স্গোম-পো-ত্শুল-খ্রিম্স-স্ন্যিং-পো

স্গোম-পো-ত্শুল-খ্রিম্স-স্ন্যিং-পো (ওয়াইলি: sgom po tshul khrims snying po) (১১১৬-১১৬৯) দ্বাদশ শতাব্দীর একজন বিখ্যাত তিব্বতী বৌদ্ধ পণ্ডিত ছিলেন যিনি দ্বাগ্স-ল্হা-স্গাম-পো (ওয়াইলি: dwags lha sgam po) নামক বৌদ্ধবিহারের দ্বিতীয় প্রধান ছিলেন।

স্গোম-পো-ত্শুল-খ্রিম্স-স্ন্যিং-পো

জন্ম ও পরিবারসম্পাদনা

স্গোম-পো-ত্শুল-খ্রিম্স-স্ন্যিং-পো ১১১৬ খ্রিষ্টাব্দে গ্ন্যাল-বোং-স্ন্যি (ওয়াইলি: gnyal bong snyi) নামক স্থানে স্গাম-পো-পা-ব্সোদ-নাম্স-রিন-ছেন নামক বিখ্যাত বৌদ্ধ পণ্ডিতের জ্যৈষ্ঠ ভ্রাতা র্গ্যা-বা-সে-রের (ওয়াইলি: rgya ba se re) ঔরসে ত্শে-ল্চাম (ওয়াইলি: tshe lcam) নামক মহিলার গর্ভে প্রথম সন্তান রূপে জন্মগ্রহণ করেন। তার তৃতীয় ভ্রাতা রোগ-ছুং পরবর্তীকালে স্গোম-ছুং-শেস-রাব-ব্যাং-ছুব নামে বিখ্যাত হন।[১]

শিক্ষাসম্পাদনা

তার দশ বছর বয়সে তার পিতা মাতা তাকে স্গাম-পো-পা-ব্সোদ-নাম্স-রিন-ছেনের নিকটে নিয়ে গেলে তিনি তাকে 'দ্জাম-গ্লিং-গ্রাগ্স-পা (ওয়াইলি: 'dzam gling grags pa) নাম দেন। ষোল বছর বয়সে স্গাম-পো-পা-ব্সোদ-নাম্স-রিন-ছেন তাকে দীক্ষা দেন। কুড়ি বছর বয়সে তার নাম রাখা হয় ত্শুল-খ্রিম্স-স্ন্যিং-পো।[১]

ধর্মীয় দ্বন্দ্বে ভূমিকাসম্পাদনা

১১৫০ খ্রিষ্টাব্দে তিনি দ্বাগ্স-ল্হা-স্গাম-পো (ওয়াইলি: dwags lha sgam po) নামক বৌদ্ধমঠের প্রধান লামা নির্বাচিত হন ও তিনি ঐ পদে উনিশ বছর ছিলেন। ১১৬০ খ্রিষ্টাব্দে তিব্বতে বিভিন্ন বৌদ্ধ মঠের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হলে লাসা শহরের তিব্বত সম্রাট স্রোং-ব্ত্সন-স্গাম-পো দ্বারা নির্মিত জোখাং সহ বিভিন্ন প্রাচীন বৌদ্ধমঠের ক্ষতি সাধিত হয়। ১১৬৬ খ্রিষ্টাব্দে স্গোম-পো-ত্শুল-খ্রিম্স-স্ন্যিং-পো এই সংঘর্ষের প্রতিরোধের ব্যাপারে মধ্যস্থতা করেন ও তার শিষ্য ঝাং-গ্যু-ব্রাগ-পা-ব্র্ত্সোন-'গ্রুস-গ্রাগ্স-পাকে ভবিষ্যতের সমস্ত সংঘর্ষ ও বৌদ্ধ মঠ ধ্বংস প্রতিরোধের দায়িত্ব দেন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Martin, Dan (2008-08)। "Gompo Tsultrim Nyingpo"The Treasury of Lives: Biographies of Himalayan Religious Masters। সংগ্রহের তারিখ 2013-08-18  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)

আরো পড়ুনসম্পাদনা

  • Roerich, George, trans. 1996. The Blue Annals. 2nd ed. Delhi: Motilal Banarsidas, pp. 463–465.