আদিরসাত্মক সৃষ্টিকর্ম

আদিরসাত্মক সৃষ্টিকর্ম বা কামোদ্দীপক সৃষ্টিকর্ম বলতে যৌনকামনা উদ্রেককারী শিল্প বা সাহিত্যকর্মকে বোঝায়৷ চিত্রাঙ্কন, ভাস্কর্য, আলোকচিত্র, নাটক, চলচ্চিত্র, সঙ্গীত অথবা সাহিত্য, ইত্যাদিসহ আদিরসাত্মক শিল্পের সকল শাখাই যৌনকামনা উদ্দীপক বিষয়বস্তু চিত্রিত করতে সক্ষম। কিছু সমালোচক পর্নোগ্রাফিকে এক প্রকার আদিরসাত্মক সৃষ্টিকর্ম বলে মনে করেন, কিন্তু অনেকে একে ভিন্ন বলে মনে করেন। উচ্চ-শিল্প আকাঙ্ক্ষা রয়েছে, যদিও বাণিজ্যিক পর্নোগ্রাফির সাথে এর বৈশিষ্ট্যগত পার্থক্য বিদ্যমান।[১] আরেকটি বিভাগ হল অপেশাদার পর্নোগ্রাফি, যা অ-বাণিজ্যিক কাজের অর্ন্তভূক্ত। ইরোটিক সাহিত্য এবং ইরোটিক ফটোগ্রাফি তাদের নিজস্ব ধারায় পরিণত হয়েছে। গে পর্নোগ্রাফি, লেসবিয়ান ইরোটিকা, মহিলাদের ইরোটিকা, বন্ডেজ ইরোটিকা, মনস্টার ইরোটিকা এবং টেন্যাকল ইরোটিকা সহ বেশ কয়েকটি সাবজেনারেও ইরোটিকা বিদ্যমান।

ফেরনঁদ (১৯১০–১৯১৭), জঁ আজেলু-র সৃষ্ট ফরাসি পোস্টকার্ড

কিউরিওসা'' হল কৌতূহল বা বিরলতা, বিশেষ করে অস্বাভাবিক বা কামোদ্দীপক বই।[২] প্রাচীন পুস্তক ব্যবসায়, পর্নোগ্রাফিক সৃষ্টিকর্মগুলি প্রায়ই "কিউরিওসা", "ইরোটিকা" বা "ফেসটিয়া"-এর অধীনে তালিকাভুক্ত করা হয়।

আদিরসাত্মক সৃষ্টিকর্ম ও পর্নোগ্রাফিসম্পাদনা

প্রায়ই ইরোটিকা ও পর্নোগ্রাফির মধ্যে পার্থক্য দেখা যায়, যদিও কিছুসংখ্যক দুইটির মধ্যে পার্থক্য নির্দেশ করে না।

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "পর্নোগ্রাফি"uk.encarta.msn.comEncarta। ৩১ অক্টোবর ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ মে ১১, ২০১৫ 
  2. "Curiosa (plural noun)"মেরিয়াম-ওয়েবস্টার। সংগ্রহের তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০২২