স্টিমলজে মসজিদ

স্টিমলজে মসজিদ হচ্ছে কসোভোর স্টিমলজে অবস্থিত একটি ঐতিহাসিক স্মৃতিচিহ্ন[১] মসজিদটি ১৮২৪ সালে ১ আহমেট শটিমজা সেন্টে শটাইম নদীর কাছে নির্মিত হয়েছিলো।

স্টিমলজে মসজিদ
স্থানীয় নাম
Xhamia e Shtimes
অবস্থানস্টিমলজে, কসোভো
নির্মিত১৮২৪
ধরনইসলামী স্থাপত্য
নির্ণায়কসুরক্ষিত
সূত্র নং৩৪২০

ইতিহাসসম্পাদনা

স্টিমলজে মসজিদটি ১৮২৪ সালে ১ আহমেট শ্টিমজা সেন্টে শটাইম নদীর কাছে নির্মিত হয়। মসজিদটি ব্যাপকভাবে পরিবর্তিত হয়েছে। প্রবেশদ্বারের পাশে একটি বিশাল শক্তিশালী কংক্রিট উপগৃহ নির্মাণ করা হয়। পাথর, মাটির মর্টার এবং কাঠের গুঁড়ো (হাটুলা) এর পুরানো বারান্দাটিও গুড়িয়ে ফেলা হয়। জিলানের আতিক মসজিদের মতো পরিবর্তনগুলি বাইরের চেয়ে ভিতরে থেকে বেশি দৃশ্যমান। নামাজঘর অনেকাংশে পূর্বাবস্থায় তবে পুরানো কাঠের জানালাগুলির পরিবর্তে পুরানো কাঠের ফ্রেমেই প্লাস্টিকের জানালা প্রতিস্থাপন করা হয়েছে ।

উপঘরের গুলো গণনা না করে মসজিদে ৯টি জানালা রয়েছে।দেয়ালগুলি ২০০৪ সালে প্লাস্টার করা হয়েছিল এবং মেঝে থেকে জানালা পর্যন্ত আলংকারিক কাষ্ঠফ্লক দিয়ে সজ্জিত করা হয়। মিহরাবের শঙ্কুতে মুকারনা ("স্ট্যাল্যাক্টাইট ভল্টিং" নামেও পরিচিত) রয়েছে। তবে মিহরাব এবং পাশের দেয়ালের মাঝখানে পুরানো মসজিদের মতোই কাঠের মিম্বরটি রয়ে গেছে।মিম্বরটিতে শঙ্কু এবং অন্যান্য জ্যামিতিক ছাঁচ রয়েছে। যার মধ্যে একটি ত্রিভুজাকার ছাঁচে একটি হেপ্টাগ্রাম সহ, ইমাম দ্বারা বর্ণনা করা হয়েছে যে "তারকার কোণগুলির বিচ্ছিন্নতা কোন ব্যাপার নয়, যাতে তারা আল্লাহর প্রতি তাদের পরিবেষ্টিত ভালবাসার অংশীদার হয়।"

মসজিদটির ভিতরের দিকে মাছের আঁশের মতো কাঠের তক্তার অষ্টভুজাকৃতির গম্বুজ দ্বারা ছাদ দেওয়া হয়েছে।গম্বুজের শীর্ষে একটি বৃত্তাকার কাঠের পট্ট জ্যামিতিকভাবে সজ্জিত এবং তিনটি ঘনকেন্দ্রিক বৃত্ত দ্বারা বেষ্টিত।ভিত্তি বরাবর পাশের প্রাচীরের উপরে একটি শীতাতপ যন্ত্র চলে। ২০০৬ উপঘরটিতে একটি বিশাল বৃত্তাকার গম্বুজ এবং নিজস্ব পৃথক জানালা দিয়ে মুয়েজ্জিন মাহফিলির সাথে সংযুক্ত হয়েছে। মিনারটি হয় ১৯৯৬ সালে এবং একটি কংক্রিট-ইটের পিরামিডে শেষ হয় (সপ্তম এবং চূড়ান্ত স্তরের সমস্ত ইট); দুটি বারান্দায় মুকার্না খোদাই করা আছে এবং চূড়াটির শীর্ষে একটি অর্ধচন্দ্র বসানো।[২]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Krasniqi, Memli (৯ অক্টোবর ২০১৫)। "LISTA E TRASHËGIMISË KULTURORE PËR MBROJTJE TË PËRKOHSHME" (PDF)Cultural Heritage Without Borders Kosovo। Government of Kosovo। সংগ্রহের তারিখ ৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  2. Kadriu, Sherafedin। Trashëgimia Kulturore e Rajonit të Gjilanit। Pristina: Biblioteka Kombëtare e Kosovës "Pjetër Bodgani"। পৃষ্ঠা 85–86। আইএসবিএন 978-9951-8760-3-2