হোসনে আরা ওয়াহিদ

বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ

হোসনে আরা ওয়াহিদ (জন্ম ২৮শে ফেব্রুয়ারি,১৯৫৫ ) বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের একজন সাবেক সাংসদ। তিনি ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত উক্ত দায়িত্ব পালন করেন।[১] ১৯৯৬  সালে তিনি মৌলভীবাজার-হবিগঞ্জ সংসদীয় এলাকার সাংসদ হিসেবে নির্বাচিত হন। ১৯৮৩ সাল থেকে ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত তিনিপাথফাইন্ডার নামের একটি আন্তর্জাতিক এনজিওতে প্রকল্প ব্যবস্থাপক হিসেবে কাজ করেন। ইউনাইটেড স্টেটস এজেন্সি ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট দ্বারা প্রতিষ্ঠিত এনজিওটি পরিবার পরিকল্পনা, শিশুদের উন্নয়নমূলক বিভিন্ন কাজ করত। তিনি এনজিও বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে কয়েকটি দেশ পরিদর্শন করেন। এছাড়া তিনি জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের তৃতীয় কমিটি (SOCHUM)তেও যান।[২][৩][৪]

হোসনে আরা ওয়াহিদ
হোসনে আরা ওয়াহিদ
জন্ম (1955-02-28) ২৮ ফেব্রুয়ারি ১৯৫৫ (বয়স ৬৬)
মৌলভীবাজার, বাংলাদেশ
জাতীয়তাবাংলাদেশী
মাতৃশিক্ষায়তনমৌলভীবাজার সরকারি কলেজ
পেশারাজনীতি

প্রাথমিক জীবন ও কর্মজীবনসম্পাদনা

বাংলাদেশের মৌলভীবাজার জেলায় ১৯৫৫ সালের ২৮শে ফেব্রুয়ারি হোসনে আরা ওয়াহিদ জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবার নাম আব্দুল মফিজ এবং মায়ের নাম আম্বিয়া খাতুন। তিনি তারা মা-বাবার আট সন্তানদের মধ্যে সবচেয়ে বড়। তারা পাঁচ ভাই এবং তিন বোন। তার বাবা পাকিস্তান আমলে সরকারি চাকরি করতেন। ১৯৮২ সালের বন্যায় তিনি মারা যান। ১৯৬৯ সালে হোসনে আরা ওয়াহিদ বিজ্ঞান বিভাগ থেকে   মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি)  পাশ করেন। তার স্কুলের নাম হলো সিলেট সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়। সিলেট মহিলা কলেজ থেকে তিনি  উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এইচএসসি) পাশ করেন। তারপর ১৯৭৫ সালে মৌলভীবাজার সরকারি কলেজ থেকে বিজ্ঞান বিভাগে ব্যাচেলর ডিগ্রী অর্জন করেন।

১৯৮৩ সালে হোসনে আরা ওয়াহিদ পাথফাইন্ডার এনজিওতে যোগদান করেন। পরিবার-পরিকল্পনা ভিত্তিক এই এনজিও তে  তিনি প্রায় ১৩ বছর ধরে কাজ করেন। এরপর ১৯৯৬ সালে  পাঁচ বছরের জন্য নির্বাচিত একজন সংসদ সদস্য হিসাবে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদে যোগদান করেন। ২০০১ সালে তার সংসদীয় অধিবেশনের মেয়াদ শেষ হয়। এরপর তিনি বিভিন্ন সামাজিক কাজে লিপ্ত হয়ে পড়েন। তিনি মৌলভীবাজার জেলা রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির আজীবন সদস্য, মৌলভীবাজার প্রেস ক্লাব সহ আরো অনেক সংগঠনের সম্মানিত সদস্য।

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

১৯৭৭ সালে হোসনে আরা ওয়াহিদ মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওয়াহিদকে বিয়ে করেন। দাম্পত্য জীবনে তাদের চার জন সন্তান ছিলো।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "৭ম সংসদ সদস্যদের তালিকা" (PDF)বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুন ২০১৫ 
  2. "Statements During The 54th Session Of The United Nations General Assembly" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ৬ আগস্ট ২০১১ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  3. "Third Committee Takes Up Social Development Issues; Centrality Of Anti-Poverty Strategies Stressed" (ইংরেজি ভাষায়)। 
  4. "Correction" (ইংরেজি ভাষায়)।