প্রধান মেনু খুলুন

সারা ক্যারোলিন অলিভিয়া কলম্যান (ইংরেজি: Sarah Caroline Olivia Colman; জন্ম: ৩০ জানুয়ারি ১৯৭৪)[১][২] হলেন একজন ইংরেজ অভিনেত্রী। তিনি চ্যানেল ফোরের হাস্যরসাত্মক ধারাবাহিক পিপ শো (২০০৩-২০১৫)-এ অভিনয় করে খ্যাতি অর্জন করেন। তার অন্যান্য উল্লেখযোগ্য টেলিভিশন কর্ম হল গ্রিন উইং (২০০৪-২০০৬), বিউটিফুল পিপল (২০০৮-২০০৯), রেভ. (২০১০-২০১৪) এবং টুয়েন্টি টুয়েলভ (২০১১-২০১২)। তিনি দ্যাট মিচেল অ্যান্ড ওয়েব লুক (২০০৬-২০০৮)-এ ডেভিড মিচেল ও রবার্ট ওয়েবের সাথে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন।

অলিভিয়া কলম্যান
Olivia Colman at Moet BIFA 2014 (cropped).jpg
২০১৪ সালে কলম্যান
স্থানীয় নাম
Olivia Colman
জন্ম
সারা ক্যারোলিন অলিভিয়া কলম্যান

(1974-01-30) ৩০ জানুয়ারি ১৯৭৪ (বয়স ৪৫)
নরউইচ, নরফোক, ইংল্যান্ড
পেশাঅভিনেত্রী
কার্যকাল২০০০-বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীএড সিনক্লেয়ার (বি. ২০০১)
সন্তান

তিনি টুয়েন্টি টুয়েলভ-এ অভিনয় করে সেরা রম্য অভিনেত্রী বিভাগে বাফটা টিভি পুরস্কার অর্জন করেন এবং ২০১৩ সালে অ্যাকিউজড-এর জন্য শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রীর পুরস্কার লাভ করেন। তিনি আইটিভির অপরাধমূলক ধারাবাহিক ব্রডচার্চ-এ এলি মিলার চরিত্রে অভিনয় করে ২০১৪ সালের শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে বাফটা পুরস্কার অর্জন করেন। এই ধারাবাহিকের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে আন্তর্জাতিক এমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। এএমসি/বিবিসির মিনি ধারাবাহিক দ্য নাইট ম্যানেজার-এ অভিনয় করে তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার অর্জন করেন এবং একটি এমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।

কলম্যান পরবর্তী কালে চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করেন এবং প্যাডি কনসিডাইনের টাইরানোসার (২০১১) চলচ্চিত্রে অভিনয় করে সমাদৃত হন। তার অন্যান্য চলচ্চিত্র ভূমিকাসমূহ হল হট ফাজ (২০০৭)-এ ডোরিস থ্যাচার, দি আয়রন লেডি (২০১১)-এ ক্যারল থ্যাচার, হাইড পার্ক অন হাডসন (২০১২)-এ রানী এলিজাবেথ, লক (২০১৩)-এ বেথান ম্যাগুইয়ার, দ্য থার্টিন্থ টেল (২০১৩)-এ মার্গারেট লিয়া, এবং ইয়োর্গোস ল্যান্থিমোসের দ্য লবস্টার (২০১৫)-এ হোটেল ম্যানেজার। ল্যান্থিমসের দ্য ফেভারিট (২০১৮) ছবিতে রানী অ্যান চরিত্রে তার কাজের জন্য তিনি সমাদৃত হন এবং শ্রেষ্ঠ সঙ্গীতধর্মী বা হাস্যরসাত্মক চলচ্চিত্র অভিনেত্রী বিভাগে গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার অর্জন করেন[৩] এবং শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে অস্কার[৪]বাফটা পুরস্কার অর্জন করেন।[৫]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. স্টলওয়ার্দি, জ্যাকব (২৮ জানুয়ারি ২০১৯)। "Olivia Colman battled with Wikipedia to get her incorrect age changed"দি ইন্ডিপেন্ডেন্ট (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জানুয়ারি ২০১৯ 
  2. "Olivia Colman reveals battle with Wikipedia over her age"স্কাই নিউজ (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জানুয়ারি ২০১৯ 
  3. "৭৬তম গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার পেলেন যাঁরা"এনটিভি অনলাইন। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জানুয়ারি ২০১৯ 
  4. "অস্কার পুরষ্কার ২০১৯: এক নজরে বিজয়ীরা"বিবিসি বাংলা (ইংরেজি ভাষায়)। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০১৯ 
  5. "বাফটায় সর্বোচ্চ পুরস্কার 'দ্য ফেভারিট'র ঘরে"সারাবাংলা.নেট। ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০১৯ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা