অর্থোহ্যান্তা ভাইরাস

অর্থোহ্যান্টা ভাইরাস (বা হান্টাভাইরাস) হচ্ছে বুনিয়াভিরালস অর্ডারের হানতাভিরিদে পরিবারের একটি একক তন্তুবিশিষ্ট, ঢাকা, নেতিবাচক-সংবেদনশীল আরএনএ ভাইরাস।[৩] এই ভাইরাসটি সাধারণত ইঁদুরকে সংক্রামিত করে তবে এদের কোনও রোগ হয় না।[৩] মানুষ ইঁদুরের প্রস্রাব, লালা বা মলের সংস্পর্শের মাধ্যমে এই হ্যান্টাভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারে।

অর্থোহ্যান্টাভাইরাস
Transmission electron micrograph of "Sin Nombre orthohantavirus"
Transmission electron micrograph of Sin Nombre orthohantavirus
ভাইরাসের শ্রেণীবিন্যাস e
অপরিচিত শ্রেণী (ঠিক করুন): অর্থোহ্যান্টাভাইরাস
আদর্শ প্রজাতি
Hantaan orthohantavirus
প্রজাতি[১]
প্রতিশব্দ[২]

হ্যান্টাভাইরাস

হান্টাভাইরাস
প্রতিশব্দঅর্থোহান্টাভাইরাস
Sigmodon hispidus1.jpg
বিশেষত্বসংক্রমিত রোগ

হ্যান্টাভাইরাসের সংক্রমণ মূলত ইঁদুরের মলের এবং মানুষের সংস্পর্শের সাথে সরাসরি সম্পৃক্ত; তবে, ২০০৫ এবং ২০১৯ সালে দক্ষিণ আমেরিকায় অ্যান্ডিস ভাইরাসে মানব-থেকে-মানব সংক্রমণের খবর পাওয়া গেছে।[৪]

হান্টাভাইরাস দক্ষিণ কোরিয়ার হান্টান নদী অঞ্চলের নামে নামকরণ করা হয়েছিল যেখানে রোগটির প্রাথমিক প্রাদুর্ভাব দেখা গিয়েছিল,[৫] এবং ১৯৭৬ সালে হো-ওয়াং লি কর্তৃক বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছিল।

মহামারীসম্পাদনা

হ্যান্টাভাইরাস সংক্রমণ অস্ট্রেলিয়া ব্যতীত বাকি মহাদেশগুলোতে পাওয়া গেছে। রেনাল সিন্ড্রোম সহ হেমোরজিক জ্বর দ্বারা আক্রান্ত অঞ্চলগুলো, যেমন- চীন, কোরিয়ান উপদ্বীপ, রাশিয়া (হান্টান, পিউমালা এবং সিওল ভাইরাস) এবং উত্তর এবং পশ্চিম ইউরোপ (পিউমালা এবং ডব্রভা ভাইরাস) এর অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। আর্জেন্টিনা, চিলি, ব্রাজিল, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা এবং পানামা সহ এই অঞ্চলগুলি হন্তাভাইরাস পালমোনারি সিন্ড্রোমের সর্বাধিক আক্রান্তের মধ্যে পড়েছে।

আফ্রিকাসম্পাদনা

২০১০ সালে, সাঙ্গাসৌ ভাইরাস, একটি নভেল হন্তাভাইরাসের খবর পাওয়া গিয়েছিল যা রেনাল সিনড্রোমের সাথে রক্তক্ষয়জনিত জ্বর সৃষ্টি করেছিল।[৬]

এশিয়াসম্পাদনা

চীন, হংকং, কোরিয়ান উপদ্বীপ এবং রাশিয়ায় রেনাল সিনড্রোমের সাথে রক্তক্ষয়জনিত জ্বর হানতাান, পিউমালা এবং সিওল ভাইরাসের কারণে ঘটে থাকে।[৭]

চীনসম্পাদনা

২০২০ সালের মার্চ মাসে ইউন্নান থেকে আসা এক ব্যক্তির দেহে হন্তাভাইরাসের টেস্ট করলে পরীক্ষায় ইতিবাচক দেখায়। কাজের জন্য শানতুং ভ্রমণের সময় চার্টার্ড বাসে তিনি মারা যান। গ্লোবাল চায়না টাইমসের রিপোর্ট অনুসারে, প্রায় ৩২জন লোককে এই ভাইরাসের জন্য পরীক্ষা করা হয়েছে।[৮][৯]

অস্ট্রেলিয়াসম্পাদনা

২০০৫ সাল পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ায় কোনও মানব সংক্রমণের খবর পাওয়া যায়নি, যদিও ইঁদুরের দেহে অ্যান্টিবডি বহন করতে দেখা গেছে।[১০]

ইউরোপসম্পাদনা

পিউমালা এবং ডব্রভা-বেলগ্রেড ভাইরাস - নামে দুটি হন্তাভাইরাস ইউরোপে রেনাল সিনড্রোমের সাথে রক্তক্ষয়জনিত জ্বর ঘটিয়েছিল।[১১]

ইতিহাসসম্পাদনা

হন্তাভাইরাস, তুলনামূলকভাবে নতুন আবিষ্কৃত একটি ভাইরাস বর্গ। কোরিয় যুদ্ধের সময় আমেরিকান এবং কোরিয়ান সৈন্যদের মধ্যে রক্তক্ষয়জনিত জ্বরের প্রাদুর্ভাব (১৯৫০-১৯৫৩) হ্যান্টাভাইরাস সংক্রমণের কারণে ঘটেছিল। কিডনি বিকল, সাধারণ রক্তক্ষরণ এবং শক সহ লক্ষণগুলোর কারণে ৩০০০-এরও বেশি সৈন্য অসুস্থ হয়ে পড়ে। এটির মৃত্যুর হার ছিল ১০%। হন্তাভাইরাস দক্ষিণ কোরিয়ার হান্টান নদী অঞ্চলের নামে নামকরণ করা হয়েছে।[১২][১৩][১৪][১৫] এই প্রাদুর্ভাবটি এটিওলজিক এজেন্টদের ২৫বছর ব্যাপী অনুসন্ধান করিয়েছিল। দক্ষিণ কোরিয়ার ভাইরোলজিস্ট হো-ওয়াং লি এবং তার সহযোগীরা ১৯৭৬ সালে স্ট্রাইড ফিল্ড ইঁদুরের ফুসফুস থেকে হ্যান্টান ভাইরাসকে পৃথক করেছিলেন।[১৬][১৭][১৮]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Virus Taxonomy: 2018b Release" (html)International Committee on Taxonomy of Viruses (ICTV) (ইংরেজি ভাষায়)। মার্চ ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ১৮ মার্চ ২০১৯ 
  2. "ICTV Taxonomy history: Orthohantavirus"International Committee on Taxonomy of Viruses (ICTV) (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জানুয়ারি ২০১৯ 
  3. "Rodent-borne diseases"European Centre for Disease Prevention and Control (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৬-০৪ 
  4. Martinez VP, Bellomo C, San Juan J, Pinna D, Forlenza R, Elder M, Padula PJ (২০০৫)। "Person-to-person transmission of Andes virus"Emerging Infectious Diseases11 (12): 1848–1853। ডিওআই:10.3201/eid1112.050501পিএমআইডি 16485469পিএমসি 3367635  
  5. "ICTV 9th Report (2011) – Negative Sense RNA Viruses – Bunyaviridae"International Committee on Taxonomy of Viruses (ICTV) (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩১ জানুয়ারি ২০১৯Hanta: from Hantaan, river in South Korea near where type virus was isolated. 
  6. Klempa B, Witkowski PT, Popugaeva E, Auste B, Koivogui L, Fichet-Calvet E, Strecker T, Ter Meulen J, Krüger DH (২০১২)। "Sangassou Virus, the First Hantavirus Isolate from Africa, Displays Genetic and Functional Properties Distinct from Those of Other Murinae-Associated Hantaviruses"Journal of Virology86 (7): 3819–3827। ডিওআই:10.1128/JVI.05879-11পিএমআইডি 22278233পিএমসি 3302504  
  7. "男生患漢坦食署Hea補鑊 住處附近僅派傳單" 
  8. "Man in China dies after testing positive for hantavirus - what exactly is it?"freepressjournal। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-২৪ 
  9. "Global Times on Twitter"Twitter। ২০২০-০৩-২৪। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-২৪ 
  10. Bi, P.; Cameron, S.; Higgins, G.; Burrell, C. (২০০৫)। "Are humans infected by Hantaviruses in Australia?"। Internal Medicine Journal35 (11): 672–674। ডিওআই:10.1111/j.1445-5994.2005.00954.xপিএমআইডি 16248862 
  11. Vapalahti O, Mustonen J, Lundkvist A, Henttonen H, Plyusnin A, Vaheri A (২০০৩)। "Hantavirus infections in Europe"। The Lancet Infectious Diseases3 (10): 653–661। ডিওআই:10.1016/S1473-3099(03)00774-6পিএমআইডি 14522264 
  12. Johnson KM (২০০১)। Hantaviruses: history and overviewCurrent Topics in Microbiology and Immunology256। পৃষ্ঠা 1–14। আইএসবিএন 978-3-642-62491-9ডিওআই:10.1007/978-3-642-56753-7_1পিএমআইডি 11217399 
  13. Schmaljohn C, Hjelle B (১৯৯৭)। "Hantaviruses: a global disease problem"Emerging Infectious Diseases3 (2): 95–104। ডিওআই:10.3201/eid0302.970202পিএমআইডি 9204290পিএমসি 2627612  
  14. Lee HW (১৯৮৯)। "Hemorrhagic fever with renal syndrome in Korea"। Reviews of Infectious Diseases11 (Suppl 4): S864–76। ডিওআই:10.1093/clinids/11.Supplement_4.S864পিএমআইডি 2568676 
  15. Lee HW, Lee PW, Johnson KM (১৯৭৮)। "Isolation of the etiologic agent of Korean Hemorrhagic fever"। The Journal of Infectious Diseases137 (3): 298–308। ডিওআই:10.1093/infdis/137.3.298পিএমআইডি 24670 
  16. Bugert, Joachim J.; Welzel, Tania Mara; Zeier, Martin; Darai, Gholamreza (২০১৩-০৪-০৪)। "Hantavirus infection—haemorrhagic fever in the Balkans—potential nephrological hazards in the Kosovo war"। Nephrology Dialysis Transplantation14 (8): 1843–1844। ডিওআই:10.1093/ndt/14.8.1843পিএমআইডি 10462258 
  17. Lee HW, Baek LJ, Johnson KM (১৯৮২)। "Isolation of Hantaan virus, the etiologic agent of Korean hemorrhagic fever, from wild urban rats"। J. Infect. Dis.146 (5): 638–44। ডিওআই:10.1093/infdis/146.5.638পিএমআইডি 6127366 
  18. "Arbovirus Catalog-Hantaan"Centers for Disease Prevention and Control। সংগ্রহের তারিখ ১৮ মে ২০১৯ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

শ্রেণীবিন্যাস
বহিঃস্থ তথ্যসংস্থান