আনোয়ার চৌধুরী

ব্রিটিশ কূটনীতিক

আনোয়ার চৌধুরী (জন্ম ১৫ জুন ১৯৫৯) একজন বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত ব্রিটিশ কূটনীতিবিদ। তিনিই প্রথম কোন বাংলাদেশী যিনি ব্রিটিশ হাই কমিশনার হিসেবে বাংলাদেশে দায়িত্ব পালন করেন। এর পরে বৈদেশিক ও কমনওয়েলথ অফিসে একজন ব্যবস্থাপক হিসাবে দায়িত্ব পালন শেষে বর্তমানে তিনি পেরু তে ব্রিটিশ হাই কমিশনার হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন।

আনোয়ার চৌধুরী
২০১৭ সালে আনোয়ার চৌধুরী
কেম্যান দ্বীপপুঞ্জের গভর্নর
কাজের মেয়াদ
২৬ মার্চ ২০১৮ – ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮
সার্বভৌম শাসকদ্বিতীয় এলিজাবেথ
পূর্বসূরীহেলেন কিলপ্যাট্রিক
উত্তরসূরীমার্টিন রোপার
পেরুতে নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার
কাজের মেয়াদ
২০১৪ – ২০১৮
সার্বভৌম শাসকদ্বিতীয় এলিজাবেথ
প্রধানমন্ত্রীডেভিড ক্যামেরন
টেরেসা মে
পূর্বসূরীজেমস ডাউরিস
উত্তরসূরীকেট হ্যারিসন
বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার
কাজের মেয়াদ
২০০৪ – ২০০৮
সার্বভৌম শাসকদ্বিতীয় এলিজাবেথ
প্রধানমন্ত্রীটনি ব্লেয়ার
গর্ডন ব্রাউন
পূর্বসূরী ডেভিড কার্টার
উত্তরসূরী স্টিফেন ইভান্স
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্মআনোয়ার বখত চৌধুরী
(1959-06-15) ১৫ জুন ১৯৫৯ (বয়স ৬৪)
প্রভাকরপুর, জগন্নাথপুর, সিলেট, পূর্ব পাকিস্তান (অধুনা বাংলাদেশ)
জাতীয়তাব্রিটিশ
দাম্পত্য সঙ্গীমোমেনা চৌধুরী
সন্তান4
বাসস্থানএইলসবারি, বাকিংহামশায়ার, ইংল্যান্ড
প্রাক্তন শিক্ষার্থীসলফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়
ডুরহাম বিশ্ববিদ্যালয়
জীবিকাকূটনীতিক

প্রাথমিক জীবন

সম্পাদনা

তিনি ১৯৫৯ সালের ১৫ জুন তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর থানার পাটলী ইউনিয়নের প্রভাকরপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ছোটবেলাতেই তিনি তার বাবা মায়ের সঙ্গে লন্ডনে পাড়ি জমান। [১]

শিক্ষা

সম্পাদনা

আনোয়ার চৌধুরী একজন ব্রিটিশ কূটনীতিক হলেও তার লেখা পড়া ছিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে। তিনি সলফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইলেক্ট্রিক্যাল এবং ইলেক্ট্রনিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং থেকে বিএসসি পাশ করেন। পরে তিনি ডুরহাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৯৫ সালে এমবিএ করেন। সিভিল সার্ভিসে প্রবেশের পূর্বে তিনি RAF এর হয়ে কাজ করেন। সেই সাথে তিনি Siemens Plessey এ কর্মরত ছিলেন।

কর্ম জীবন

সম্পাদনা

তার কর্ম জীবন শুরু হয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয়ে চাকরি থেকে। সেখানে তিনি ২০০০ সাল পর্যন্ত কর্মরত ছিলেন। তবে ২০০০ সালে তিনি বাংলাদেশে হাই কমিশনার হিসাবে নিয়োগ পাওয়ার জন্যে চেষ্টা করে ব্যর্থ হলেও পরে ২০০৪ সালে তিনি বাংলাদেশে ব্রিটিশ হাই কমিশনার হিসাবে নিয়োগ প্রাপ্ত হন।

বোমা হামলা

সম্পাদনা

২০০৪ সালে নিজের জন্ম ভূমি সিলেটের শাহজালাল (র.) মাজার মসজিদ থেকে নামাজ পড়ে বের হওয়ার সময়ে তিনি সন্ত্রাসী দ্বারা বোমা হামলার শিকার হন। এসময় তিনি কোন প্রকার নিরাপক্তা কর্মী ছাড়াই ছিলেন। পরে তার উপর বোমা হামলার জন্যে তিনজন অপরাধীকে ফাঁসি দেয়া হয়। [২]

ব্যক্তিগত জীবন

সম্পাদনা

আনোয়ার চৌধুরী মোমেনা চৌধুরীর সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। তার দুই মেয়ে এবং এক ছেলে। তিনি সিলেটি বাউল গানের ভক্ত। [১]

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. "Profile: Anwar Choudhury" (ইংরেজি ভাষায়)। ২০০৪-০৫-২১। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১০-৩১ 
  2. "Three to die for UK envoy attack" (ইংরেজি ভাষায়)। ২০০৮-১২-২৩। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১০-৩১ 

বহিঃসংযোগ

সম্পাদনা
  1. [১][স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]