অনন্তকুমার চক্রবর্তী

অনন্তকুমার চক্রবর্তী ওরফে ভোলাদা (এপ্রিল ১৫, ১৯০১ – জুন ৫, ১৯৭৯) একজন ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের স্বাধীনতা সংগ্রামী ছিলেন।

অনন্তকুমার চক্রবর্তী
জন্ম(১৯০১-০৪-১৫)১৫ এপ্রিল ১৯০১
মৃত্যুমে ৬, ১৯৭৯(১৯৭৯-০৫-০৬)
জাতীয়তাভারতীয়
প্রতিষ্ঠানযুগান্তর দল
আন্দোলনভারতের স্বাধীনতা আন্দোলন

প্রাথমিক জীবনসম্পাদনা

অনন্তকুমার চক্রবর্তী বরিশালের, রাকুদিয়া গ্রামে এক বাঙালি হিন্দু মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেছিলেন, যা বর্তমানে বাংলাদেশে। তাঁর পিতা চন্দ্রমণি দেবশর্মণ ছিলেন। তাঁর রাজনৈতিক জীবন শুরু হয়েছিল ১৪ বছর বয়সে বরিশাল শঙ্কর মঠ ও যুগান্তর দলের মাধ্যমে। আন্দামান জেলে বন্দী ছিলেন। ১৯৩৮ খ্রীষ্টাব্দে মুক্তির পরে সক্রিয় রাজনীতি থেকে সরে আসেন।[১]

কর্ম জীবনসম্পাদনা

প্রথমে দৌলতপুর সত্যাশ্রমে ও পরে কলকাতার কিছুদিন বিপ্লবী কর্মকান্ড করেন। ক্রমে দক্ষিণেশ্বর বিপ্লবীগোষ্ঠীর সঙ্গে তাঁর পরিচয় হয়। ১৯২৫ সালে দক্ষিণেশ্বর ষড়যন্ত্র মামলায় গেপ্তার হয়ে ৫ বছর সশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিত হয়। ১৯২৬ সালে জেলের মধ্যে পুলিশ সুপারিনটেন্ডেন্ট ভূপেন চ্যাটার্জি নিহত হলে সেই কেসএ তাঁর শাস্তি হয় ১০ বছরের জন্য দ্বীপান্তর। এই সূত্রে তাঁর বর্মার বিভিন্ন জেলে ৬ বছর ও ১৯৩৩ সাল থেকে ১৯৩৮ সাল পর্যন্ত আন্দামান জেলে কাটে। ১৯৩৮ সালে মুক্তির পরে সক্রিয় রাজনীতি থেকে সরে আসেন।[১][২]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. প্রথম খন্ড, ডাঃ ননীগোপাল দেবদাস সম্পাদিত (২০০৯)। স্বাধীনতা সংগ্রামী চরিতাভিধান। কলকাতা: শুভ্র দেবদাস। পৃষ্ঠা ১৭। 
  2. "অনন্তকুমার চক্রবর্তী (ওরফে ভোলাদা) - Barisalpedia"www.barisalpedia.net.bd। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-২৬