে ১২তম বেঙ্গালুরু আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের প্রতিযোগিতা বিভাগে অংশ নেয়।[৮]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "২১ ঘণ্টা দৈর্ঘ্যের 'আমরা একটা সিনেমা বানাবো'"দৈনিক প্রথম আলো। জুলাই ১২, ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ৩১ আগস্ট ২০১৭ 
  2. "সাদাকালোয় 'আমরা একটা সিনেমা বানাবো'"বাংলানিউজ২৪। ১৯ এপ্রিল ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ৩১ আগস্ট ২০১৭ 
  3. "Longest film ever made screened at BIFFes"Deccan Herald (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-০৩-০৩। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১২-২১ 
  4. "বাংলাদেশে নির্মিত হলো বিশ্বের সর্বোচ্চ দৈর্ঘ্যের চলচ্চিত্র"সময় নিউজ। ১১ জুলাই ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মার্চ ২০১৮ 
  5. "'আমরা একটি সিনেমা বানাবো'র দৈর্ঘ্য ২১ ঘণ্টা"ইন্ডিপেন্ডেন্ট টোয়েন্টিফোর। জুলাই ১২, ২০১৭। ২৭ মে ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মার্চ ২০১৮ 
  6. "মুক্তির অনুমতি পেলো পৃথিবীর দীর্ঘতম ছবি"channelionline.com। সংগ্রহের তারিখ ৩০ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  7. "বাংলাদেশে নির্মিত হলো বিশ্বের সর্বোচ্চ দৈর্ঘ্যের চলচ্চিত্র"সময় নিউজ। সংগ্রহের তারিখ ২১ মে ২০১৯ 
  8. "'আমরা একটা সিনেমা বানাবো'র ভারতযাত্রা"দৈনিক প্রথম আলো। ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০