অ্যাক্সোলোটাল

স্যালাম্যান্ডার

অ্যাক্সোলোটাল বা অ্যাক্সোলোটল (/ˈæksəlɒtəl/, ধ্রুপদী নাওয়াতল: āxōlōtl [aːˈʃoːloːtɬ] (এই শব্দ সম্পর্কেশুনুন) হতে) [২]), মেক্সিকান ওয়াকিং মাছ নামেও পরিচিত যা টাইগার সালামান্ডারের সাথে সম্পর্কিত একটি নিউটেনিক সালাম্যান্ডার প্রজাতি।[৩][৪][৫] যদিও এটি "ওয়াকিং মাছ" হিসাবে পরিচিত,[৪][৫] প্রকৃতপক্ষে এটি কোনো মাছ নয় বরং একটি উভচর প্রাণী।[৩] প্রজাতিটি মূলত বেশ কয়েকটি হ্রদে পাওয়া গিয়েছিল, যেমন মেক্সিকো সিটির অন্তর্নিহিত জোছিমিলকো হ্রদ।[১] অ্যাক্সোলোটল অন্যান্য উভচর মধ্যে ব্যতিক্রম, কারণ তারা কোনও রূপান্তরকাজ ছাড়াই যৌবনে পৌঁছে যায়। ফুসফুসের বিকাশ এবং জমিতে যাওয়ার পরিবর্তে প্রাপ্তবয়স্করা জলজ এবং ফুলকাওয়ালাই থেকে যায়।

অ্যাক্সোলোটাল
Ambystoma mexicanum
Axolotl.jpg
অ্যাক্সোলোটালের পিগমেন্ট প্রদর্শন
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: প্রাণী
পর্ব: কর্ডাটা
শ্রেণী: উভচর
বর্গ: Caudata
পরিবার: Ambystomatidae
গণ: Ambystoma
প্রজাতি: A. mexicanum
দ্বিপদী নাম
Ambystoma mexicanum
(, ১৭৮৯)

এদের দ্বিপদী নাম হলো অ্যাম্বিস্টোমা মেক্সিকানাম (Ambystoma mexicanum)।[৩]

বর্ণনাসম্পাদনা

২০১০ সালের হিসাবে, মেক্সিকো সিটিতে নগরায়ণ এবং পানি দূষণের পাশাপাশি তেলাপিয়া ও পার্চের মতো আক্রমণাত্মক প্রজাতির প্রবর্তনের কারণে বন্য অ্যাক্সোলোটাল বিলুপ্তির হুমকিতে ছিল।[৬] এগুলো বর্তমানে সিআইটিইএস দ্বারা একটি বিপন্ন প্রজাতি হিসাবে এবং আইইউসিএন দ্বারা বন্য পরিবেশে জনসংখ্যা হ্রাসমূলক ক্রিটিক্যালি বিপন্ন প্রজাতি হিসাবে তালিকাভুক্ত হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত বা হারানো অঙ্গ পুনরায় তৈরি করার ক্ষমতার কারণে বৈজ্ঞানিক গবেষণায় ব্যাপকভাবে অ্যাক্সোলোটাল ব্যবহৃত হয়।[৭] মেক্সিকান বাজারগুলোতে খাদ্য হিসাবে অ্যাক্সোলোটাল বিক্রি হত এবং অ্যাজটেক ভোজনবিলাসে প্রধান খাদ্যই ছিলো এটি।[৮]

১৯৯৮, ২০০৩ এবং ২০০৮ সালের জরিপে বলা হয়েছিলো সোচিমিল্কো আবাসস্থলে প্রতি বর্গকিলোমিটারে যথাক্রমে ৬০০০, ১০০০ এবং ১০০ অ্যাক্সোলোটাল পাওয়া গিয়েছে।[৯] ২০১৩ সালে চার মাসব্যাপী অনুসন্ধানে প্রাকৃতিকভাবে বেঁচে থাকা কোনও বন্য অ্যাক্সোলটল দেখা যায়নি। এর এক মাস পরে, সোচিমিল্কোর সংযোগ নালায় প্রাকৃতিকভাবে বেঁচে থাকা দুটো বন্য অ্যাক্সোলোটাল এর দেখা পাওয়া গিয়েছিলো।[১০] শহরটি বর্তমানে "অ্যাক্সোলোটাল আশ্রয়কেন্দ্র" তৈরি এবং স্যালাম্যান্ডারদের জন্য তৈরি অবশিষ্ট এবং সম্ভাব্য আবাস সংরক্ষণের মাধ্যমে অ্যাক্সোলোটাল সংরক্ষণের কাজ করছে।

চিত্রশালাসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Luis Zambrano; Paola Mosig Reidl; Jeanne McKay; Richard Griffiths; Brad Shaffer; Oscar Flores-Villela; Gabriela Parra-Olea; David Wake (২০১০)। "Ambystoma mexicanum"বিপদগ্রস্ত প্রজাতির আইইউসিএন লাল তালিকা (ইংরেজি ভাষায়)। আইইউসিএন2010: e.T1095A3229615। ডিওআই:10.2305/IUCN.UK.2010-2.RLTS.T1095A3229615.en । সংগ্রহের তারিখ ৮ নভেম্বর ২০১৭ 
  2. "axolotl - Wiktionary"en.wiktionary.org 
  3. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; Frost নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  4. "Mexican Walking Fish, Axolotls Ambystoma mexicanum" (PDF)। ১৫ মার্চ ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  5. "Axolotols (Walking Fish)"। Aquarium Online। ১০ এপ্রিল ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৯-১২ 
  6. Matt Walker (২০০৯-০৮-২৬)। "Axolotl verges on wild extinction"। BBC। সংগ্রহের তারিখ ২০১০-০৬-২৮ 
  7. Weird Creatures with Nick Baker (Television series)। Dartmoor, England, U.K.: The Science Channel। ২০০৯-১১-১১। event occurs at 00:25। 
  8. "Mythic Salamander Faces Crucial Test: Survival in the Wild"The New York Times। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জুলাই ২০১৫ 
  9. Stevenson, M. (২০১৪-০১-২৮)। "Mexico's 'water monster' may have disappeared"। Associated Press। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০১-২৯ 
  10. "Endangered 'water monster' Axolotl found in Mexico City lake"The Independent (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৪-০২-২৪। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৬-০২